Mamata Banerjee: 'আমার তফসিলি মেয়ে সুজাতাকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়েছে', প্রথম তিন দফায় 'জিতবই' বলে হুঙ্কার মমতার

Mamata Banerjee: 'আমার তফসিলি মেয়ে সুজাতাকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়েছে', প্রথম তিন দফায় 'জিতবই' বলে হুঙ্কার মমতার

'আমার তফসিলি মেয়ে সুজাতাকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়েছে', প্রথম তিন দফায় 'জিতবই' বলে হুঙ্কার মমতার

কোচবিহার উত্তরের জনসভা থেকে আজ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) দাবি করলেন, এই তিন দফার নির্বাচনে এগিয়ে রয়েছেন তাঁরাই। বিজেপি ধারে কাছে আসবে না।

  • Share this:

    #কোচবিহার: বাংলার বিধানসভা নির্বাচন (West Bengal Assembly Election 2021) নিয়ে রাজ্যরাজনীতি সরগরম। ইতিমধ্য়েই তিন দফার নির্বাচন হয়ে গিয়েছে। তিন দিনে ৯১টি আসনে ভোট হয়ে গিয়েছে। কোচবিহার উত্তরের জনসভা থেকে আজ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) দাবি করলেন, এই তিন দফার নির্বাচনে এগিয়ে রয়েছেন তাঁরাই। বিজেপি ধারে কাছে আসবে না।

    কোচবিহারে বিজেপির প্রার্থী সম্পর্কে মমতা এদিন কটাক্ষ করে বলেন, "আপনাদের এখানে বিনয় বর্মনের বিরুদ্ধে যিনি দাঁড়িয়েছেন, শুনেছি তিনি ২০১৬ সালে জেলে ছিলেন খুনের মামলায়।" মমতা আরও বলছেন, "এরা কী প্ল্যান করেছে জানুন। তিনটি দফায় ৯০ এর বেশি আসনে নির্বাচন হয়ে গিয়েছে। তাতে আমরা কিন্তু জিতছি। বিজেপি কিন্তু ধারে কাছে আসতে পারেনি।"

    তৃতীয় দফা নির্বাচনে বার বার খবরে উঠে এসেছে হুগলির আরামবাগ। এই কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের হয়ে লড়েছেন সুজাতা মণ্ডল। বিজেপি নেতা সৌমিত্র খাঁ এর স্ত্রী সুজাতার উপর তৃতীয় দফায় হামলা করে দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ ওঠে বিজেপির দিকেই। এই বিষয়েও এদিন কথা বলেন মমতা।

    মুখ্যমন্ত্রী বলছেন, "কাল আমাদের উপর খুব অত্যাচার করেছে আরামবাগে। আমার তফসিলি মেয়ে প্রার্থী সুজাতা মণ্ডলকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়েছে। তাঁর নিরাপত্তারক্ষী বাংলার পুলিশ আধিকারিকের মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে। গোঘাটে মানসকে পর্যন্ত মেরেছে। আমার বুথ প্রেসিডেন্টকে খুন করেছে। খানাকুলের প্রার্থীকেও পিটিয়েছে। মেয়েরা যাতে ভোট না দিতে পারে গ্রামে গ্রামে কেন্দ্রীয় বাহিনী এসে দাঁড়িয়ে গিয়েছে। বলেছে, ভোট দেওয়া যাবে না।"

    প্রসঙ্গত, এখনও বাংলায় বাকি আরও পাঁচ দফার নির্বাচন। এই মুহূর্তে উত্তরবঙ্গ রয়েছে ঘাসফুল ও পদ্মফুল দুই শিবিরের নিশানায়। তাই দুই দলেরে নেতৃত্বই একের পর এক সভা করছেন উত্তরবঙ্গে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    লেটেস্ট খবর