corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউন পরিস্থিতিতে মাঝমধ্যেই বেজে উঠছে সাইরেন, মালদহে শোরগোল !

লকডাউন পরিস্থিতিতে মাঝমধ্যেই বেজে উঠছে সাইরেন, মালদহে শোরগোল !
  • Share this:

#মালদহ: লকডাউন পরিস্থিতিতে মাঝমধ্যেই সাইরেনের শব্দ শুনতে পাচ্ছেন মালদহের মানুষ। আচমকা নিস্তব্ধতা ভেঙে এগিয়ে আসছেন ওঁরা। মোটরবাইকে সওয়ার মালদা দমকল বিভাগের কর্মীরা। সারা বছর কোথাও অগ্নিকাণ্ড হলে সক্রিয় হতে দেখা যায় তাঁদের। যুদ্ধকালিন পরিস্থিতিতে সমস্যা মোকাবিলা করা তাঁদের স্বভাবজাত দক্ষতা। তাই গোটা দেশ যখন করোনা যুদ্ধে অবতীর্ন হয়েছে তখন এরাই অন্যতম সৈনিক। সাধারন মানুষ এই সরকারি বিভাগের পরিচয় জানেন,-অগ্নি নির্বাপন দপ্তর হিসেবে।

কিন্তু, দপ্তরের সঙ্গেই জুড়ে রয়েছে এমারজেন্সি সার্ভিসেস বা জরুরী পরিষেবার বিষয়টি। আর করোনা জনিত লকডাউন পরিস্থিতি সেই পরিষেবার প্রয়োজনীয়তাকেই যেন সামনে এনে দিয়েছে। দপ্তরের মোটরবাইকে হ্যাণ্ড মাইক ঝুলিয়ে, সঙ্গে অগ্নি নির্বাপন আর জরুরী প্রয়োজনের জিনিসপত্র নিয়ে রাস্তায় মালদহের দমকল বিভাগের কর্মীরা। সকাল থেকে বেড়িয়ে পড়ছেন বিভিন্ন বাজার, গুরুত্বপূর্ন রাস্তার মোড় আর পাড়া-মহল্লায়। বিভিন্ন এলাকায় দাঁড়িয়ে প্রচার করছেন করোনা সংক্রান্ত স্বাস্থ্যবিধি। একই সঙ্গে গুজব না ছড়ানো বা গুজবে কান না দেওয়ার বার্তাও দেওয়া হচ্ছে। অনবরত প্রচার করা হচ্ছে সরকারের করোনা সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর।

দিনের বেলা বাজার বা লোকালয় গুলিতে প্রচারে জোর দেওয়া হচ্ছে। আর রাত হলে শহরের গলি থেকে রাজপথ সমানে চলছে এভাবেই সচেতনতার প্রচার। দমকল বিভাগের কর্মীদের এভাবে রাস্তায় নেমে সামাজিক কর্তব্য পালনে এগিয়ে আসতে দেখে খুশী মালদা শহর বাসী। জরুরীকালিন পরিস্থিতিতে তাঁদের এই পরিষেবার তারিফ করছেন সকলেই। করোনা বিরোধী যুদ্ধে লকডাউন-ই হাতিয়ার।লকডাউনে মানুষকে গৃহবন্দী রাখতে সচেতনার প্রচারই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন কাজ। আর মালদহে দিনরাত এই কাজ করে চলেছেন দমকল বিভাগের কর্মীরা। মোটরবাইকে চেপে শহর ও শহরতলীতে ঘুরে বেড়িয়ে মানুষকে সচেতন করার শপথ নিয়েছেন ওঁরা।

First published: March 26, 2020, 4:22 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर