নজরে আদিবাসী ভোট ব্যাঙ্ক, আজ থেকে ডুয়ার্সে সফর মমতা বন্দোপাধ্যায়ের

নজরে আদিবাসী ভোট ব্যাঙ্ক, আজ থেকে ডুয়ার্সে সফর মমতা বন্দোপাধ্যায়ের
Photo-File

লোকসভা নির্বাচনে যেখানে পায়ের তলার মাটি টলোমলো সেখানেই ঘাসফুল ফোটাতে লড়াই শুরু করে দিলেন খোদ দলনেত্রী।

  • Share this:

#জলপাইগুড়ি: পাখির চোখ উত্তরবঙ্গ। লোকসভা নির্বাচনে যেখানে পায়ের তলার মাটি টলোমলো সেখানেই ঘাসফুল ফোটাতে লড়াই শুরু করে দিলেন খোদ দলনেত্রী। উত্তরবঙ্গের মানুষের কাছে তিনি বলেছেন, "লোকসভা ভোটে গো-হারা হেরেছি। আশা করি বিধানসভা ভোটে আমাকে আপনারা পুষিয়ে দেবেন।"

সেই লক্ষ্যেই এবার উত্তরের আদিবাসী ভোট ব্যাঙ্ক অটুট রাখতে আজ থেকে ডুয়ার্সে সফর শুরু করছেন তিনি। আজ ও আগামীকাল তার নজরে কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ার। বিধানসভা ভোটকে সামনে রেখে উত্তরবঙ্গে চা-বলয়ে ও আদিবাসী ভোটে প্রচারে ঝাঁপিয়ে পড়েছে সব রাজনৈতিক দল। সেই লক্ষ্যেই এবার লড়াই শুরু করলেন খোদ মমতা বন্দোপাধ্যায়। আগামী দু'দিন আদিবাসী ভোট ব্যাঙ্ক ধরে রাখতে ফালাকাটা ও আলিপুরদুয়ার প্যারেড গ্রাউন্ডে হাজির থাকবেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। আজ ফালাকাটায় রাজ্য সরকার আয়োজিত গণ বিবাহের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। উত্তরে মেরামতি করতে চায় তৃণমূল কংগ্রেস। সেই মেরামতি করতে প্রয়োজন আদিবাসী ভোট।  যে ভোট বিজেপি টানার জন্যে মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে। আগামী সপ্তাহে বিজেপি কোচবিহার জেলা থেকে রথযাত্রা'র মাধ্যমে পরিবর্তন যাত্রার সূচনা করতে হাজির থাকছেন অমিত শাহ, জে পি নাড্ডার মতো কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। তার আগেই আদিবাসী মানুষদের পাশে আছি এই বার্তা মমতা বন্দোপাধ্যায় দিতে চলেছেন আদিবাসীদের গণ বিবাহের অনুষ্ঠান থেকে। আজ এই অনুষ্ঠানে প্রায় সাড়ে চারশো আদিবাসী যুগল সাত পাকে বাঁধা পড়বেন। এর মাধ্যমে রাজ্য সরকার যে প্রকৃতই আদিবাসী সমাজের পাশে রয়েছে সেই বার্তা দেওয়া যাবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। রাজ্য সরকারের রুপশ্রী প্রকল্পের আওতায় এই গণবিবাহের আয়োজন করা হয়েছে। সেই অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী নিজে হাজির থেকে পাশে থাকার বার্তা দেবেন। গত বছর আদিবাসীদের বিয়ে দিয়ে ধর্মান্তকরণ করার অভিযোগ ওঠে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের বিরুদ্ধে। মালদায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদ আদিবাসীদের বিয়ে দিয়ে ধর্মান্তকরণ করছে বলে অভিযোগ  ওঠে।

পরবর্তী সময় মুখ্যমন্ত্রী মালদার গাজোলে দাঁড়িয়ে আদিবাসীদের বিয়ে দেন। আদিবাসীদের সব প্রয়োজনে সবসময় তাঁদের পাশে সরকার আছে এই বার্তা দিতে চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।রুপশ্রী প্রকল্পে বিয়েতে আর্থিক সাহায্য দেওয়া হয় রাজ্য সরকারের তরফ থেকে। যেসব পরিবারের আর্থিক সঙ্গতি কম তাদের মেয়ের বয়স ১৮ পেরোলে বিয়ের জন্যে এককালীন ২৫০০০ টাকা অনুদান দেওয়া হয়। আজ ফালাকাটায় মিল রোডের মাঠে আদিবাসীদের এই গণবিবাহের অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছে।


ABIR GHOSHAL

Published by:Debalina Datta
First published:

লেটেস্ট খবর