লকডাউন পরিস্থিতি দেখতে মালদহের ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত পরিদর্শনে ডিজি

লকডাউন পরিস্থিতি দেখতে মালদহের ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত পরিদর্শনে ডিজি
সীমান্ত এলাকাগুলি দেখার পর এদিন সন্ধ্যায় মালদা শহরে ফিরে সার্কিট হাউসে পুলিশ ও প্রশাসনের পদস্থ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন ডিজি।

সীমান্ত এলাকাগুলি দেখার পর এদিন সন্ধ্যায় মালদা শহরে ফিরে সার্কিট হাউসে পুলিশ ও প্রশাসনের পদস্থ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন ডিজি।

  • Share this:

    #মালদহ:  লকডাউন পরিস্থিতিতে মালদহের ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র। তাঁর সঙ্গে ছিলেন রাজ্যের নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুরজিৎ কর পুরকায়স্থ। মালদহের পরিস্থিতি ভালো বলে এদিন সীমান্ত এলাকায ঘুরে দেখার পর বলেন ডিজি। বিএসএফ কর্তাদের সঙ্গেও বৈঠক করেন তিনি ।গতকাল আলিপুরদুয়ারের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ডিজি বলেন, কুড়ি জন পুলিশ কর্মী জখম। তাঁদের মধ্যে আটজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। একজন ভর্তি রয়েছেন উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে। লকডাউন পরিস্থিতিতে পুলিশের সঙ্গে সহযোগিতা করার জন্য এদিন আবেদন জানান রাজ্য পুলিশের ডিজি।

    এদিন দুপুরে মুর্শিদাবাদ হয়ে মালদহে আসেন রাজ্য পুলিশের এই শীর্ষ কর্তা। প্রথমেই তিনি পৌঁছে যান মহদীপুর আন্তর্জাতিক সীমান্তে। সেখানে বিএসএফ কর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। মহদীপুর সীমান্ত দিয়ে যাতে কোনোভাবেই অনুপ্রবেশ ঘটতে না পারে এজন্য সীমান্তবর্তী পুলিশ খানা গুলিকে সতর্ক করেন ডিজি। মালদহের সীমান্ত দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যের বিষয়ে খোঁজখবর নেন তিনি। ডিজি এবং নিরাপত্তা উপদেষ্টার পাশাপাশি মহাদিপুর গান উত্তরবঙ্গের আইজি এবং একাধিক ডিআইজি ও মালদহের পুলিশ সুপার।

    সীমান্ত এলাকাগুলি দেখার পর এদিন সন্ধ্যায় মালদা শহরে ফিরে সার্কিট হাউসে পুলিশ ও প্রশাসনের পদস্থ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন ডিজি। সেখানেও লকডাউন এর আগামী দিনগুলিতে পুলিশ ও প্রশাসনকে সজাগ থেকে করনা মোকাবিলায় সজাগ থেকে দায়িত্ব পালন করার নির্দেশ দেন।সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এদিন বলেন, মালদহের পরিস্থিতি ভালোই। সীমান্তের পরিস্থিতি সরেজমিনে খতিয়ে দেখার জন্যই তিনি এসেছেন বলেও জানান। একইসঙ্গে ডিজি আবেদন জানিয়ে বলেন, লকডাউন পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের উচিত হবে পুলিশকে আরও বেশি করে সহযোগিতা করা।


    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published:

    লেটেস্ট খবর