• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • JALPAIGURI 130 CHILDREN HOSPITALIZED WITH FEVER VOMIT IN JALPAIGURI HOSPITAL AMID COVID SCARE SWD

Jalpaiguri: আতঙ্ক জলপাইগুড়িতে! জ্বর, বমি নিয়ে হাসপাতালে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা বেড়ে হল ১৩০

Jalpaiguri: গতকাল অর্থাৎ রবিবার পর্যন্ত অসুস্থ শিশুদের সংখ্যা ছিল ১২১ জন। কিন্তু আজ সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৩০।

Jalpaiguri: গতকাল অর্থাৎ রবিবার পর্যন্ত অসুস্থ শিশুদের সংখ্যা ছিল ১২১ জন। কিন্তু আজ সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৩০।

  • Share this:

    #জলপাইগুড়ি: জলপাইগুড়িতে (Jalpaiguri) শিশুদের জ্বর (Fever) ক্রমশ চিন্তা বাড়াচ্ছে। করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের (Corona Third wave) আশঙ্কায় রয়েছে গোটা দেশের মানুষ। আর তার মধ্যেই এই জ্বর নতুন করে দুশ্চিন্তায় ফেলেছে। জ্বর, পেটের সমস্যা, বমি ইত্যাদি উপসর্গ নিয়ে হঠাৎই হাসপাতালে ভর্তি হয় বহু শিশু। সেই সংখ্যাটা গিয়ে এখন পৌঁছেছে ১৩০-এ। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ইতিমধ্যেই দুই শিশুকে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে রেফার করা হয়েছে।

    গতকাল অর্থাৎ রবিবার পর্যন্ত অসুস্থ শিশুদের সংখ্যা ছিল ১২১ জন। কিন্তু আজ সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৩০। যদিও সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছুটি পেয়েছে ৪৮ জন। কিন্তু এই মুহূর্তে অসুস্থ শিশুর সংখ্যা ১৩০ যা উদ্বেগ বাড়াচ্ছে স্বাস্থ্য দফতরের। এই শিশুদের চিকিৎসা চলছে। তবে প্রত্যেক শিশুরই কোভিড পরীক্ষা করা হয়েছে এবং প্রত্যেকেরই রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। এমনকী শিশুদের মায়েদেরও করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। এই সময়ে সিজনাল জ্বরও হয়। কিন্তু একসঙ্গে এতজন শিশু অসুস্থ হয়ে পড়ায় বিশদে পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে।

    ডেঙ্গু, চিকনগুনিয়া ছড়িয়েছে কিনা জানতে শিশুদের রক্তের নমুনা,সোয়াব কলকাতার স্কুল অফ ট্রপিকাল মেডিসিনে পাঠানো হবে বলে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডক্টর শান্তনু হাজরা জানিয়েছেন। সোমবার বিকেলে জলপাইগুড়ির জ্বর পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালে আসেন মেডিক্যাল কলেজের পাঁচ চিকিৎসক প্রতিনিধি দল। হাসপাতালের শিশু বিভাগ ঘুরে দেখেন তাঁরা।

    শিশুদের এই নতুন বিপদের কারণে ইতিমধ্যেই জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালের শিশু বিভাগে আরও ১৫টি বেড বাড়ানো হয়েছে। শিশু ও তাঁদের মায়েদের করোনার র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট (র‍্যাট) করানোর নির্দেশও জারি করা হয়েছে। চিকিৎসক শান্তনু হাজরা জানিয়েছেন, উদ্বেগের তেমন কোনও কারণ এখনও পাওয়া যায়নি। আবহাওয়া পরিবর্তনের কারনেই এই জ্বর বলে অনুমান। তবুও ডেঙ্গু, জাপানি এনসেফালাইটিস, চিকনগুনিয়া পরীক্ষার জন্য রক্ত ও সোয়াবের নমুনা ট্রপিকাল মেডিসিন এ পাঠানো হবে।

    আরও পড়ুন- জলপাইগুড়িতে আতঙ্ক! হঠাৎ জ্বর-পেট খারাপে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে বহু শিশু

    জানা যাচ্ছে অসুস্থ হয়ে পড়া অধিকাংশ শিশুই ময়নাগুড়ি, ধূপগুড়ি, মেখলিগঞ্জ ও হলদিবাড়ির বাসিন্দা। স্বাভাবিক কারণেই জেলার এই জায়গাগুলির দিকে বিশেষ নজর দিচ্ছে জেলা স্বাস্থ্য দফতর। যদিও চিকিৎসকদের তরফে জানানো হয়েছে, জ্বর ও পেট খারাপের এই সমস্যা নিয়ে এখনই ভয়ের কিছু নেই।

    আরও পড়ুন- করোনায় মৃতের অঙ্গ চুরি হয়নি তো? চার মাস পরে দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: