কঠিন লড়াই, এই প্রথম কোনও ভোটে চ্যালেঞ্জের মুখে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা

কঠিন লড়াই, এই প্রথম কোনও ভোটে চ্যালেঞ্জের মুখে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা

কঠিন লড়াই। এই প্রথম কোনও ভোটে চ্যালেঞ্জের মুখে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। পাহাড়ের ভোটে যা নজিরবিহীন।

  • Share this:

#দার্জিলিং: কঠিন লড়াই। এই প্রথম কোনও ভোটে চ্যালেঞ্জের মুখে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। পাহাড়ের ভোটে যা নজিরবিহীন। ত্রিমুখী লড়াই-য়ের মুখে ক্ষমতা ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ। বিপক্ষে তৃণমূল। জিএনএলএফ। হরকা বাহাদুরের জন আন্দোল পার্টি। তবু আত্মবিশ্বাসী মোর্চা সুপ্রিমো। বিমল গুরুং-এর সাফ কথা, রাজ্য যা দেবে পাহাড় তা নেবে। তবে ভোট দেবে মোর্চাকেই।

মুখ্যমন্ত্রীর বার বার পাহাড় সফর। উন্নয়ন পর্ষদ তৈরি করা। কিছুটা ব্যাকফুটেই মোর্চা প্রধান বিমল গুরুং। পুরভোটে কিছুটা চাপেই মোর্চা নেতা। পাহাড়ের চার পুরসভাতেই এবার প্রার্থী দিয়েছে তৃণমূল। জোটসঙ্গী জি এন এল এফ। সামিল জন আন্দোলন পার্টি। একাধিক আসনে লড়ছে নির্দলরা। ত্রিমুখী এই লড়াইয়ের মুখেও আত্মবিশ্বাসী গুরুং। সাড়ে চার বছরে কাজ করতে দেওয়া হয়নি জিটিএ-কে। প্রতি পদক্ষেপে হস্তক্ষেপ করেছে সরকার। চুক্তি অনুযায়ী এখনও বহু দফতর জিটিএ-র হাতে তুলে দেওয়া হয়নি। তাই আজও গোর্খাল্যান্ড-ই তাঁদের মূল লক্ষ। বলছেন মোর্চা প্রধান।

পানীয় জলের সমস্যা নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে। অথচ পাহাড়ের শিক্ষা ব্যবস্থার কোনও উন্নয়ন নেই। পাহাড়ের মানুষ সব বোঝেন। তাই সরকার যা দেবে তা নিলেও, ভোট দেবে মোর্চাকেই। দাবি বিমল গুরুং-এর।

কঠিন চ্যালেঞ্জ। জানেন। যদিও মুখে বলছেন, চাপ নেই। বিমল গুরুংয়ের দাবি, পাহাড়ের চার পুরসভাতেই জিতবেন তাঁরাই। তবে বিরোধীশূন্য যে হবে না তা তাঁর কথাতেই স্পষ্ট।

First published: 08:19:14 PM May 12, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर