জলপাইগুড়ি শিশু পাচার কাণ্ডে এবার শোকজ সরকারী কর্মীকে

জলপাইগুড়ি শিশু পাচার কাণ্ডে এবার শোকজ সরকারী কর্মীকে

জলপাইগুড়ি শিশু পাচার চক্রে যুক্ত থাকার অভিযোগে নাম উঠে এল এক সরকারি কর্মীর ৷

  • Share this:

#জলপাইগুড়ি: জলপাইগুড়ি শিশু পাচার চক্রে যুক্ত থাকার অভিযোগে নাম উঠে এল এক সরকারি কর্মীর ৷ জলপাইগুড়ির CDPO সাস্মিতা ঘোষকে শোকজ করলেন জেলাশাসক রচনা ভকত ৷

গরিব বাবা-মাকে বুঝিয়ে মোটা টাকার বিনিময়ে রীতিমতো আইনি পরামর্শেই সন্তানদের দত্তক দেওয়ার ব্যবসা ফেঁদে বসেছিল ময়নাগুড়ির প্রাথমিক স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা চন্দনা চক্রবর্তী। তাতে সহায়তা করার জন্য এবং প্রত্যক্ষভাবে শিশু পাচার চক্রে যুক্ত থাকার অভিযোগ উঠেছে বিজেপি রাজ্য মহিলা মোর্চার সাধারণ সম্পাদক জুহি চৌধুরীর বিরুদ্ধে ৷

শিশু পাচারে সহায়তা করার এবার নাম উঠল চাইল্ড ডেভলপমেন্ট এ্যান্ড প্রোটেকশন অফিসার সাস্মিতা ঘোষের নাম ৷ CDPO সাস্মিতা ঘোষকে শোকজ করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জবাব তলব করেছেন জেলাশাসক রচনা ভকত ৷

শিশু পাচারে মূল অভিযুক্ত, জেলার অ্যাডপশন এজেন্সি 'নর্থ বেঙ্গল পিপলস ডেভলপমেন্ট সেন্টার'-এর চেয়ারপার্সন চন্দনা চক্রবর্তীর সঙ্গে এই সরকারি অফিসারের প্রত্যক্ষ যোগাযোগ ছিল বলেই অভিযোগ ৷ ইতিমধ্যেই সিআইডি চন্দনা চক্রবর্তী ও সোনালি মণ্ডলকে গ্রেফতার করেছে ৷ তাদের জেরা করেই উঠে আসছে একের পর এক বড় বড় নাম ৷

জলপাইগুড়িতে কীভাবে চলত শিশুপাচার চক্র?

Loading...

- জেলার অ্যাডপশন এজেন্সি 'নর্থ বেঙ্গল পিপলস ডেভলপমেন্ট সেন্টার'-এর চেয়ারপার্সন চন্দনা চক্রবর্তী

- জলপাইগুড়িতে শিশু দত্তক দেওয়ার লাইসেন্স এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের হাতে

- সংগঠনটির অধীনে একাধিক হোমও রয়েছে

- সেই হোমগুলি থেকেই বেআইনিভাবে শিশুপাচার করা হত বলে অভিযোগ

- ২০১৩ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত ১৭টি শিশুকে চন্দনা চক্রবর্তী বেআইনি ভাবে দত্তক দিয়েছেন বলেও অভিযোগ

প্রায় আটমাস আগে শিশুপাচারের অভিযোগ জানিয়ে, সমাজকল্যাণ দফতরের অধীন চাইল্ড রাইট অ্যান্ড ট্র্যাফিকিং বিভাগে চিঠি লেখে জলপাইগুড়ির চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটি। তারপরই তদন্তে নামে সিআইডি। শনিবার 'নর্থ বেঙ্গল পিপলস ডেভলপমেন্ট সেন্টারের অধীনে থাকা তিনটি হোমে তল্লাশি চালান সিআইডি আধিকারিকরা। বাজেয়াপ্ত করা হয় বেশকিছু নথি। এরপরই গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত চন্দনা চক্রবর্তীকে। তদন্তে জেলা বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষিকার ঘনিষ্ঠ যোগের তথ্য পেয়েছে সিআইডি।

First published: 10:29:40 AM Feb 21, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर