ধূপগুড়িতে দেহদানের অঙ্গিকার করলেন এক দম্পতি

এবার ধূপগুড়ি দেহদানের অঙ্গিকার করলেন এক দম্পতি । একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে ধূপগুড়িতে অনুষ্ঠিত হল

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Apr 09, 2017 05:14 PM IST
ধূপগুড়িতে দেহদানের অঙ্গিকার করলেন এক দম্পতি
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Apr 09, 2017 05:14 PM IST

#জলপাইগুড়ি: এবার ধূপগুড়ি দেহদানের অঙ্গিকার করলেন এক দম্পতি । একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে ধূপগুড়িতে অনুষ্ঠিত হল স্বেচ্ছা রক্তদান শিবিরে মরনোত্তর দেহদানের অঙ্গীকার করলেন দম্পতি । রবিবার ধূপগুড়ি মিলপাড়ায় এই শিবিরের উদ্বোধন করেন পদ্মশ্রী করিমূল হক। ডুয়ার্সে মরনোত্তর দেহদানের শপথ গ্রহণের জন্য এই ধরণের শিবির এই প্রথম বলেই দাবী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির।

ধূপগুড়ি মিলপাড়া এলাকার দম্পতি, মনোরঞ্জন বর্মা ও জ্যোৎস্না বর্মা । মনোরঞ্জন বর্মা পেশায় প্রাক্তন এস এস বি জাওয়ান এবং জ্যোৎস্না দেবি গৃহ বধূ । এই শিবিরে মরোনত্তর দেহ দানের অঙ্গীকার পত্রে স্বাক্ষরের মধ্যে দিয়ে মৃত্যুর পর চিকিৎসা বিজ্ঞানের উন্নতিতে নিজেদের দেহ দান করেন। মৃত্যুর পর তাদের দেহ উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়। ব্লাড ডোনার অর্গানাইজেশন নামে এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাধ্যমে এই দেহদানের কাজটি রূপায়িত হবে বলে জানানো হয়েছে। দেহদান প্রসঙ্গে এই দম্পতি বলেন, মৃত্যুর পরে এমনিতেও দেহগুলি পুড়িয়ে ফেলাই হবে। তার চাইতে যদি আমাদের দেহ চিকিৎসা বিজ্ঞানের উন্নতিতে কাজে লাগে কিমবা কোন মানুষের অঙ্গ প্রতিস্থাপনে কাজে লাগে তবে তা হবে এই সমাজকে কিছু ফিরিয়ে দেওয়া। তারা আহ্বান জানান এই সমাজ ও ভাবী প্রজন্মের জন্য আমাদের সকলেরই এই অঙ্গীকার গ্রহণ করা উচিৎ।

শিবিরের উদ্বোধক পদ্মশ্রী করিমূল হক বলেন, দেশের চোখে আমি “পদ্মশ্রী” হলেও আসল পদ্মশ্রী হলেন এরা যারা মৃত্যুর পরেও এই দেশ ও সমাজকে সমৃদ্ধ করে যাবার কাজ করে চলেছেন।

First published: 05:14:21 PM Apr 09, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर