উত্তরবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

তিন দফা দাবিতে ১২ থেকে ১৪ অক্টোবর রাজ্যে টানা ৭২ ঘণ্টা ট্রাক ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি ! 

তিন দফা দাবিতে ১২ থেকে ১৪ অক্টোবর রাজ্যে টানা ৭২ ঘণ্টা ট্রাক ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি ! 
Representational Image

সংগঠনের দাবি, ওভারলোডিং বন্ধ করতেই হবে। পাশাপাশি ট্রাকের ওপর প্রশাসনিক হয়রানি এবং জুলুমবাজি বন্ধ করতে হবে।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: তিন দফা দাবিতে ১২ থেকে ১৪ অক্টোবর রাজ্যব্যাপী টানা ৭২ ঘণ্টা ট্রাক ধর্মঘটের ডাক দেওয়ার হুঁশিয়ারি ফেডারেশন অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রাক অপারেটার্স অ্যাসোসিয়েশনের। রাজ্যে অতিরিক্ত এক্সেল লোড চালু করতে হবে এবং ওভারলোডিং বন্ধ করতে হবে। অন্য রাজ্যে এক্সেল লোড চালু করা হয়েছে। কিন্তু কেন্দ্রের মোটর ভেহিক্যালস মন্ত্রকের নির্দেশের পরও তা চালু করা হয়নি এই রাজ্যে।

সেইসঙ্গে সংগঠনের দাবি, ওভারলোডিং বন্ধ করতেই হবে। পাশাপাশি ট্রাকের ওপর প্রশাসনিক হয়রানি এবং জুলুমবাজি বন্ধ করতে হবে। বিভিন্ন সময়ে রাজ্যে কখনও পুলিশ, কখনও বা মোটর ভেহিক্যালস দফতরের কর্মীদের জুলুমবাজি অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। সেইসঙ্গে সংগঠনের দাবি, করোনাকালে রোড ট্যাক্স, পারমিট এবং ফিটনেসের ক্ষেত্রেও ছাড় দিতে হবে। আজ, বুধবার শিলিগুড়িতে সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করে একথা জানান সংগঠনের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র বোস। রাজ্যজুড়ে টানা ৭২ ঘণ্টা ট্রাক ধর্মঘটের দিনে ভিন রাজ্যের ট্রাকও আটকে দেওয়া হবে রাজ্যের বিভিন্ন সীমান্তে। অন্ধ্রপ্রদেশ, দিল্লি, বিহার এবং বেঙ্গালুরু থেকে মাছ, ডিম সহ ওষুধ সামগ্রী বোঝাই লরি ঢুকতে দেওয়া হবে না। সেইসঙ্গে এদিন সংগঠনের হুঁশিয়ারি, রাজ্য দাবি না মেটালে পুজোর পর সাড়ে ৬ লাখ ট্রাক অবরুদ্ধ করা হবে।

লাগাতার ট্রাক ধর্মঘট চলবে। তাই তাদের দাবি, অবিলম্বে মুখ্যমন্ত্রীকে আলোচনায় বসতে হবে। কেননা কঠিন সময়ের মধ্যে রয়েছে ট্রাকের সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত কয়েক লাখ মানুষ। ভিন রাজ্যের ট্রাকের থেকেও অতিরিক্ত কর আদায় করা হচ্ছে। যার জেরে দাম চড়ছে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর। এদিন সংগঠনের সভায় রাজ্যের ওপর চাপ বাড়াতে একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পুজোর পর লাগাতার ট্রাক ধর্মঘটের পথে যাওয়ার হুঁশিয়ারি তো রয়েছেই, পাশাপাশি ভিন রাজ্যের লরিও ঢুকতে বাধা দেওয়া হবে। এর জেরে রাজ্যে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর সঙ্কট সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

Partha Pratim Sarkar

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: October 7, 2020, 10:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर