Duare Sarkar: শিল্পের ছোঁয়া দুয়ারে সরকারে, দিনপ্রতি হাজার টাকায় হাসি ফুটেছে ওঁদের মুখেও...

দুয়ারে সরকারের প্রচার

Duare Sarkar: করোনাকালে দুয়ারে সরকার কর্মসূচীকে সফল করতে প্রচারে ব্যবহার করা হচ্ছে লোকশিল্পীদের।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: কালিয়াগঞ্জের রাজ্য সরকারের দুয়ারে সরকার শিবির চালু হওয়ায়  মুখে হাসি ফুটেছে লোকশিল্পীদের। উত্তর দিনাজপুর জেলায় দুয়ারে সরকারের প্রচারে লোকশিল্পীদের নামানো হয়েছে। করোনা সংক্রমণ রোধে একটা সময় টানা লকডাউনে ছিল দেশ। লকডাউনের ফলে বহু মানুষ চরম অর্থ কষ্টের মধ্যে দিন গুজরান করছেন। উত্তর দিনাজপুর জেলার বহু মানুষ লোক গানকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন। লকডাউনের কারণে সরকারি এবং বেসরকারি সমস্ত অনুষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। যারা লোকগানকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন তাঁদের অবস্থা ওই সময় আরও খারাপ হয়ে ওঠে। রাজ্য সরকার এই লোক শিল্পীদের মাসিক এক হাজার ভাতা দিলেও এই সামান্য অর্থ দিয়ে তাঁদের সংসার চালানো কষ্টকর হয়ে পড়েছিল।

দীর্ঘ প্রায় দেড় বছর পর রাজ্য সরকার দুয়ারে সরকার শিবির চালু করছে। দুয়ারে সরকারে সাধারণ মানুষের ব্যাপক অংশগ্রহণ থাকায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই লোকশিল্পীদের অবস্থার কথা ভেবে তাঁদের প্রচারের কাজে ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেন। সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী উত্তর দিনাজপুর জেলা প্রশাসন সরকারি নথিভুক্ত লোকশিল্পীদের দুয়ারে সরকারের শিবিরে প্রচারের কাজে লাগাচ্ছেন।

মাসিক এক হাজার টাকা ভাতা ছাড়াও দিন প্রতি লোকশিল্পীদের এক হাজার টাকা দেওয়া হচ্ছে। এই দুর্মূল্যের বাজারে সরকারের এই সিদ্ধান্তে লোকশিল্পীদের মুখে হাসি ফুটেছে। ইতিমধ্যে উত্তর দিনাজপুর জেলায় প্রায় চার হাজার লোকশিল্পীকে প্রচারের কাজে ব্যাবহার করা হয়েছে বলে জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে।

লোকশিল্পী গজেন্দ্রে রায় জানান, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লোকশিল্পীদের সমস্যার কথা ভেবে দূয়ারের সরকারের শিবিরে ব্যবহার করায় তারা কিছুটা বাঁচলেন। এই অবস্থা আরো কিছুদিন চললে তাদের স্ত্রী, সন্তান নিয়ে না খেয়েই মরতে হত। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তাদের আবেদন বর্তমান দুর্মূল্যের বাজারে লোকশিল্পীদের ভাতা কিছুটা বাড়িয়ে দিলে তাদের এই সমস্যার মুখে পড়তে হবে না। উত্তর দিনাজপুর জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি আধিকারিক রানারূপ দেবদাস জানান, সরকারি নির্দেশে দুয়ারে সরকার শিবিরে প্রথম পর্যায়ে চার হাজার লোকশিল্পীকে প্রচারের কাজে ব্যবহার করা হয়েছে। শিবিরের সংখ্যা বাড়লে আরো  শিল্পদের ব্যবহার করা সম্ভব হবে। শিল্পীদের এই প্রচারে ব্যবহার করায় অর্থনৈতিক দিক থেকে তারা বেশ খানিকটা উপকৃত হলেন বলে মনে করা হচ্ছে।

Published by:Suman Biswas
First published: