উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

১৮ দিন পর রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিথি অধ্যাপকদের আন্দোলন উঠল

১৮ দিন পর রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিথি অধ্যাপকদের আন্দোলন উঠল

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের দাবিকে গুরুত্ব দিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করায় ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত রাখলেন।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: ১৮ দিনের মাথায়  রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের  অতিথি অধ্যাপকদের আন্দোলন প্রত্যাহার  করে নিলেন আন্দোলনকারীরা। ৩০ জানুয়ারির মধ্যে রাজ্য সরকার তাদের দাবি মেনে না হলে আগামীতে তারা আবার বৃহত্তর আন্দোলনে সামিল হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দুর্লভ সরকার জানিয়েছেন, উচ্চ শিক্ষা দফতরের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।আগামী সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের নেতৃত্বের একদল প্রতিনিধি উচ্চশিক্ষা দফতরের উচ্চপদস্থ  আধিকারিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে অতিথি অধ্যাপকদের দাবি করবেন।

গত ২১ ডিসেম্বর থেকে রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৪ জন অতিথি অধ্যাপকদের "স্যাক্টের" আওতায় আনার দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের চত্বরে ধর্নায় বসে আন্দোলন শুরু করেছিলেন। শীতের মধ্যে  খোলা জায়গায় আন্দোলন চালায় ঠান্ডায় বেশ কয়েকজন আন্দোলনকারী অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। আন্দোলনকারীদের দাবিকে সমর্থন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে একাধিকবার উচ্চ শিক্ষা দফতরের কাছে দাবি জানানো হয়। রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মনে খুব শীঘ্রই অতিথি অধ্যাপকদের দাবিকে বিশেষ গুরুত্ব দেবে।  আগামী সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দল উচ্চ শিক্ষা দফতরের আধিকারিকের সঙ্গে বৈঠক করবেন বলে জানিয়েছেন রেজিস্ট্রার।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের দাবিকে গুরুত্ব দিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করায় ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত রাখলেন।৩০ জানুয়ারির মধ্যে তাদের দাবি কার্যকরি না হলে আগামীতে তারা আরো বৃহত্তর আন্দোলনে যাবার হুশিয়ারি দিয়েছেন। রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দুর্লভ সরকার জানিয়েছেন, গত ১৮ দিন যাবদ প্রচন্ড ঠান্ডায় অতিথি অধ্যাপকরা আন্দোলন করছেন।আন্দোলনকারিদের দাবিকে গুরুত্ব দিয়ে এজাধিকবার উচ্চশিক্ষা দফতরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। আগামীতেও তারা করবেন। দুর্লভবাবুর আশা খুব শীঘ্রই উচ্চ শিক্ষাদপ্তর আইন মেনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করবে। আন্দোলনকারী দেবপ্রিয়া ঘোষ জানান, বিশ্ববিদ্যালয় তরফ তাদের কাছে কিছু সময় চাওয়া হয়েছে।তাদের কাগজপত্র উচ্চশিক্ষা দপ্তরে পেশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।সেই কারনেই ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত তাদের আন্দোলন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন।আন্দোলনকারিদের সিদ্ধান্তে খুশি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিথি অধ্যাপকদের দাবিকে সমর্থন জানিয়ে তাদের সঙ্গে দেখা করেন ইটাহারের বিধায়ক অমল আচার্য এবং রায়গঞ্জের কংগ্রেস মোহিত সেনগুপ্ত। মোহিত সেনগুপ্ত জানিয়েছিলেন, অতিথি অধ্যাপকদের প্রতি অবিচার করা হয়েছে।বিষয়টি নিয়ে তিনি মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যপালের দ্বারস্থ হবেন।

Uttam Paul

Published by: Debalina Datta
First published: January 8, 2021, 4:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर