বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও এখনও প্লাবিত মালদহ ও দুই দিনাজপুর

বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও এখনও প্লাবিত মালদহ ও দুই দিনাজপুর

জলপাইগুড়ি- আলিপুরদুয়ার- কোচবিহার। ৩ জেলার প্লাবন পরিস্থিতির উন্নতি হলেও প্লাবিত মালদহ ও দুই দিনাজপুর।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: জলপাইগুড়ি- আলিপুরদুয়ার- কোচবিহার। ৩ জেলার প্লাবন পরিস্থিতির উন্নতি হলেও প্লাবিত মালদহ ও দুই দিনাজপুর। নতুন করে বৃষ্টি না হওয়ায় জল কমছে তিস্তা-তোর্সা-করলা নদীর। নদীগুলির জল নেমে জল বেড়েছে মহানন্দা-ফুলহার-কুলিক-আত্রেয়ী ও টাঙন নদীর। তার জেরেই প্লাবিত ওই তিন জেলা। তিন জেলায় জলবন্দি বহু মানুষ।

নতুন করে বৃষ্টি নেই। তাই কিছুটা হলেও দুর্যোগ কেটেছে উত্তরের তিন জেলায়। জলপাইগুড়ি-আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহারে প্লাবন পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। জল কমছে নদীগুলির।

তিস্তা, তোর্সা,করলার জল কমছে। জলঞাতা গিলান্ডি ডুডুয়ায় জল কমেছে। ধূপগুড়ি-সহ উন্নতি।

কিন্তু জল বাড়ছে দুই দিনাজপুরে। উত্তর দিনাজপুরে বিহার সংলগ্ন কিষাণগঞ্জ, আলুয়াবাড়ি, ডালখোলায় জল বেড়েছে মেচি নদী। লক্ষাধিক মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত। জলবন্দি। রায়গঞ্জের শিলিগুড়ি মোড় ও করদিঘির বিলাসপুরের ৩৪ নং জাতীয় সড়কের উপরদিয়ে জল বইছে। যান চলাচল বিঘ্নিত। নাগর ও কুলিক, মহানন্দা নদীর জল বেড়েছে। তিস্তার জল মহানন্দায়, নাগর ও কুলিকে যায় এরপর। ইচাহারে এরপর মহানন্দা। মেচি নদীর জলে প্লাবিত কিষাণগঞ্জ স্টেশন।

দক্ষিণ দিজানপুরে আত্রেয়ী, টাঙ্গন, পুনর্ভবা নদীর জল বেড়েছে।

লক্ষাঝিক মানুষ জলবন্দি। বালুরঘাটের পঁচিশটি ওয়ার্ডই প্লাবিত। বংশীহারি ব্লকের কানুর এলাকায় বাঁধ ভেঙেছে টাঙন নদীর।

মালদহের ফুলহার নদীতে চরম সতর্কতা জারি। হরিষ্চন্দ্রপুর, ইসনাপুর, দৌলতনগরে এলাকায় প্লাবন।

রাতভর বৃষ্ঠি না হওয়ায় প্লাবন পরিস্থিতির উন্নতি। জল নামছে তিস্তা-করলা-সহ বিভিন্ন নদীর। গিলান্ডি, ডুডুয়া, জলঢাকা কমেছে।

তোর্সা, বীরকিটি নদীর জলস্তর কমেছে। জম কমছে বারোঘড়িয়া, ফালাকাটার চরতোর্সা নদীর সেতু ভেঙে আলিপুরদুয়ার েথকে ফালাকাটা সংযোগকারী সেতু। কাঠের সেতু ভেঙে গিয়েছে জলের তোড়ে। নৌকা দিয়ে যাতাযায়ত। আলিপুরদুয়ারের বেশ কয়েকটি ওয়ার্ড জলমগ্ন।

কোচবিহারে বৃষ্টি না হওয়ায় বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি। জেলার তোর্সা , মানসাই, রায়ডাক, গদাধীর জল কমলেও এখনও বহু বাড়ি জলের তলায়।

জল বাড়ছে সব নদীতে মালদহে। ফুলাহার নদীতে চরম সতর্কতা। মহানন্দা ও গঙ্গা নদীতে বাড়ছে। হরিশ্চন্দ্রপুরের ধোবল বাঁধ ভেঙে যায় জলের তোড়ে। জল ঢুকে প্লাবিত হরিশষ্চন্দ্রুকরের ২ নং ব্লকের মালিওয়ার , সুলতাননগর এলাকায়। হরিশ্চন্দ্রপুরের মিঞাহাট, খোপাকাঠি, কাওয়াডোল, উত্তর ও দক্ষিণ ভাকুরিয়া এলাকা প্লাবিত। সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে গ্রামবাসীদের।

বিহারে ভারী বৃষ্টির জেরে গঙ্গা। ফুলহার কেন্দ্রিক। মহানন্দা নদীর জল বাড়ায় পুরাতন মালদহ ও ইংরেজবাজার নদী তীরবর্কী এলাকা জলমগ্ন।

First published: 03:11:59 PM Aug 14, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर