Home /News /north-bengal /
রায়গঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন, অভিযুক্ত টিএমসি

রায়গঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন, অভিযুক্ত টিএমসি

যদিও স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা কমলাবাড়ি গ্রামপঞ্চায়েতের প্রধান প্রশান্ত দাস জানিয়েছেন, ‘‘বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনার সাথে তৃণমূলের কোনও হাত নেই।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ : বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃনমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। রায়গঞ্জ বিধানসভার কমলাবাড়ি গ্রামপঞ্চায়েতের  পিরোজপুরের এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ও উত্তেজনা ছড়িয়েছে। বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্বের অভিযোগ, ক্রমাগত হুমকি দিচ্ছিল তৃণমূল কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার রাতে বিজেপির এখানকার নির্বাচনী কার্যালয় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় তৃণমূল কংগ্রেস।  দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের দাবিতে পিরোজপুর এলাকায় পথ অবরোধ করে বিক্ষোভে শামিল হয়েছেন বিজেপির নেতা কর্মীরা। ঘটনাস্থলে ছুটে আসে কর্ণজোড়া পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশবাহিনী।  যদিও এই ঘটনার সাথে তৃণমূলের কোনও হাত নেই বলে দাবি করে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব৷ তাদের দাবিবিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দের কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে।

পয়লা বৈশাখের দিন রাতে রায়গঞ্জ বিধানসভার অন্তর্গত কমলাবাড়ি গ্রামপঞ্চায়েতের পিরোজপুর এলাকায় বিজেপির একটি নির্বাচনী কার্যালয় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় দুষ্কৃতীরা।  এই ঘটনার অভিযোগের তির উঠেছে তৃণমূল কংগ্রেসের দিকে। স্থানীয় বিজেপির মন্ডল সভাপতি গনেশ চন্দ্র বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, বেশ কিছুদিন ধরেই আমাদের দলের কর্মীদের মোবাইলে কখনও সরাসরি হুমকি দিয়ে আসছিল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। তিনি বলেন,  ‘‘গতকাল রাতে তৃনমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা আমাদের এলাকার বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।  এই ঘটনার সাথে যুক্ত তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের দাবিতে আমরা এলাকায় পথ অবরোধ করেছি। যতক্ষন না দুষ্কৃতীদের গ্রেফতার করা হবে ততক্ষন এই অবরোধ চলবে। প্রয়োজনে আমরা রাজ্য সড়ক এবং রায়গঞ্জ শহরের শিলিগুড়ি মোড়ে জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভে শামিল হব। ’’

যদিও স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা কমলাবাড়ি গ্রামপঞ্চায়েতের প্রধান প্রশান্ত দাস জানিয়েছেন, ‘‘বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনার সাথে তৃণমূলের কোনও হাত নেই।  এটা বিজেপির গোষ্ঠীকোন্দলের বহিঃপ্রকাশ।’’ তিনি এও বলেন, ‘‘সম্প্রতি বিজেপির জেলা সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ীকে অপসারিত করার কারণেই বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকট হয়েছে। এই ঘটনা তারই প্রতিফলন। পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কর্ণজোড়া পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ। দলীয় কার্যালয়ে পুড়িয়ে দেবার প্রতিবাদে এবং দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিজেপি কর্মীরা রায়গঞ্জ বালুরঘাট রাস্তা বোগ্রাম মোড় অবরোধ করে।পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছায়। পিরোজপুরে পৌছায় রায়গঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী কৃষ্ণ কল্যানী।তার অভিযোগ বেশ কিছুদিন ধরেই বিজেপি ফ্ল্যাগ ফেস্টুন ছিড়ে দিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। আজ পিরোজপুরে নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দিল। প্রশাসনের প্রতি তাদের আস্থা আছে।প্রশাসন দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের আশ্বাস দিয়েছে। তবে পুলিশ জানিয়েছে এই ঘটনায় কোন অভিযোগ জমা পরেনি।

 Uttam Paul

Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: BJP, TMC, West Bengal Assembly Election 2021

পরবর্তী খবর