বাবা রাজমিস্ত্রি ,মা বিড়ি বাঁধেন...হাই মাদ্রাসা বোর্ডে রাজ্যে প্রথম জঙ্গিপুরের নাসিফা

বাবা রাজমিস্ত্রি ,মা বিড়ি বাঁধেন...হাই মাদ্রাসা বোর্ডে রাজ্যে প্রথম জঙ্গিপুরের নাসিফা

বাবা পেশায় রাজমিস্ত্রি, মা বিড়ি বাঁধেন...হাজারও প্রতিবন্ধকতা, অভাব-অনটনের মধ্যেই নাসিফা খাতুন হাই মাদ্রাসা বোর্ডে রাজ্যে প্রথম হলেন

বাবা পেশায় রাজমিস্ত্রি, মা বিড়ি বাঁধেন...হাজারও প্রতিবন্ধকতা, অভাব-অনটনের মধ্যেই নাসিফা খাতুন হাই মাদ্রাসা বোর্ডে রাজ্যে প্রথম হলেন

  • Share this:

#জঙ্গিপুর: বাবা পেশায় রাজমিস্ত্রি, মা বিড়ি বাঁধেন...হাজারও প্রতিবন্ধকতা, অভাব-অনটনের মধ্যেই নাসিফা খাতুন হাই মাদ্রাসা বোর্ডে রাজ্যে প্রথম হলেন। ৮০০-র মধ্যে তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৭৭১। জঙ্গিপুর মুনিরিয়া হাই মাদ্রাসার ছাত্রী নাসিফা প্রথম হওয়ায় উচ্ছ্বসিত শিক্ষক-শিক্ষিকা ও স্থানীয় বাসিন্দারা।

দুটো টাকা বেশি রোজগারের আশায় বাবা পাড়ি দিয়েছেন বর্ধমানে। সেখানেই রাজমিস্ত্রির কাজ করেন। মা দিনরাত বিড়ি বেঁধে মেয়ের পড়াশোনার খরচ জোগান। আজ মা-বাবার সব পরিশ্রম যেন সফল, মেয়ের সাফল্যে তাঁরাও গর্বিত।  নাসিফা জানান, তিনি সারাদিনে ৭-৮ ঘণ্টা পড়াশোনা করেন।  অবসর সময়ে মাকে বিড়ি বাঁধার কাজে সাহায্য করতেন। বড় হয়ে চিকিৎসক হতে চান নাসিফা। তাঁর ভাষায়, '' এত ভালো ফল হবে ভাবতে পারিনি । বাবা রাজমিস্ত্রির কাজ করেন, মা বিড়ি বেঁধে সংসার চালান। অভাবের মধ্যেই পড়াশোনা করেছি। বড় হয়ে চিকিৎসক হতে চাই। গরিব মানুষের জন্য কাজ করার বড় ইচ্ছে।''  মা লতিফা বিবি বলেন, '' মেয়েটাকে প্রাইভেট টিউটরের কাছে পড়াতে পারিনি। ও নিজেই পড়ত আর মাদ্রাসার  শিক্ষকেরা সহযোগিতা করেছেন।'

Pranab Kumar Banerjee

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

লেটেস্ট খবর