Mamata Banerjee on Central Force: 'সিআরপিএফ গন্ডগোল করলেই ঘেরাও করুন', মহিলাদের দাওয়াই দিলেন মমতা

Mamata Banerjee on Central Force: 'সিআরপিএফ গন্ডগোল করলেই ঘেরাও করুন', মহিলাদের দাওয়াই দিলেন মমতা

কোচবিহারের সভায় মমতা৷

নির্বাচনের শুরু থেকেই মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করে আসছেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশেই কেন্দ্রীয় বাহিনী নির্বাচনে বিজেপি-র হয়ে কাজ করছে৷

  • Share this:

    #কোচবিহার: কেন্দ্রীয় বাহিনী কোনওরকম গন্ডগোল করলে তাঁদের ঘেরাও করার জন্য মহিলাদের পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তৃণমূলনেত্রীর অভিযোগ, কেন্দ্রীয় বাহিনী তৃণমূল সমর্থকদের ভোট দিতে বাধা দান করছে৷ ফলে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করে কীভাবে ভোট দিতে হবে, এ দিন কোচবিহার উত্তর কেন্দ্রের সভা থেকে সেই নিদান দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

    নির্বাচনের শুরু থেকেই মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করে আসছেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশেই কেন্দ্রীয় বাহিনী নির্বাচনে বিজেপি-র হয়ে কাজ করছে৷ বিজেপি-কে ভোট দেওয়ার জন্য সাদারণ মানুষকেও কেন্দ্রীয় বাহিনী ভয় দেখাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এমন কি, রাজ্য পুলিশের একাংশকে নিয়েও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি৷ এ দিনও কোচবিহারের সভা থেকে তিনি বলেন, 'সিআরপিএফ, সেন্ট্রাল ফোর্স বা রাজ্যের ফোর্স যদি বলে ভোট দিতে যাবেন না, বলবেন তোমাদের কথা শুনব না৷ সবার নামে ডায়েরি করবেন, আর যদি কোনও প্রার্থীর গায়ে হাত দেয় তাহলে সঙ্গে সঙ্গে এফআইআর করবেন৷ মার খাওয়া অবস্থাতেও প্রার্থী এলাকায় ঘুরবেন৷ এমন কাউকে এজেন্ট করবেন না যে দুর্বল৷ তার থেকে বঙ্গ জননী, কন্যাশ্রীর মেয়েদের, মাদ্রাসার ছেলেদের এজেন্ট করে দিন৷ যাঁরা ভয় পায় না, বাঘের মতো লড়বে৷'

    এর পর মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'সিআরপিএফ যদি গন্ডগোল করে, আপনারা মেয়েরা একদল ওদের ঘেরাও করে রাখবেন, আর একদল ভোট দিতে যাবেন৷ শুধু ঘেরাও করে রাখলে ভোটটা দেওয়া হবে না৷ এটাই বিজেপি-র চাল৷ ফলে ভোট নষ্ট করবেন না৷ পাঁচজন ঘেরাও করবেন, পাঁচজন ভোট দেবেন৷ গ্রামে ভয় দেখালে পাবেন না, কথা বলবেন, পরিস্থিতি দেখে নেবেন৷ যদি বলে যে সারা জায়গায় ১৪৪ ধারা, তাহলে জানবেন এটা ইচ্ছে করে মিথ্যে ছড়াচ্ছে৷ যাতে মানুষ একসঙ্গে জোট বেঁধে না বেরোয় সেই জন্য মিথ্যে কথা ছড়িয়ে বেড়ায়৷'

    এ দিন রাজ্য পুলিশকেও নিশানা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তৃতীয় দফার নির্বাচনে যে ভাবে হিংসাত্মক ঘটনার সাক্ষী থেেকেছে রাজ্য, তার জন্য বিজেপি এবং পুলিশ- কেন্দ্রীয় বাহিনীকেই দায়ী করেছেন মমতা৷ তিনি বলেন, 'নির্বাচনের সময় কিছু পুলিশ বিজেপি হয়ে যায়৷ আমি সব দেখে রাখছি৷ কালকে আরামবাগের ওসি কী করেছে, দেখেছি৷' মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য বলেছেন, নিচুতলার পুলিশকর্মীরা নন, রাজ্য পুলিশের কিছু পদাধিকারীই বিজেপি-র দ্বারা প্রভাবিত হচ্ছেন৷ যাঁরা প্রকৃত সিআরপিএফ তাঁদের আমি সম্মান করি৷ কিন্তু যে সিআরপিএফ বিজেপি-র হয়ে কাজ করে, মহিলা, শিশুদের মারধর, হেনস্থা করছে, মোদি না দিদি জানতে চায়, তাঁদের আমি সম্মান করি না৷ সুকমায় এতজন জওয়ান মারা গেল, সরকার কী করছিল?'

    মমতা এ দিন দাবি করেছেন, চতুর্থ দফায় যাতে শান্তিপূর্ণ হয়, তা নিশ্চিত করা উচিত নির্বাচন কমিশনের৷ শুধু তাই নয়, কেন্দ্রীয় বাহিনী যাতে অকারণ কাউকে হেনস্থা, মারধর না করে, কমিশনকে সেই বিষয়টি দেখার জন্যও দাবি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর