Assembly election 2021: 'বিজেপিকে জেতালে কী হয়, ত্রিপুরাকে দেখে শিখুন!' করজোড়ে আর্জি মানিকের

Assembly election 2021: 'বিজেপিকে জেতালে কী হয়, ত্রিপুরাকে দেখে শিখুন!' করজোড়ে আর্জি মানিকের

মানিকের আর্জি

রাজ্যবাসীর উদ্দেশে তাঁর আর্জি, 'ত্রিপুরা থেকে শিক্ষা নিন। বিজেপিকে পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়তে দেবেন না।'

  • Share this:

    #আলিপুরদুয়ার: ভোটের মুখে বারবার রাজ্যে এসে বামকর্মীদের ভোকাল টনিক দিয়ে যাচ্ছেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার (Manik Sarkar)। একইসঙ্গে বিজেপিকে ভোট দিলে কী হয়, তা বাংলার মানুষকে ত্রিপুরার থেকে শিক্ষা নিতেও বারবার অনুরোধ করছেন তিনি। বাজেট থেকে কৃষিআইন প্রায় সব ইস্যু নিয়েই কেন্দ্রের মোদি সরকারকে তোপ দাগেন ডাকসাইটে এই সিপিএম নেতা। রাজ্যবাসীর উদ্দেশে তাঁর আর্জি, 'ত্রিপুরা থেকে শিক্ষা নিন। বিজেপিকে পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়তে দেবেন না। (Manis Sarkar Warns bengal for BJP)'

    সোমবার আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটায় সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী ক্ষিতিশ রায়ের সমর্থনে জনসভায় যোগ দেন মানিক সরকার (Tripura Cm)। সেখানেই তিনি রাজ্যের মানুষের উদ্দেশে বলেন, 'পরিবর্তনের হাওয়া বইছে বাংলায়। সেই হাওয়ায় গা মিলিয়ে যদি বিজেপিকে ভোট দেন তাহলেই কিন্তু সর্বনাশ। বিজেপিকে ভোট দিলে কী হয়, ত্রিপুরার(Tripura) মানুষ এখন হাড়ে-হাড়ে তা টের পাচ্ছেন।' একইসঙ্গে বিজেপির 'সোনার বাংলা' প্রতিশ্রুতিকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তিনি। বলেন, 'ত্রিপুরায় ক্ষমতায় আসার আগে সোনার ত্রিপুরার স্বপ্ন দেখাত এরা, আর ক্ষমতায় এসে শিক্ষক রাস্তায় ফেলে মারে।'

    লকডাউনের স্মৃতি উসকেও ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'সব বুঝেও মানুষকে বিপদে ফেলেছিল বিজেপি সরকার। গোটা দেশে ৪৯ থেকে ৫২ কোটি পরিযায়ী শ্রমিক আছে। কোটি কোটি মানুষ অসহায় হয়ে পড়েছিল। শত শত মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। আটকে পড়া মানুষজন লকডাউনের সময় হেঁটে হেঁটে বাড়ি ফিরেছেন। কিন্তু বিজেপি সরকার তাদের কথা ভাবেনি। চিন্তাও করে নি। দেশে গরিবের সংখ্যা বাড়ছে। বেকারের সংখ্যা বাড়ছে। আর দেশে কয়েকটি পরিবার মুনাফা লুটছে। এর জন্য দায়ী আরএসএস আর বিজেপি সরকার।'

    শুধু তাই নয়, যে বিজেপি বাংলাতে চাকরির অভাবনীয় প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে, তাঁরা আসলে কী করতে চায়, সেই বিষয়টি উসকে মানিক সরকার আরও বলেন, 'বাংলার মতোই এক টানা বাম সরকার ছিল ত্রিপুরায়। সেখানে এখন সরকার চালাচ্ছে বিজেপি সরকার। ত্রিপুরায় গরিব মানুষের থেকে ট্যাক্স আদায় করতে দিচ্ছিল না সিপিএম সরকার। তাই তাঁকে সরাতে হবে। সেই জন্য ভোটের আগে থেকে ভিন রাজ্যের নেতা মন্ত্রীরা প্লেনে করে ত্রিপুরায় গিয়েছিলেন। সবাইকে চাকরি দেওয়া হবে, ঘরে ঘরে চাকরি দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করেছিল বিজেপি। চলো পাল্টাই স্লোগান দিয়েছিল। আরও ভালো ত্রিপুরা তৈরির কথা বলেছিল। কিন্তু এখন কী হাল ত্রিপুরায়! অনেক মিটিং হল কাজের কাজ কিছুই হয় নি। এখন প্রতিশ্রুতি ভুলে গেছে। একশো দিনের কাজ নেই। গরিব মানুষ কাজ পাচ্ছে না। এখন ত্রিপুরায় একশো দিনের জায়গায় মাত্র ৪০ থেকে ৪৫ দিন কাজ হচ্ছে।' তাই বাংলার মানুষকে এ নিয়ে সতর্ক থাকার আবেদন করেন তিনি।

    Published by:Suman Biswas
    First published: