• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • করোনাকালে অনলাইনে পালিত হল গ্র‍্যান্ড প্যারেন্টস ডে! নাচ, গান আর হুল্লোড় ঘরে বসেই

করোনাকালে অনলাইনে পালিত হল গ্র‍্যান্ড প্যারেন্টস ডে! নাচ, গান আর হুল্লোড় ঘরে বসেই

খুশি দাদু-দিদা-ঠাকুমারাও ৷ বন্দি জীবনে আলাদা আনন্দের দিন সকলের কাছেই৷

খুশি দাদু-দিদা-ঠাকুমারাও ৷ বন্দি জীবনে আলাদা আনন্দের দিন সকলের কাছেই৷

খুশি দাদু-দিদা-ঠাকুমারাও ৷ বন্দি জীবনে আলাদা আনন্দের দিন সকলের কাছেই৷

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: আজ ছিল গ্র‍্যাণ্ড প্যারেন্টস ডে! অর্থাৎ কিনা ঠাকুরদা, ঠাকুমা দিবস! ফাদারস ডে, মাদারস ডে'র মতো একটি দিন। প্রতি বছর স্কুলের মধ্যেই নার্সারির খুদে পড়ুয়ারা জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিনটি পালন করে থাকে। নাচ, গান, হুল্লোড়ের মধ্য দিয়ে। অংশ নেয় স্কুলের শিক্ষিকারাও। করোনা এবং লকডাউনের জেরে সেই মার্চ থেকে স্কুল বন্ধ। কবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্বাভাবিক হবে তা এখোনো সরকারীভাবে সিদ্ধান্ত হয়নি। তাই অনলাইন ক্লাসই ভরসা ছাত্র, ছাত্রীদের কাছে। ক্লাস টেস্ট থেকে অন্য পরীক্ষাও হচ্ছে সেই অনলাইনে। কচিকাঁচারা বাড়িতেই বন্দি। বন্ধ প্রাইভেট টিউশনও। কার্যত ঘরে বন্দী দশায় হাঁফিয়ে উঠছে ওরাও! আর কত দিন ঘরে ভালো লাগে! সময় যে কাটছে না। দেখা নেই বন্ধুদের  সঙ্গে। হয় মোবাইল ফোন, নয় টিভির পর্দায় কার্টুনেই থাকতে হচ্ছে বন্দি।

সেই একঘেয়েমি কাটাতে শিলিগুড়ির একটি বেসরকারি ইংরেজী মাধ্যম স্কুল কর্তৃপক্ষ পড়ুয়াদের মনোরঞ্জনে যাতে কোনো খামতি না হয়, সেদিকে নজর রেখেছে। আর তাই আজ অনলাইনেই পালিত হল গ্র‍্যাণ্ড প্যারেন্টস ডে! স্কুলের প্রিন্সিপাল সন্দীপ ঘোষালের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। তারপর স্কুল শিক্ষিকারা মনোজ্ঞ নৃত্য পরিবেশন করেন। ঠাকুরদা আর ঠাকুমাদের জন্যে ক্যুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। অনলাইনেই জমে ওঠে অনুষ্ঠান। ঠাকুরদা, ঠাকুমার সঙ্গে খেলায় মেতে ওঠে পড়ুয়ারা। কখোনো ঠাকুমা গাইছে গান, তালে তাল মিলিয়ে  নাতনি নাচছে! সঙ্গে দেবী বন্দনা! স্কুলের ছাত্র, ছাত্রীরা নিজেরাই তৈরী করে গ্রিটিংস কার্ড। যাতে লেখা "হ্যাপি গ্র‍্যাণ্ড প্যারেন্টস ডে"! তারপর উপহার হিসেবে তা তুলে দেয় তাদের গ্র‍্যাণ্ড প্যারেন্টসদের হাতে। এর থেকে ভালো উপহার আর কিই বা হতে পারে, বলছিলেন এক ঠাকুরদা। স্কুলের প্রিন্সিপাল জানান, অনলাইন ক্লাসের পাশাপাশি এই ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন আদপে পড়ুয়াদের বিনোদনের জন্যে। এতে ওদের একঘেয়েমি যেমন কাটবে, তেমনি ঘরে বসেই স্কুলের মজা উপভোগ করতে পারবে।

Partha Sarkar

Published by:Debalina Datta
First published: