স্কুলে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঘিরে ধুন্ধুমার, বিক্ষোভ সামলাতে নামল পুলিশ-র‍্যাফ

স্কুলে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঘিরে ধুন্ধুমার, বিক্ষোভ সামলাতে নামল পুলিশ-র‍্যাফ

এই আকষ্মিক 'শক' মেনে নিতে পারেনি নাবালিকা। যে ভদ্রলোকে তাকে বাঁচায়, তাকে দেখেও আতঙ্কিত হয়ে ওঠে সে, সম্পূর্ন বিবস্ত্র অবস্থায় ছুটতে থাকে রাস্তা দিয়ে। চোখে মুখে আতঙ্ক...মুখে বাঁচাও বাঁচাও আর্তি...

  • Share this:

    #মালদহ: স্কুলে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ ৷ অভিযুক্ত স্কুলের দুই শিক্ষক ৷ এই ঘটনাকে ঘিরেই অভিভাবকদের বিক্ষোভে উত্তাল মালদহের ইংরেজবাজারের জেএমএস হাইস্কুল ৷ ভেঙে ফেলা হয় স্কুলের গেট ৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লাঠিচার্জ করে পুলিশ ৷ অভিযোগ পড়ুয়াদের উপরও নির্বিচারে চালানো হয় লাঠি ৷ স্কুলে নামানো হয় র‍্যাফ ৷

    অভিযোগ, স্কুলের মধ্যেই ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করেন দুই শিক্ষক ৷ ইংরেজবাজারের জেএমএস হাইস্কুলের ঘটনা ৷ বুধবার পঞ্চম থেকে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীদের গুড চাট, ব্যাড টাচ সম্পর্কে সচেতন করা হচ্ছিল। এরপরই দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে সরব হয় ছাত্রীরা। স্কুলের মধ্যেই বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে পড়ুয়ারা। খবর পেয়ে স্কুলে পৌঁছন অভিভাবকরাও। সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারাও। ইতিমধ্যে অভিযুক্ত দু’জনকে প্রধান শিক্ষকের ঘরে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। বিক্ষোভকারীদের হটিয়ে স্কুলের গেট বন্ধ করে দেয় তারা। এরপর পুলিশের সামনেই গেট ভেঙে ভিতরে ঢোকেন বিক্ষোভাকরীরা। অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন তাঁরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে দু’দফায় লাঠিচার্জ করতে হয় পুলিশকে। ফাটানো হয় কাঁদানে গ্যাসের সেল। পালটা পুলিশকে লক্ষ করে ইট ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা। ঘটনায় আহত হন বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী। তাঁদের মালদা মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়।

    First published:

    লেটেস্ট খবর