Home /News /north-bengal /
Leopard: ফের ডুয়ার্সের চা বাগান থেকে উদ্ধার হল চিতাবাঘের দেহ, চাঞ্চল্য এলাকায়

Leopard: ফের ডুয়ার্সের চা বাগান থেকে উদ্ধার হল চিতাবাঘের দেহ, চাঞ্চল্য এলাকায়

ফের ডুয়ার্সের চা বাগান থেকে উদ্ধার হল চিতাবাঘের দেহ, চাঞ্চল্য এলাকায়

ফের ডুয়ার্সের চা বাগান থেকে উদ্ধার হল চিতাবাঘের দেহ, চাঞ্চল্য এলাকায়

Leopard: ফের ডুয়ার্সের  চা বাগান থেকে উদ্ধার হল চিতাবাঘের মৃতদেহ, চাঞ্চল্য এলাকায়।

  • Share this:

    #ডুয়ার্স: ফের ডুয়ার্সের চা বাগান থেকে উদ্ধার হল চিতাবাঘের মৃতদেহ। বুধবার বানাহার্ট ব্লকের অন্তর্গত গ্যান্দ্রাপাড়া চা বাগানের ৫২ বি সেকশনে বাগানের শ্রমিকরা একটি পূর্ণবয়স্ক চিতাবাঘকে মৃত অবস্থায় দেখতে পান। এর পরে এই বাগানের শ্রমিকরা খবর দেন বাগান কর্তৃপক্ষকে এবং বনদফতরের কর্মীকে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন বিন্নাগুরি বন্যপ্রাণী স্কোয়াডের কর্মীরা। দুপুর বেলা শ্রমিকরা বাগানের ওই সেকশনে পাতা তোলার কাজ করতে গেলে সেই সময়ে তাঁদের নজরে আসে চিতা বাঘের পচা গলা দেহ।

    দুপুর ১ টা নাগাদ বন দফতরের কর্মীদের কাছে খবর আসে। এর পর ঘটনাস্থলে ছুটে যান বিন্নাগুড়ি বন্যপ্রাণী স্কোয়াডের রেঞ্জার শুভাশিস রায়, জলপাইগুড়ির অননারি ওয়াইল্ড লাইফ ওয়ার্ডেন সীমা চৌধুরী। মৃত দেহটি সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়। এর পর ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মৃত্যু কীভাবে হল তা এখনও পরিষ্কার নয়, ময়নাতদন্ত হলে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে বলে দাবি বন কর্তাদের। তবে প্রাথমিক ভাবে অনুমান, দ্রুত গামী গাড়ির ধাক্কায় আহত হয়ে চা বাগানে আশ্রয় নিয়ে থাকতে পারে। পরে মৃত্যু হয়েছে হয়তো অথবা কীটনাশক মিশ্রিত কোন খাবার খেয়েও মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। গত দুদিন যেভাবে বৃষ্টি হচ্ছে সেই কারণেই হয়তো কিছুটা অংশ পচে গিয়েছে চিতা বাঘটির।

    বিন্নাগুড়ি বন্যপ্রাণী স্কোয়াডের রেঞ্জার শুভাশিস রায় বলেন, বাগান কর্তৃপক্ষের তরফে আমাদের জানানো হয় যে একটি চিতাবাঘ মৃত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। বাগানের ৫২ বি সেকশনে। আমরা চিতার অর্ধ পচাগলা দেহটি উদ্ধার করি। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে নিজেদের মধ্যে লড়াই এর কারণে অথবা কীটনাশক মিশ্রিত কোন খাবার খেয়ে মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

    আরও পড়ুন- বাংলার বাদ্যকর বধূ! অতিমারীতে স্যাক্সোফোন বাজিয়ে নজির গড়েছেন দুই মহিলা

    পরিবেশপ্রেমী নাফসার আলি বলেন, আমরা শুনতে পেরেছি বানারহাট ব্লকের চা বাগানে একটি চিতাবাঘের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে যা আমাদের পরিবেশ প্রেমীদের কাছে খুব দুঃখজনক ঘটনা। প্রাথমিকভাবে যা অনুমান করা হচ্ছে কীটনাশক ওষুধ খেয়ে অথবা গাড়ির ধাক্কা লাগার পর বাগানে আশ্রয় নিয়ে নেওয় অসুস্থ হয়ে সেই চিতা পাত্রীর মৃত্যু হতে পারে অথবা এলাকা দখলের লড়াইয়ে মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। ময়নাতদন্তের পর চিতাবাঘটির মৃত্যুর সঠিক কারণটি জানা যাবে।

    শেখ রকি চৌধুরী

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    Tags: Dooars

    পরবর্তী খবর