তিস্তার জল ভাগ নিয়ে অনড় অবস্থানে মমতা

তিস্তা নিয়ে নিজের অবস্থানে অনড় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলাদেশের জলের প্রয়োজন।

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Apr 25, 2017 08:42 AM IST
তিস্তার জল ভাগ নিয়ে অনড় অবস্থানে মমতা
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Apr 25, 2017 08:42 AM IST

#শিলিগুড়ি: তিস্তা নিয়ে নিজের অবস্থানে অনড় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলাদেশের জলের প্রয়োজন। তাই, তিস্তার বদলে তোর্সা - মানসাই-সহ একাধিক নদীর জল দেওয়া হোক ঢাকাকে। কেন্দ্রীয় সরকারের ওপর চাপ বাড়িয়ে ফের প্রস্তাব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

তিস্তার পানি পায়নি ঢাকা। বদলে শেখ হাসিনাকে ফিরতে হয়েছে বিদ্যুৎ নিয়ে। তা নিয়ে অনুযোগ করতেও ছাড়েননি হাসিনা। রাজ্যকে এড়িয়ে মোদির ওপরেই তিস্তা চুক্তির দায় চাপিয়ে গিয়েছেন তিনি।

কিন্তু, অনড় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর দাবি, তিস্তা উত্তরবঙ্গের লাইফলাইন। তাতে ঢাকা ভাগ বসালে শুকিয়ে মরবে জলপাইগুড়ি, কোচবিহার-সহ বেশ কিছু এলাকা। তাহলে, তিস্তার জল নিয়ে বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের যে দাবি তার কী হবে? বদলে তোর্সা, মানসাই - সহ কয়েকটি নদীর জল বাংলাদেশকে দেওয়ার একটি বিকল্প প্রস্তাব দেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু, তাতে আবার নারাজ ঢাকা।

শেখ হাসিনার ভারত সফরের রেশ কাটার আগেই, কেন্দ্রীয় সরকারের ওপর চাপ বাড়িয়ে ফের বিকল্প প্রস্তাব দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোচবিহারে প্রশাসনিক বৈঠকের পর কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী?

কোচবিহারের মেখলিগঞ্জ এলাকা দিয়েই গিয়েছে তিস্তা। তার জল নিয়েই খরিফ মরশুমে চাষবাস চলে জেলায়। কোচবিহারে ভুট্টা, টম্যাটো-সহ কয়েকটি ফসলের উৎপাদন ঘিরে কৃষিভিত্তিক শিল্পের স্বপ্ন দেখছে রাজ্য। একইসঙ্গে, দার্জিলিংয়ের মডেলে কোচবিহারেও গড়ে তোলা হচ্ছে পৃথক রাজবংশী উন্নয়ন পর্ষদও।

মুখ্যমন্ত্রীর ড্রিম প্রোজেক্ট কোচবিহার শহরে বিমানবন্দর গড়ে তোলা। আগামী জুলাই থেকেই নয় আসনের বিমান ওঠানামা করবে বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

First published: 08:42:58 AM Apr 25, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर