উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

শিলিগুড়িতে বন দফতরের গুলিতে লেপার্ডের মৃত্যু! আত্মরক্ষার্থে গুলি বলে দাবি

শিলিগুড়িতে বন দফতরের গুলিতে লেপার্ডের মৃত্যু! আত্মরক্ষার্থে গুলি বলে দাবি

স্বাভাবিকভাবেই বন্যপ্রাণের মৃত্যুকে ঘিরে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। আজ ময়না তদন্তের রিপোর্ট এলেই তা পরিষ্কার হবে।

  • Share this:

 Partha Sarkar

#শিলিগুড়ি: বন দফতরের গুলিতে লেপার্ডের মৃত্যু। শিলিগুড়ির রাঙাপানির ঘটনা। গতকাল সন্ধ্যের দিকে শিলিগুড়ির গঙ্গারাম চা বাগান থেকে একটি লেপার্ড ঢুকে পড়ে রাঙাপানির লোকালয়ে। রাঙাপানির ক্যানসার হাসপাতালের কাছে একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয় লেপার্ডটি। স্থানীয়দের দাবি, কমল সরকার নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে ঢুকে পড়েছিল লেপার্ডটি। লেপার্ডের হামলায় জখম হন কমলবাবু ছাড়াও কয়েকজন।

মূহূর্তেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়। সাম্প্রতিক অতীতে এমনটা হয়নি বলে স্থানীয়দের দাবি। পালটা গ্রামবাসীরাও চড়াও হয় লেপার্ডের ওপর। বাঁশ, লাঠিসোটা নিয়ে পালটা আক্রমণ চালায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন বনকর্মীরা। সঙ্গে স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্স। বন দফতরের তিনটে টিম পৌঁছয়। প্রথমে লেপার্ডটিকে বাগে আনতে ঘুমপাড়ানি গুলিও ছোঁড়া হয়। তাতেও কাজ হয়নি। পালটা তেড়ে আসে সেটি। আহত হন শাড়ুগাড়ার রেঞ্জার সঞ্জয় দত্ত। তারপরই গুলি চালানো হয়েছে বলে দাবি বন দফতরের । আত্মরক্ষার জন্যেই গুলি চালানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন তাঁরা।

আহত স্থানীয় বাসিন্দাদের উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত রেঞ্জার সঞ্জয় দত্তকে মাটিগাড়ার একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গঙ্গারাম চা বাগানে লেপার্ডের আনাগোনা রয়েছে। গুলিতে না কি স্থানীয়দের আক্রমণে লেপার্ডের মৃত্যু হয়েছে তা নিয়ে শুরু হয়েছে ধন্দ্ব। রাজ্যের মুখ্য বন্যপ্রাণ ওয়ার্ডেন বিনোদ যাদব বৃহস্পতিবার জানান, লেপার্ডের ময়না তদন্ত করা হবে। সেই রিপোর্ট হাতে এলে মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট হবে।

অন্যদিকে, আজও রাঙাপানি এলাকা লেপার্ড আতঙ্কে ভুগছে। শিলিগুড়ির লোকালয়ে লেপার্ডের হানা অবশ্য নতুন নয়। এর আগেও বহুবার জঙ্গল এবং চা বাগান থেকে লেপার্ডের লোকালয়ে ঢুকে পড়ার ঘটনা রয়েছে। শহর লাগোয়া এলাকা তো বটেই এমনকী পুর এলাকাতেও লেপার্ড ঢুকে পড়ার ঘটনা ঘটেছে। তবে আগে কখনও লেপার্ডের মৃত্যু হয়নি। স্বাভাবিকভাবেই বন্যপ্রাণের মৃত্যুকে ঘিরে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। আজ ময়না তদন্তের রিপোর্ট এলেই তা পরিষ্কার হবে।

Published by: Simli Raha
First published: December 17, 2020, 11:23 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर