ফিরল তিনবছর আগের স্মৃতি, পাহাড়ে ফের কালো পতাকা, গো ব্যাক স্লোগান দিলীপ ঘোষকে

ফিরল তিনবছর আগের স্মৃতি, পাহাড়ে ফের কালো পতাকা, গো ব্যাক স্লোগান দিলীপ ঘোষকে
পাহাড়ে ঢোকার মুখে বিক্ষোভের মুখে দিলীপ ঘোষের গাড়ি।

পুলিশের সামনেই চলে কালো পতাকা দেখিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন। পরে দার্জিলিং স্টেশনেও একইভাবে বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হয়।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ফের দার্জিলিংয়ে বিক্ষোভের মুখে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে দার্জিলিংয়ে ঢোকার মুখে ঘুম স্টেশনে দিলীপ ঘোষকে কালো পতাকা দেখিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে বিমলপন্থী মোর্চার কর্মী, সমর্থকেরা। সঙ্গে চললো গো ব্যাক স্লোগানও! পুলিশের সামনেই চলে কালো পতাকা দেখিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন। পরে দার্জিলিং স্টেশনেও একইভাবে বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হয়।

এর আগে ২০১৭-তে গোলমালের পর পাহাড়ে শহিদ পরিবারের লোকেদের সঙ্গে দেখা করতে এসে বিক্ষোভের মুখে পড়েছিলেন তিনি। তাঁর ওপর হামলা চালানো হয় বলেও অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। সেই সময় অভিযোগের আঙুল ওঠে বিনয়পন্থী মোর্চার দিকে। এবারে অভিযোগ গুরুংয়ের দিকে।

দিলীপ ঘোষের প্রতিক্রিয়া, "কিছু লোক আছে তাদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে এই ধরনের কাজ করে। এতে কিছু যায় আসে না। গোটা পাহাড় আজ বিজেপির সাথেই আছে।"এদিকে আজই কালিম্পং থেকে বিজেপির পরিবর্তন যাত্রার রথ পৌঁছয় শৈলশহরে। পৌঁছনের পথে একাধীক জায়গায় বিমলপন্থী মোর্চার কর্মী, সমর্থকদের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়। মোর্চা নেতাদের অভিযোগ, ভোটের মুখেই পাহাড়বাসীর কথা মনে পড়ে বিজেপির।


২০০৯ সাল থেকে বিজেপিকে সমর্থন জানিয়ে আসছে পাহাড়। তিন তিন জন সাংসদ উপহার দিয়েছে পাহাড়। ২০১৯-এর বিধানসভার উপ নির্বাচনেও বিজেপি সমর্থিত জিএনএলএফ প্রার্থীকে জিতিয়েছিল গুরুং। কিন্তু বিজেপি পরিবর্তে পাহাড়বাসীর কোনো আশাই পূরণ করেনি। একাধীকবার পাহাড়ের স্থায়ী রাজনৈতিক সমাধান করা হবে এবং ১১ জনজাতি গোষ্ঠীর তফসিলি উপজাতির স্বীকৃতি দেওয়া হবে বললেও আজ পর্যন্ত বাস্তবায়িত হয়নি। তাই এই কর্মসূচি। অন্য দিকে পাহাড়ের বিজেপি এবং জিএনএলএফ নেতারা এর তীব্র ভাষায় কটাক্ষ করেছেন। গুরুংকে আক্রমণ করতে ছাড়েননি দার্জিলিংয়ের বিধায়ক নীরজ জিম্বা। এ দিনের সভায় যোগ দিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, পাহাড়বাসীর দীর্ঘদিনের দাবি বিজেপি সহানুভূতির সঙ্গে বিবেচনা করবে। পরিবর্তন শুরু হবে পাহাড় থেকেই। অর্জুন সিং বলেন, যার বিরুদ্ধে একাধীক মামলা রুজু করেছিল রাজ্য, আজ সেই নেতার সঙ্গেই জোট গড়েছে তৃণমূল। গুরুংয়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন সদ্য মোর্চা ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া নেতারাও।

-পার্থ সরকার

Published by:Arka Deb
First published: