নারী সুরক্ষায় এবার বিশেষ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস আনল পুলিশ

নারী সুরক্ষায় এবার বিশেষ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস আনল পুলিশ

ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই 'পুলিশ সহায়ক' নামক অ্যাপসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে ইসলামপুর পুলিশ জেলায়।

  • Share this:

Uttam Paul

#ইসলামপুর: নারী সুরক্ষায় বিশেষ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস চালু করতে চলেছে ইসলামপুর পুলিশ জেলা। পুলিশের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ দিয়েছেন,স্কুল শিক্ষিকা থেকে গৃহবধূ। ইসলামপুর পুলিশ জেলায়  পাঁচটি থানায় মহিলাদের উপর অত্যাচারের সংখ্যা মাসে ২০০ থেকে ২৫০টি। যা জেলা পুলিশ প্রশাসনকে চিন্তার মধ্যে ফেলে দিয়েছে। নতুন পুলিশ জেলার ভালভাবে পরিকাঠামো গঠন না হলেও মহিলাদের নিরাপত্তার উপর বাড়তি জোর অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাহায্য নিচ্ছে ইসলামপুর পুলিশ জেলা।

বিশেষ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস চালু করে মহিলাদের পাশে দাঁড়ানো উদ্যোগ নিয়েছে।আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহেই এই অ্যাপস চালু করতে চলেছে জেলা পুলিশ। মহিলাদের উপর অত্যাচারের ঘটনা ঘটলেও পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রায়ই প্রশ্ন ওঠে।এই প্রযুক্তির সাহায্য নেবার পাশাপাশি বেশ কয়েকটি পুলিশ ভ্যানের সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়েছে। ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই 'পুলিশ সহায়ক' নামক অ্যাপসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে ইসলামপুর পুলিশ জেলায়।

ইসলামপুর পুলিশ জেলা সুপার শচীন মক্কার জানিয়েছেন, একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস তৈরি করা হচ্ছে।  অন্যান্য পরিষেবার পাশাপাশি মহিলাদের জন্যও একটি বিশেষ ব্যবস্থা করা হচ্ছে। যে কোনও সমস্যায় মহিলারা ওই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস ব্যবহার করতে পারে।

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসের মাধ্যমে কী করে পুলিশের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করবে মহিলারা? এই প্রশ্নের উত্তরে পুলিশ সুপার বলেন, একটি অপশন রাখা হয়েছে অ্যাপসে। সেখানে ক্লিক করলে ফোন নম্বর থেকে সরাসরি পুলিশ কন্ট্রোল রুমে  একটি মেসেজ আসবে। আক্রান্তের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসে লোকেশন এক্সেস দেওয়া থাকলে জিপিএসের মাধ্যেমে জায়গার নাম জানতে পারবে পুলিশ। এরপরই যত দ্রুত সম্ভব নিকটবর্তী থানার পুলিশের বিশেষ পুলিশ ভ্যান সেই স্থানে পৌঁছে মহিলাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করবে।

পুলিশ সুপার শচীন মক্কার আরও বলেন, এই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস চালু হলে পুলিশের রেসপন্স টাইম অনেকটাই কমে আসবে।স্কুল কলেজের ছাত্রীরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস ব্যবহারে কোন সমস্যার মধ্যে না পড়েন তারজন্য পুলিশের বিশেষ দল  স্কুল, কলেজে  গিয়ে এই অ্যাপস ব্যবহারে ছাত্রীদের শিক্ষিত করে তুলবে। এই মুহূর্তে ইসলামপুর পুলিশ জেলায় মহিলা পুলিশের সংখ্যা কম থাকায় আপাতত সাধারন  পুলিশ অফিসারেরাই বিষয়টি দেখভাল করবেন।  পরবর্তীতে মহিলা পুলিশই এইসব বিষয় গুলোর উপরে নজর রাখবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার।

পুলিশ সহায়ক' নামক অ্যাপসটি চালু হলে এই সংক্রান্ত ক্রাইম রোখা সম্ভব হবে বলেই মনে করছেন পুলিশ সুপার। ইসলামপুর পুলিশ মহিলাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার উদ্যোগ নেওয়া খুশী জেলার মহিলারা। মৌসুমী নন্দী নামে এক স্কুল শিক্ষিকা জানিয়েছেন, একদিকে শিক্ষিকা অন্যদিকে সন্তানের মা। সন্তানকে স্কুলে, গৃহশিক্ষকের কাছে পাঠিয়ে চরম আতঙ্কের মধ্যে থাকতে হয়।পুলিশ মহিলাদের নিরাপত্তা বিষয়টি সুনিশ্চিত করতে পারলে মায়েরা সবচাইতে বেশী চিন্তা মুক্ত হবেন।একই ভাবে খুশী গৃহবধূ নিপা দাস।রাজ্য জুড়ে যে ভাবে মহিলাদের উপর অত্যাচারের ঘটনা ঘটছে তাতে তারও আতঙ্কিত। পুলিশ সজাগ থাকলে এধরনের অবাঞ্চিত ঘটনা রোখা সম্ভব হবে।

First published: 03:41:47 PM Jan 12, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर