corona virus btn
corona virus btn
Loading

রায়গঞ্জ কুলিক নদী বাঁধ মেরামতির উদ্যোগ নিল সেঁচ দফতর

রায়গঞ্জ কুলিক নদী বাঁধ মেরামতির উদ্যোগ নিল সেঁচ দফতর

রায়গঞ্জ শহর ও শহর সংলগ্ন গ্রামগুলিকে বন্যার হাত থেকে রক্ষা করতে মঙ্গলবার সকাল থেকেই সেচ দফতরের সহায়তায় বাঁধ মেরামতের কাজে নেমে পড়া হয়েছে।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ কুলিক নদীর জলে প্লাবিত হয়ে রায়গঞ্জের কুলিক বাঁধের দ্রুত মেরামতের উদ্যোগ নিল রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতি। সোমবারই রায়গঞ্জ শহর সংলগ্ন আবদুলঘাটা এলাকায় কুলিক নদীবাঁধের কিছুটা অংশ ভেঙে যাওয়ায় রায়গঞ্জ শহর ও শহর সংলগ্ন গ্রামগুলিকে বন্যার হাত থেকে রক্ষা করতে সেচ দফতরের সহায়তায় মঙ্গলবার সকাল থেকেই রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতি বাঁধ মেরামতের কাজে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মানস ঘোষ নিজে দাঁড়িয়ে থেকে বাঁধ মেরামতির কাজে তদারকি করেন। মানস বাবু বলেন, সোমবারই কুলিক নদীবাঁধ ভেঙে যাওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। সোমবার গতকালই পরিদর্শন করে সেচ দফতরে রিপোর্ট করেছিলাম। রায়গঞ্জ শহর ও শহর সংলগ্ন গ্রামগুলিকে বন্যার হাত থেকে রক্ষা করতে মঙ্গলবার সকাল থেকেই সেচ দফতরের সহায়তায় বাঁধ মেরামতের কাজে নেমে পড়া হয়েছে।

রায়গঞ্জ ব্লকের ভাটোল, জগদীশপুর, শীতগ্রাম, বাহিন, গৌরী ও কমলাবাড়ি এই ছটি গ্রামপঞ্চায়েতের বিভিন্ন গ্রামে কুলিক ও নাগর নদীর জলে বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। নতুন করে নাগর নদীর জল না বাড়লেও কুলিক নদীর জল সামান্য বেড়েছে। গৌরী ও বাহিন গ্রামপঞ্চায়েত এলাকার বেশকিছু গ্রামের বাসিন্দাদের বাড়িঘরে নাগর নদীর জল ঢুকে যাওয়ায় তাদের বিভিন্ন ফ্লাড সেন্টারে এনে রাখা হয়েছে। এদিকে রায়গঞ্জ শহর সংলগ্ন আবদুলঘাটা এলাকায় কুলিক নদীবাঁধের কিছুটা অংশ ভেঙে যাওয়ায় বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

দ্রুত কুলিক নদীবাঁধের ভাঙা অংশ মেরামতের উদ্যোগ নেয় রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতি। জেলা সেচ দফতরের মাধ্যমে মঙ্গলবার সকাল থেকেই কয়েকশো শ্রমিক দিয়ে দ্রুত বাঁধ মেরামতের কাজ শুরু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মানস ঘোষ।তিনি বলেন, কুলিক নদীর জল বেড়ে চলেছে সে কারণে এদিন বিকেলের মধ্যেই কুলিক নদীবাঁধের ভাঙা অংশ মেরামত করে ফেলা হবে। তবে তিনি এটাও জানান এদিন রায়গঞ্জ ব্লকের নতুন করে কোনও এলাকা প্লাবিত হয়নি।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: June 30, 2020, 5:57 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर