corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুলিশের অর্ধদগ্ধ দেহ উদ্ধার, সুপারের অফিসে বিজেপির বিক্ষোভ

পুলিশের অর্ধদগ্ধ দেহ উদ্ধার, সুপারের অফিসে বিজেপির বিক্ষোভ
মালদহে বিজেপির মিছিল

এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে আজ মালদহে বিক্ষোভ মিছিল করেন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে বিজেপি মহিলা মোর্চা। জেলা পুলিশ সুপারের অফিসে গিয়ে তুমুল বিক্ষোভ দেখানো হয়৷

  • Share this:

সেবক দেবশর্মা

#মালদহ: মালদহের কোতোয়ালিতে যুবতীর অর্ধদগ্ধ দেহ উদ্ধারের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কার্যত কোনও কিনারার হদিশ পায়নি পুলিশ। ঘটনার দুদিন পরেও মেলেনি মৃতের পরিচয়। এই অবস্থায় সোশ্যাল মিডিয়ায় শরীর থেকে উদ্ধার হওয়া আংটি, বালা, জুতো ইত্যাদির ছবি শেয়ার করে তথ্য পাওয়ার চেষ্টা করছে পুলিশ। এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে আজ মালদহে বিক্ষোভ মিছিল করেন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে বিজেপি মহিলা মোর্চা। জেলা পুলিশ সুপারের অফিসে গিয়ে তুমুল বিক্ষোভ দেখানো হয়৷

বিজেপি সাংসদের অভিযোগ, মালদহের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে পুলিশ। ধর্ষণ হলেও চেপে যাওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি। এদিন মালদায় পৌঁছে কোতোয়ালি ধানতলা ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। এলাকায় গিয়ে গ্রামবাসীদের সঙ্গেও কথা বলেন তিনি।

মালদহে বিজেপি মহিলা মোর্চার মিছিল শহর পরিক্রমা করে। মিছিলে নেতৃত্ব দিয়ে দোষীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। মিছিলের পর মালদহ পুলিশ সুপারের অফিসে গেলে সেখানে এসপি-র দেখা না পেয়ে তুমুল বিক্ষোভ দেখান বিজেপির মহিলা মোর্চার শতাধিক সদস্য। অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের সঙ্গে প্রকাশ্যে বচসায় জড়ান বিজেপি সাংসদ।

এদিকে যুবতীর আধপোড়া দেহ উদ্ধারের ঘটনায় খুন, তথ্য প্রমাণ লোপাট এবং দলবদ্ধ ভাবে অপরাধের অভিযোগে মামলা রুজু করেছে জেলা পুলিশ। তবে এখনও পর্যন্ত ওই ঘটনায় ধর্ষণের কোনও ধারা যুক্ত করা হয়নি। খুনের পর দেহ পোড়ানো হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত জেলা পুলিশ। তবে ধর্ষণ বা কোনও যৌন অত্যাচার হয়েছিল কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয় বলে পুলিশ কর্তারা জানিয়েছেন।

ঘটনার তদন্তে শুক্রবার রাতেই এলাকায় যান রাজ্য পুলিশের কর্তারা। সম্ভাব্য সব দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পুলিশের ধারণা, মৃত মহিলা ভিন রাজ্যেরও হতে পারেন । রেলপথে ঘটনাস্থলের কাছে মালদহ টাউন স্টেশনে আসার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না। বিহার, ঝাড়খণ্ড পুলিশের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছে মালদহ পুলিশ।

এদিকে ঘটনার জেরে এলাকায় সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক রয়েছে। এলাকায় যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং নিরাপত্তা নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা। অবিলম্বে এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করার দাবি তোলা হয়েছে।​
First published: December 7, 2019, 9:22 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर