corona virus btn
corona virus btn
Loading

ফের ৪ করোনা আক্রান্তের খোঁজ, জেলায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংখ্যা

ফের ৪ করোনা আক্রান্তের খোঁজ, জেলায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংখ্যা

জেলায় এক ধাক্কায় একাধিক আক্রান্তের সংখ্যা আগে ২-৩ জনে আটকে ছিল। ক্রমেই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

  • Share this:

#দার্জিলিং: ফের পাহাড়ে কোভিড পজিটিভের খোঁজ! দার্জিলিংয়ের সোনাদায় আক্রান্ত দুই। কার্শিয়ংয়ে আক্রান্ত দুই। এছাড়া সমতলেও নতুন করে তিন করোনা আক্রান্তের হদিস মিলেছে। সবমিলিয়ে একদিনে পাহাড় ও সমতল মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ালো ৭৷

জেলায় এক ধাক্কায় একাধিক আক্রান্তের সংখ্যা আগে ২-৩ জনে আটকে ছিল। ক্রমেই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। স্বাভাবিকভাবেই জেলা প্রশাসনের কর্তারা চিন্তিত। পরিযায়ী শ্রমিকেরা জেলায় ফিরতেই কি বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা? প্রাথমিকভাবে তেমনই মনে করছে প্রশাসন।

শুক্রবার সকালে একজন পজিটিভের খোঁজ মেলে খড়িবাড়িতে। এর আগে ওখানকার একজন আক্রান্ত হয়। তাঁর সংস্পর্ষে আসায় আরও একজন আক্রান্ত হলেন। পাহাড়ে ৪ জনের খোঁজ মিলেছে। এর মধ্যে তিন জন মহিলা। বাইরে থেকে ফিরে হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। লালা রসের নমুনা পাঠানো হয় উত্তরবঙ্গ মেডিকেলের ল্যাবে। এদিন চার জনেরই রিপোর্ট পজিটিভ আসে। বিকেলে আরও দুই জনের রিপোর্ট আসে। দু'জনেই ফিরেছিলেন দিল্লি থেকে। তাদের বাড়ি নকশালবাড়ি ব্লকে। ফিরে এসে ওঠেন হাতিঘিসার সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে। সোয়াবের নমুনা পাঠানো হয় মেডিকেলের ল্যাবে। রিপোর্ট পজিটিভ এসছে।

নতুন করে আক্রান্ত ৭ জনকেই ভর্তি করা হয়েছে মাটিগাড়ার কোভিড স্পেশাল হাসপাতালে। এনিয়ে জেলায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত ৯ জন। এর মধ্যে একজন ভর্তি উত্তরবঙ্গ মেডিকেলের সার্জিক্যাল আইশোলেশনে। পাহাড় দিয়ে করোনা আক্রান্তের শুরুটা হয়েছিল উত্তরবঙ্গে। কালিম্পংয়ের আক্রান্ত মহিলার মৃত্যুও হয়েছে। তাঁর সংস্পর্ষে আসা পরিবারের আরো ১০ জনের রিপোর্টও পজিটিভ আসে। পরবর্তিতে মেডিকেলের দুই নার্সও আক্রান্ত হন। এক নার্সের পরিবারও আক্রান্ত হয়। আপাতত সুস্থ হয়ে তারা বাড়িতে। শুধু শিলিগুড়ি বা পাহাড় নয়, গোটা উত্তরবঙ্গেই হু হু করে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। পরিযায়ীরা ঘরে ফেরার পরই ছবিটা বদলাচ্ছে। আজও প্রায় সাড়ে ৩০০ পরিযায়ী শ্রমিক দিল্লি থেকে ফিরেছে পাহাড়ের দার্জিলিং এবং কালিম্পং জেলার বিভিন্ন প্রান্তে।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: May 29, 2020, 9:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर