Home /News /north-bengal /
Jalpaiguri : দুই বছর পরে চৈত্র সংক্রান্তি উপলক্ষে হয়ে গেল কালী হাজরার শোভাযাত্রা! এলাকাবাসীর মুখে হাসি

Jalpaiguri : দুই বছর পরে চৈত্র সংক্রান্তি উপলক্ষে হয়ে গেল কালী হাজরার শোভাযাত্রা! এলাকাবাসীর মুখে হাসি

দুই বছর পরে চৈত্র সংক্রান্তি উপলক্ষে হয়ে গেল কালী হাজরার শোভাযাত্রা! এলাকাবাসীর মুখে হাসি

দুই বছর পরে চৈত্র সংক্রান্তি উপলক্ষে হয়ে গেল কালী হাজরার শোভাযাত্রা! এলাকাবাসীর মুখে হাসি

Jalpaiguri : এইদিন দুপুরে শহরের রবীন্দ্রনগর তেলভাজি মোড় থেকে শুরু হয়ে এই শোভাযাত্রা নানা অংশ পরিক্রমা করে। ‌

  • Share this:

    #জলপাইগুড়ি: ধূপগুড়ি রবীন্দ্রনগর কালি হাজরা কমিটির উদ্যোগে এবার বেরিয়েছিল ৬১ তম বর্ষের কালী হাজরা শোভাযাত্রা। শহর পরিক্রমা করে ধূপগুড়ি মহাশ্মশানে যান তাঁরা। এই উপলক্ষে বুধবার গভীর রাতে হয় হাজরা পুজো। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হয় চড়ক পুজো। এই শোভাযাত্রা নিয়ে মানুষের উৎসাহ ছিল চোখে পড়ার মতো। এদিন সব থেকে বড় হাজরা শোভাযাত্রাটি আয়োজন করে রবীন্দ্রনগর কালী হাজরা ও শিব পুজো কমিটি। এইদিন দুপুরে শহরের রবীন্দ্রনগর তেলভাজি মোড় থেকে শুরু হয়ে এই শোভাযাত্রা নানা অংশ পরিক্রমা করে। ‌ ‌ এছাড়াও বৃহস্পতিবার শহরের দক্ষিণায়ণ ক্লাব ময়দানে আয়োজিত হয় চড়ক পুজো ও মেলা। উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলায় কালী হাজরা পুজো বলা হলেও চড়ক পুজোর রয়েছে আরও ভিন্ন নাম। পশ্চিমবাংলার বিভিন্ন জেলায় একেক নামে এই পুজো-আচার পালন করা হয়। গম্ভীরা পূজা, শিবের গাজন, নীল পুজো ইত্যাদি ভিন্ন নামে চড়ক পুজো করা হয়। চৈত্র সংক্রান্তি যেসব অঞ্চলে পালিত হয়, গ্রাম বাংলায় আদিদেবতা শিবের মন্দিরকে ঘিরে চলে উৎসব।

    শিবকে সেখানে বুড়ো ঠাকুরও বলা হয়। বুড়ো ঠাকুরের বাড়িতে চৈত্র সংক্রান্তির দশ বারো দিন আগে থেকেই শুরু হয় উৎসবের পর্ব। যুগ যুগ ধরে এই দিন বেশিরভাগ বাঙালি বাড়িতেই নিরামিষ খাওয়ার চল। সেই সঙ্গে অনেক বাঙাল বাড়িতে চৈত্র সংক্রান্তির দিন পাঁচন খাওয়ার নিয়ম আছে। বিভিন্ন রকমের সবজি দিয়ে তৈরি এই বিশেষ পদ খুব সুস্বাদু হয়। বাঙালিদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপুজো হলেও, নববর্ষের আলাদা গুরুত্ব আছে।

    বর্তমানে এই বিশেষ দিন উপলক্ষে সেজে ওঠে সমস্ত শপিং মল থেকে পশ্চিমবাংলার রাস্তাঘাট। আর সকলে রাগ-অভিমান, দুঃখ -কষ্ট ভুলে গা ভাসান উৎসবের আনন্দে। হাজরা শোভাযাত্রা আয়োজকদের তরফে নিলয় রায় বলেন, "প্রয়াত বিজয় দাসের শুরু করে যাওয়া এই হাজরা শোভাযাত্রা ধূপগুড়ির মানুষের কাছে অন্যতম আকর্ষণ। গতবার আয়োজন না হওয়ায় সকলের মতো আমরা যারা সেজে অংশ নিই, তারাও মনমরা হয়ে ছিলাম। এবার নতুন করে শুরু করতে পারায় আনন্দিত সকলেই।"

    আরও পড়ুন- বৈশাখ থেকে চৈত্র ! এই বাংলা ১২ মাসের নাম কোথা থেকে এসেছে? জেনে নিন

    নিলয় রায় রবীন্দ্রনগর কমিটির সদস্য জানান, "৬১ তম বছরে পদার্পণ করেছে আমাদের এই কালী হাজরা পুজো। দীর্ঘদিন ধরে আমরা নিষ্ঠার সঙ্গে এই কালীহাজরা পুজোর আয়োজন করে থাকি। কিন্তু বিগত দুই বছর ধরে করোনা কালে আমাদের কালীঘাটের পুজো বন্ধ ছিল। এই দিনে কালী হাজরা রূপে সেজে রাস্তায় শোভাযাত্রা করা হয়। এই শোভাযাত্রায় শুধু কালী হাজরার রূপকে তুলে ধরা হয় না। তার সঙ্গে কালীর যে আরও রূপ রয়েছে তার কিছু রূপ তুলে ধরা হয়। এর সঙ্গে থাকে বিভিন্ন রকমের ভূত-প্রেত এবং দেবলোকের বিভিন্ন দেবতার সাজে সজ্জিত সদস্যরা"। ধূপগুড়ি ১৩ নাম্বার ওয়ার্ড থেকে এই শোভাযাত্রা শুরু হয় এবং গোটা ধূপগুড়ি পরিক্রমা করে। চৈত্রসংক্রান্তির আগের দিন রাতে কালী হাজরা এবং মহাদেবের পুজো হয় এবং চৈত্রসংক্রান্তির বিকেলবেলা চড়ক মেলা আয়োজন করা হয়ে থাকে।

    SEKH ROCKY CHWDHURY

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    Tags: Jalpaiguri

    পরবর্তী খবর