Home /News /north-bengal /
Malda: স্বামীকে ভয় দেখাতে চড়া দামে বন্দুক কিনলেন স্ত্রী! তারপর মহিলার যা পরিণতি হল...

Malda: স্বামীকে ভয় দেখাতে চড়া দামে বন্দুক কিনলেন স্ত্রী! তারপর মহিলার যা পরিণতি হল...

স্বামীকে ভয় দেখাতে ৭৫০০ টাকা দিয়ে বন্দুক কিনলেন মহিলা!

স্বামীকে ভয় দেখাতে ৭৫০০ টাকা দিয়ে বন্দুক কিনলেন মহিলা!

Malda : স্বামীকে শায়েস্তা করতে চোরাকারবারিদের থেকে আগ্নেয়াস্ত্র কেনেন গৃহূবধূ। তার পরে সেই মহিলার যা পরিণতি হল।

  • Share this:

    #মালদহ: ঠিকাদার স্বামীকে ভয় দেখানোর জন্য চোরা কারবারিদের থেকে আগ্নেয়াস্ত্র কিনে শ্রীঘরে নববধূ। মালদহ শহরে আগ্নেয়াস্ত্র হস্তান্তর করার পরেই পুলিশের জালে ধড়া পড়ে অভিযুক্ত মহিলা। মহিলার ব্যাগ থেকে উদ্ধার হয় আগ্নেয়াস্ত্র। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে মালদহ শহরে। পুলিশ অভিযুক্ত মহিলাকে সোমবার মালদহ জেলা আদালতে পেশ করে ঘটনার তদন্তে নেমেছে।

    পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত মহিলার নাম ইয়াসমিন খাতুন ( ২৬)। বাড়ি মালদহের কালিয়াচক থানার ঘড়িয়ালচক এলাকায়। গত আট মাস আগে নদিয়া জেলার করিমপুরে বিয়ে হয়। স্বামী পেশায় ঠিকাসংস্থার লেবার সাপ্লায়ার। দীর্ঘদিন ধরেই বাড়ির বাইরে রয়েছেন তিনি। তাই স্বামীকে ভয় দেখাতেই আগ্নেয়াস্ত্র কেনার চিন্তা ভাবনা। পুলিশি জেরায় অভিযুক্ত মহিলা স্বীকার করেছেন, স্বামীকে ভয় দেখানোর জন্যই নিজের কাছে আগ্নেয়াস্ত্র রাখার চিন্তাভাবনা। ফোনের মাধ্যমে আগ্নেয়াস্ত্র কারবারিদের সঙ্গে যোগাযোগ হয়। দাম ঠিক হয়ে গেলে রবিবার আগ্নেয়াস্ত্র নিতে আসেন মহিলা। দীর্ঘদিন ধরেই বাবার বাড়িতে রয়েছেন তিনি।

    রবিবার পাড়ার কয়েকজন বান্ধবী কলেজে ক্লাস করতে আসেন। তার বান্ধবীরা মালদহ ওমেন্স কলেজের দূরশিক্ষার পড়ুয়া। মালদহ শহরে ঘোরার অজুহাতে বান্ধবীদের সঙ্গে আসেন মহিলা। বান্ধবীরা ক্লাসে ঢুকে যাওয়ার পর ওমেন্স কলেজের সামনে রাস্তায় দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। সেখানে অপরিচিত এক যুবক তার হাতে আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে যায়। আগ্নেয়াস্ত্রের দাম দিয়ে দেন মহিলা। পুলিশি জেরায় মহিলা আরও জানিয়েছেন, আগ্নেয়াস্ত্রের দাম হয়েছিল ৭ হাজার ৫০০ টাকা।

    আরও পড়ুন- সীতার পরনে স্কার্ট! রে-রে করে উঠলেন রাম ভক্তরা, শেষমেশ কী করলেন দীপিকা

    যে অস্ত্র কারবারির সঙ্গে তার ফোনে যোগাযোগ হয়েছিল সে অস্ত্র দিতে আসেনি। অন্য একজন এসে অস্ত্র দিয়ে যায়। অস্ত্র নিয়ে মহিলা তার ব্যাগে রাখার কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। মহিলার ব্যাগের তল্লাশি চালিয়ে উদ্ধার করে আগ্নেয়াস্ত্রটি। গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। সোমবার অভিযুক্তকে মালদহ জেলা আদালতে পেশ করে।

    স্বামীকে ভয় দেখানোর জন্য আগ্নেয়াস্ত্র কেনার কথা পুলিশি জেরায় স্বীকার করলেও এর পিছনে অন্য কোনও কারণ থাকতে পারে এমনটাই দাবি পুলিশের একাংশের। ঘটনার সঠিক তদন্ত করতে অভিযুক্তকে পুলিশি হেফাজতের আবেদন জানায় ইংরেজবাজার থানা।

    Harashit Singha

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    Tags: Malda

    পরবর্তী খবর