• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • EROSION ISSUE OF GANGA WILL BE A MAJOR POINT FOR VOTE BY THE POLITICAL PARTIES IN MALDAH DD

বিধানসভা ভোটের লক্ষ্যে ভাঙন ক্ষতিগ্রস্থদের নিয়ে মালদহে রাজনৈতিক তৎপরতা তুঙ্গে

ভাঙন ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারকে দুষে ময়দানে কংগ্রেস ও তৃনমূল দুই দল।

ভাঙন ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারকে দুষে ময়দানে কংগ্রেস ও তৃনমূল দুই দল।

  • Share this:

#মালদহ: গঙ্গা নদীর ভাঙনে গত কয়েকদিন ধরেই বিপর্যস্ত মালদহের বৈষ্ণবনগরের চিনা বাজার এলাকা। ইতিমধ্যেই গঙ্গা গর্ভে চলে গিয়েছে প্রায় ২৫০ টি বাড়ি, প্রচুর জমি ও গাছপালা। আগামী বিধানসভা ভোটের আগে ভাঙন ক্ষতিগ্রস্থদের নিয়ে জোর রাজনৈতিক তৎপরতা মালদহে। ভাঙন ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারকে দুষে ময়দানে কংগ্রেস ও তৃনমূল দুই দল।

শনিবার ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় গিয়ে ত্রান বিলির পাশাপাশি পুর্নবাসনের আশ্বাস দিলেন রাজ্যসভার সাংসদ তথা তৃনমূল জেলা সভাপতি মৌসম বেনজির নুর। অন্যদিকে এদিনই ক্ষতিগ্রস্থ পুর্নবাসনের দাবিতে  সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরীর নেতৃত্বে জেলাশাসকের দ্বারস্থ হল কংগ্রেস।   মালদহের চিনা বাজারে যে এলাকায় ভয়াবহ ভাঙন হয়েছে তা রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্বে রয়েছে ফরাক্কা ব্যারেজ কর্তৃপক্ষ। তাই এই ইস্যুতে বিজেপি তথা কেন্দ্রীয়  সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমন শানিয়ে রাজনৈতিক জমি দখলে মরিয়া কংগ্রেস ও তৃনমূল। শনিবার বীরনগরের চিনা বাজারে দলীয় ত্রান সামগ্রী নিয়ে পৌছন তৃনমূল জেলা সভাপতি ও রাজ্যসভার সাংসদ মৌসম বেনজির নুর। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলিকে এদিন তৃনমূলের তরফে চালের বস্তা,ত্রিপল,তেল সহ অন্যান্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। একইসঙ্গে বীরনগরের ভাঙনের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে সরব হন মৌসম। তাঁর অভিযোগ, এলাকার বিজেপি বিধায়কের বাড়ি বাঁচাতে ভাঙন রোধের কাজ করছে ব্যারেজ কর্তৃপক্ষ। কিন্তু সাধারন লোকালয় বাঁচানোর জন্য কোনো কাজই হচ্ছে না। এদিকে ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্থদের পূর্নবাসনের দাবি তুলে সাংসদ ডালুবাবুর নেতৃত্বে কংগ্রেসের একটি প্রতিনিধি দল এদিন মালদহের জেলাশাসক রাজষি মিত্রের দ্বারস্থ হয়। কংগ্রেসের তরফে ক্ষতিগ্রস্থদের পূর্নবাসনের জন্য বেশ কয়েকটি বিকল্প সরকারি জমির প্রস্তাব দেওয়া হয়। পাশাপাশি ভাঙন ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারের ভূমিকা নিয়ে সরব হয় কংগ্রেস নেতৃত্ব।

Sebak DebSarma

Published by:Debalina Datta
First published: