Home /News /north-bengal /
North Bengal News: রাজনৈতিক সভার জন্য প্যান্ডেল খাটিয়ে খেলার মাঠ নষ্ট! বড়সড় সিদ্ধান্ত খেলোয়াড়দের

North Bengal News: রাজনৈতিক সভার জন্য প্যান্ডেল খাটিয়ে খেলার মাঠ নষ্ট! বড়সড় সিদ্ধান্ত খেলোয়াড়দের

North Bengal News: যে মাঠে অমিত শাহের সভার অনুমতি দেওয়া হয়নি, সেখানে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা!

  • Share this:

#জলপাইগুড়ি:  খেলার মাঠ নষ্ট করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা। সেই সভার জন্য মাঠে প্যান্ডল খাটানো হয়েছিল। এবার খেলার মাঠ নষ্টের জন্য আন্দোলনে খেলোয়াড়রা এবং বিজেপি। মাঠে সভা না করার জন্য স্মারকলিপি দেওয়া হল পৌরসভাতে।

সোমবার খেলার মাঠে প্যান্ডেল করার বিরোধিতা করে ধূপগুড়ি পুরসভার চেয়ারপার্সনকে স্মারকলিপি দিতে যান ধূপগুড়ি ফুটবল ক্লাবের সদস্যরা। দীর্ঘক্ষণ তাঁরা অফিসে অপেক্ষা করেন। তবে পৌরসভায় উপস্থিত ছিলেন না পুরসভার চেয়ারপার্সন এবং ভাইস চেয়ারম্যান। যার ফলে তাদের হাতে স্মারকলিপি না দিতে পেরে অফিসে ডকেট করে চলে যেতে বাধ্য হন তাঁরা।

আরও পড়ুন- আমের জেলায় সফল আনারস চাষ! বিপুল লাভের হাতছানি

মঙ্গলবার ফের পুরসভার চেয়ারপার্সন এবং ভাইস চেয়ারম্যানের সঙ্গে দেখা করে তাঁদের দাবি জানাবেন বলে ঠিক করেন ফুটবল ক্লাবের সম্পাদক অজিত দে।

এদিকে একই দাবিতে এদিন বিজেপির চার কাউন্সিলর খেলার মাঠে সভা করার অনুমতি দেওয়ার এবং সভার বিরোধিতা করে স্মারকলিপি দিতে যান পুরসভার চেয়ারপার্সনকে। কিন্তু অফিসে চেয়ারপার্সন এবং ভাইস চেয়ারম্যান না থাকায় তাঁদেরকেও অফিস কর্মচারীর হাতে সেই স্মারকলিপি জমা দিয়ে ডকেট করে রিসিভ করে নিয়ে যেতে হয়।

বিজেপির তরফে হুমকি দেওয়া হয়েছে, খেলার মাঠ নষ্ট করার প্রতিবাদে এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সভা করার অনুমতি দেওয়ার বিরোধিতায় লাগাতার আন্দোলন করা হবে। তাই মঙ্গলবার ধূপগুড়ি শহরে বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দিয়েছে বিজেপি।

স্বাভাবিকভাবে শহরের একমাত্র খেলার মাঠ নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় শহরজুড়ে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। ক্ষোভে ফুঁসছেন ক্রীড়াপ্রেমী থেকে সাধারণ মানুষ। যার ফলে কোমর বেঁধে আন্দোলনে নেমেছেন বিরোধীরা।

আরও পড়ুন - হঠাৎ করেই প্রবলভাবে করোনার থাবা, উত্তরের এই জেলা এখন আতঙ্কে কাঁপছে

উল্লেখ্য এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং সিপিএমের মহাম্মদ সেলিমের সভা করার ক্ষেত্রে অনুমতি দেয়নি পুরসভা। কারণ পৌরসভা গঠনের পর সর্বদলীয়ভাবে সিদ্ধান্ত হয়েছিল, বোর্ড অফ কাউন্সিলের মিটিংয়ে যে  কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি করার জন্য খেলার মাঠ দেওয়া হবে না। খেলার মাঠ শুধু খেলার জন্য ব্যাবহার করা হবে।

শাসক দলের সভা করার জন্য খেলার মাঠ পৌরসভার তরফে দেওয়ায় রাজনৈতিক তর্জা শুরু হয়েছে ধূপগুড়িতে। বিজেপি কাউন্সিলর কৃষ্ণদেব রায় বলেন,  "এর আগেই বোর্ড মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছিল, কোনও রাজনৈতিক দলের জন্য মাঠ দেওয়া হবে না। রাজনৈতিক সভা করার জন্য  পৌরসভা দিয়েছে খেলার মাঠ। ফলে নষ্ট হবে মাঠ। তাই স্মারকলিপি দিলাম। পরবর্তীতে বৃহত্তর আন্দোলনে যাওয়া হবে।"

রকি চৌধূরী

Published by:Suman Majumder
First published:

Tags: Dhupguri, Jalpaiguri

পরবর্তী খবর