হেলমেট পরেননি ? ট্র‍্যাফিক আইন ভেঙেছেন ? দাঁড় করে খাওয়ানো হচ্ছে পিঠে, পুলি !

হেলমেট পরেননি ? ট্র‍্যাফিক আইন ভেঙেছেন ? দাঁড় করে খাওয়ানো হচ্ছে পিঠে, পুলি !

ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে চলছে পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ। ট্র‍াফিক পুলিশের উদ্যোগে শিলিগুড়ি জুড়ে চলছে সচেতনতা প্রচার

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ট্র‍াফিক নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে চলছে পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ। ট্র‍াফিক পুলিশের উদ্যোগে শিলিগুড়ি জুড়ে চলছে সচেতনতা প্রচার। আইন ভাঙলেই অভিনব উপায়ে বাইক চালক থেকে গাড়ির চালকদের সচেতন করতে উদ্যোগি ট্রাফিক পুলিশ।

কিন্তু কী সেই 'অভিনব' উপায় ? তবে খোলসা করেই বলা যাক! গত কয়েক বছর ধরেই ট্রাফিক  আইন ভঙ্গকারীদের হাতে কখও গোলাপ ফুল কখনও    বা মিষ্টিমুখ করিয়েছেন ট্র‍্যাফিক পুলিশ কর্তারা। এবারে ট্রাফিক নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে এগিয়ে এল বিধাননগর ওয়েলফেয়ার সোসাইটি। বৃহস্পতিবার শিলিগুড়ির ঘোষপুকুর বাইপাস মোড়ে পথ নিরাপত্তা সপ্তাহের অঙ্গ হিসেবে স্থানীয় স্কুলের ছাত্রীদের নিয়ে পথে নামল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সদস্যরা। বাইক চালকের মাথায় হেলমেট নেই ? সটান দাঁড় করিয়ে মুখে তুলে দেওয়া হল পিঠে!

গতকাল ছিল পৌষ পার্বণ। পার্বণের সঙ্গে সঙ্গতি রেখেই এই অভিনব ভাবনা। নানা ধরনের পিঠে, পাটিসাপটা তো ছিলই,  ছিল দুধ পুলিও। বিধাননগরের মিলনপল্লি, সুকান্তপল্লির গৃহবধূ প্রতিমা বাড়ুই, শিখা মজুমদার, ভারতী ঘোষ-রা নিজের হাতে তৈরি করেছেন পিঠে, পুলি। সেই সমস্ত পিঠে-পুলি-মিষ্টি নিয়েই ঘোষপুকুর বাইপাসে হাজির ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সদস্যরা। বিধাননগর গার্লস স্কুলের ছাত্রীদের সঙ্গে নিয়ে ট্র‍্যাফিক পুলিশের সহযোগিতায় চলে পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ পালন।

বাইক চালক বা আরোহীর মাথায় হেলমেট নেই ? বাইক দাঁড় করিয়ে চালক ও আরোহীর মুখে দেওয়া হল পিঠে, পুলি। ট্র‍্যাফিক সিগন্যাল ভাঙলেও একই 'ট্রিটমেন্ট'! চালকককে খাওয়ানো হল পৌষ পার্বণের মেনু! এহেন অভিনব পরিকল্পনায় অবাক বাইক এবং গাড়ির চালকেরা। ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সদস্য, ছাত্রীদের হাতে ধরা প্ল্যাকার্ড। 'সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ'-এর পাশাপাশি ছিল থিম ভাবনায় লেখা প্ল্যাকার্ড "পিঠে পুলি মুখে তুলুন, হেলমেটের ব্যবহার করুন।"

এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন ট্র‍্যাফিক পুলিশ কর্তারাও।  বিধাননগর ওয়েলফেয়ার সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা বাপন দাস জানান, ট্র‍্যাফিক নিয়ে সাধারন মানুষদের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে প্রতি বছরই আমরা পথে নামি। প্রতিবছরই পালিত হয় পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ। নানা ভাবনায় পথে নামে ট্র‍াফিক পুলিশ। আয়োজন করা হয় রক্তদান শিবির, বসে আঁকো প্রতিযোগিতার। বিলি করা হয় হেলমেটও। তারপরও সচেতনতার অভাব রয়েছে। সাধারন মানুষকে আরো বেশি এগিয়ে আসতে হবে।

Partha Pratim sarkar

First published: 03:54:17 PM Jan 16, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर