corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা আবহেই পাহাড়ে ধস ! ক্ষতিগ্রস্ত একাধিক বাড়ি

করোনা আবহেই পাহাড়ে ধস ! ক্ষতিগ্রস্ত একাধিক বাড়ি

ধসে চাপা পড়েছে বেশ কয়েকটি বাড়ি। বিপাকে পড়েছেন বাসিন্দারা।

  • Share this:

#দার্জিলিং: বর্ষা এসে পড়েছে উত্তরবঙ্গেও। আর বর্ষা ঢুকতেই পাহাড়ে ধস। রাতভর নাগাড়ে বৃষ্টির জেরে পাহাড়ের একাধিক জায়গায় শনিবার ধস নামে। ধসে চাপা পড়েছে বেশ কয়েকটি বাড়ি। বিপাকে পড়েছেন বাসিন্দারা।

একেই করোনার আতঙ্ক। এবারে ধসে বাড়ি চাপা পড়ায় মাথার ছাদও উধাও! দুশ্চিন্তায় ক্ষতিগ্রস্ত একাধিক পরিবার। রাতের দিকে নামলে আরও বড় ক্ষতি হত। বাড়ি ধসে চাপা পড়লেও হতাহতেত কোনও খবর নেই। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই সময় কেউই বাড়িতে ছিলেন না। আর তাই কেউ আহত হয়নি। আজ, শনিবার ধস নামে কার্শিয়ংয়ের টুংয়ে। একইভাবে ধস নামে সিংতাম চা বাগান এলাকাতেও।  তবে বেশি ক্ষতি হয়েছে দার্জিলিং পুরসভার ১৭ নং ওয়ার্ডের মূলডারায়। চৌরাস্তার কিছুটা নিচেই মূলডারাতে। অন্তত ৫ থেকে ৬ টি বাড়ি ধসে চাপা পড়েছে।

স্বাভাবিকভাবেই ঘুম ছুটেছে ওই এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ বাসিন্দাদের। এখন সরকারি ত্রাণ শিবিরই তাদের ভরসা। করোনা আবহে একেই দূর্বিসহ অবস্থা পাহাড়ের বাসিন্দাদের। পর্যটক নেই। ব্যবসাও নেই। তার ওপর ধস পড়ায় অত্যন্ত উদ্বেগে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের লোকেরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন জেলা প্রশাসনের কর্তারা। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারাও পৌঁছন। সকলেই ত্রাণের আশ্বাস দিয়েছেন। টানা বৃষ্টির জেরে মাটি আলগা হতেই ধসে চাপা পড়ে যায় বাড়ি। বাড়িতে ওই সময়ে কেউ না থাকায় বড় বিপদের হাত থেকে রক্ষা মিলেছে। স্থানীয় বাসিন্দারা খবর পেয়ে ছুটে গিয়ে উদ্ধার কাজে হাত লাগায়। আপাতত বৃষ্টি না কমলে বাড়ি তৈরি করা সম্ভব নয়। কেননা বৃষ্টিতে মাটি আলগা হয়ে গিয়েছে।

প্রশাসন পাশে থাকার আশ্বাস দেওয়ায় অন্তত রাতে মাথা গোঁজার ঠিকানা খুঁজে পেয়েছে ক্ষতিগ্রস্ত কয়েকটি পরিবার। করোনার মাঝেই মহা সমস্যায় পরিবারগুলো। ধসের জেরে অবশ্য যোগাযোগ ব্যবস্থা ভাঙেনি। করোনা আবহেই ধস, বৃষ্টির মোকাবিলায় তৈরী জেলা বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরও। দার্জিলিংয়ের জেলাশাসক এস পুন্নমবালাম জানান, ধসের জেরে বেশ কিছু বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

পার্থ প্রতিম সরকার

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: June 13, 2020, 7:40 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर