১ কোটি টাকা লটারিতে পুরস্কার জিতেও টাকার দাবি করেননি কে? হন্যে হয়ে তাঁকে খুঁজছে পুলিশ

১ কোটি টাকা লটারিতে পুরস্কার জিতেও টাকার দাবি করেননি কে? হন্যে হয়ে তাঁকে খুঁজছে পুলিশ
প্রতীকী চিত্র ৷

বিক্রেতা কাকে টিকিট বিক্রি করেছিলেন তা নিয়ে তৈরি হয়েছে বিভ্রান্তি। কারণ রাত পর্যন্ত কেউই টিকিট দেখিয়ে পুরস্কার মূল্য দাবি করেননি।

  • Share this:

SEBAK DEBSARMA

#মালদহ: মালদহের নতুন কোটিপতি কে? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হন্যে পুলিশ। তোলপাড় হবিবপুর থেকে শুরু করে বামনগোলা থানা এলাকা । সৌজন্যে প্রতিবেশী রাজ্যের লটারি । যার প্রথম পুরস্কার ছিল ১ কোটি টাকা। আর এই পুরস্কার জেতেন মালদহের কোন এক ভাগ্যবান ।

এ নিয়ে যত হই চই কান্ড। তবে রাত পর্যন্ত খোঁজ মেলেনি পুরস্কার বিজেতার । খোদ মালদহের পুলিশ সুপার অলক রাজোরিয়া জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে কোটিপতির নিরাপত্তায় নিশ্চিত করাই পুলিশের অগ্রাধিকার। যাতে তাঁকে কোনওরকম বিপদে পড়তে না হয়।

জানা গিয়েছে, প্রতিবেশী রাজ্যের লটারিতে এদিন দুপুরের খেলায় প্রথম পুরস্কার ছিল এক কোটি টাকা । মালদহের হবিপুর থানার ১১ মাইল এলাকার একটি দোকান থেকে ওই টিকিট বিক্রি হয়। লক্ষণ বর্মন নামে ওই লটারি বিক্রেতা টিকিট কেনেন বামন গোলা থানা এলাকার পাকুয়াহাটের এক লটারি ব্যবসায়ীর কাছ থেকে । আবার ওই ব্যবসায়ী টিকিট এনেছিলেন মালদহ শহরের এক ডিস্ট্রিবিউটরের কাছ থেকে ।

21_12_19_MALDA_LOTTERY_WINNER_ENQUIRY_PIC

এদিন বিকেল নাগাদ প্রথমে জানা যায়, মালদহের ডিস্ট্রিবিউটরের বিক্রিত টিকিট থেকে প্রথম পুরস্কার জিতেছেন কোনও এক ভাগ্যবান । এরপর সিরিজ মিলিয়ে পাকুয়াহাট হয়ে খবর পৌছয় ১১ মাইলের শেষ বিক্রেতার কাছে। কিন্তু, তিনি কাকে টিকিট বিক্রি করেছিলেন তা নিয়ে তৈরি হয় বিভ্রান্তি। কারণ রাত পর্যন্ত কেউই টিকিট দেখিয়ে পুরস্কার মূল্য দাবি করেননি।

এতেই শুরু হয়েছে তোলপাড়। লটারি ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত অনেকেই বলছেন, ব্ল্যাক মার্কেটে ওই টিকিটের মূল্য আরও বেশি। কারণ অনেকেই বেহিসেবি টাকার উৎস নির্দিষ্ট করতে এই ধরনের টিকিটই খোঁজেন । এতে উপার্জন আইনানুগ হয়।

কিন্তু, মালদার ক্ষেত্রে ক্রেতার নামই পাওয়া যাচ্ছে না । পুলিশের দুশ্চিন্তা বাড়িয়েছে আরেকটি বিষয় ৷ হবিবপুরের এই এলাকা আদিবাসী অধ্যুষিত। শেষ বিক্রেতাও জানিয়েছেন, কোনও আদিবাসীর পুরস্কার পাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। এতেই চিন্তিত পুলিশ। কারণ, ভুল বুঝিয়ে বা অন্য কোন উপায়ে টিকিট হাতানোর চক্র সক্রিয় হতে পারে।​

First published: 10:11:17 PM Dec 21, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर