দশমীর রাতে প্রকাশ্যে যুবতীর শ্লীলতাহানী, অভিযুক্ত তৃণমূল ছাত্রনেতাকে মারধর, তাণ্ডব কর্মীদের

দশমীর রাতে প্রকাশ্যে যুবতীর শ্লীলতাহানী, অভিযুক্ত তৃণমূল ছাত্রনেতাকে মারধর, তাণ্ডব কর্মীদের
  • Share this:

#রায়গঞ্জ: দশমীর রাতে প্রকাশ্যে যুবতীকে শ্লীলতাহানি করার ঘটনাকে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। ঘটনাটি রায়গঞ্জ থানার বকুলতলা এলাকায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতা দীপক মিশ্রকে পুলিশের মারধর এবং থানায় আটকে রাখার প্রতিবাদে তৃনমূল ছাত্রপরিষদ কর্মীরা রায়গঞ্জ থানায় ব্যাপক তান্ডব চালায় বলে অভিযোগ। শারিরিক ভাবে নিগৃহীত করা হয় তিন পুলিশ অফিসারকে। ভেঙ্গে ফেলা হয় থানার গেটের ফুলের টব। তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃনমূল ছাত্র পরিষদ। পুলিশের কাছে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের যুবতীর।

রায়গঞ্জ বকুলতলা সামনে দশমীর শোভাযাত্রা দেখতে বান্ধবীদের সঙ্গে যাচ্ছিলেন মৌমিতা দত্ত নামে এক যুবতী। পথে এক যুবক তাকে শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ। যুবতী অভিযুক্তকে পাল্টা থাপ্পর মেরে গন্তব্য স্থানে চলে আসেন। কিছুক্ষণ বাদে অভিযুক্ত যুবক একটি ক্লাবের প্রতিমা নিরঞ্জনের শোভাযাত্রা নিয়ে সেই পথ দিয়ে যাবার সময় দলবল নিয়ে সেই যুবতীর উপর হামলা করে বলে অভিযোগ। তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতা কর্মীরা তার প্রতিবাদ করলে তাদেরকেও বেধরক মারধর করে বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তৃনমূল ছাত্র পরিষদ নেতা দীপক মিশ্রকে মারধর করে থানায় নিয়ে আসে।

আরও পড়ুনফের মারাত্মক নৌকাডুবি! মহানন্দায় নৌকা উল্টে প্রাণ গেল ২জনের, নিঁখোজ বহু

 

পুলিশের পক্ষপাতিত্ব আচরণে দলীয় কর্মী সমর্থকরা থানায় চড়াও হয়। ভেঙ্গে ফেলা হয় ফুলের টব। রায়গঞ্জ থানার পুলিশ অফিসার সন্দীপ চক্রবর্তী,জুয়েল সরকার এবং রূপক শর্মা উত্তেজিতদের হাতে শারিরিকভাবে নিগৃহীত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ভাঙচুর, পুলিশি নিগৃহীত হবার ঘটনায় তাদের দলীয় কর্মীরা কেউ জড়িত নন বলে জানিয়েছেন তৃনমূল ছাত্রপরিষদের জেলা সভাপতি অনুপ কর।পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে না পারলে তারা বৃহত্তর আন্দোলনে যাবার হুমকি দিয়েছেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নিকিতা ফনিন এব্যাপারে কিছু জানাতে চাননি।

First published: 10:43:13 PM Oct 09, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर