• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • DARJEELING TOY TRAIN READY TO RESUME SERVICE WAITING FOR GOVENMENTS GREEN SIGNAL SDG

লোকাল ট্রেনের পর এবার পাহাড়ে টয়ট্রেন চালুর উদ্যোগ, সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় দার্জিলিং-হিমালয়ান রেল কর্তৃপক্ষ

টয়ট্রেন চালানোর প্রক্রিয়া শুরু করতে উদ্যোগী দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এখন অপেক্ষা রাজ্যের সবুজ সংকেতের।

টয়ট্রেন চালানোর প্রক্রিয়া শুরু করতে উদ্যোগী দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এখন অপেক্ষা রাজ্যের সবুজ সংকেতের।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: কলকাতায় চালু হচ্ছে লোকাল ট্রেন। দূরপাল্লার ট্রেন চলাচলের সংখ্যাও অনেকটাই বেড়েছে। তাহলে কেনই বা বাইরে থাকবে পাহাড়ী খেলনা গাডি? টয়ট্রেন চালানোর প্রক্রিয়া শুরু করতে উদ্যোগী দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এখন অপেক্ষা রাজ্যের সবুজ সংকেতের। তাহলে ফের পাহাড়ী আকাবাঁকা পথ বেয়ে আকাশে কালো ধোঁয়া ছড়িয়ে ছুটবে কু ঝিক ঝিক করে খেলনা গাড়ি।

তবে আপাতত এনজেপি থেকে দার্জিলিং পর্যন্ত ট্রেন পরিষেবা চালু করা সম্ভব নয়। কেননা ধসের জেরে দুর্বল ট্র‍্যাক। ইতিমধ্যেই লাইন সংস্কার করার পর ট্রায়াল রানও হয়েছে। এখোনো সবুজ সংকেত দেয়নি রেলের ইঞ্জিনিয়র বিভাগ। তবে পাহাড়ে জয় রাইড চালাতে উদ্যোগী রেল। আজ টয়ট্রেন পরিষেবা পরিদর্শনে এসে একথাই জানান উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের জেনারেল ম্যানেজার সঞ্জীব রায়। সুকনা থেকে তিনধরিয়া পর্যন্ত টয়ট্রেনেই যান জেনারেল ম্যানেজার, কাটিহারের ডি আর এম সহ পদস্থ রেল কর্তারা।

জেনারেল ম্যানেজার জানান, ইতিমধ্যেই দার্জিলিংয়ের জেলাশাসকের সঙ্গে কথা বলেছেন ডি এইচ আরের ডিরেক্টর। রাজ্য ট্রেন চালানোর অনুমতি দিলেই জয় রাইড চালু করা হবে। নিউ নর্মালে ধীরে ধীরে সংখ্যায় কম হলেও পর্যটকেরা আসছেন শৈলশহরে। আর টয়ট্রেন পর্যটকদের কাছে আকর্ষনের অন্যতম কেন্দ্রবিন্দু। যদিও এটা রেলের কাছে চ্যালেঞ্জের। কেননা টয়ট্রেনের কামরার পরিসর অনেকটাই ছোটো। সেখানে পারস্পরিক দূরত্ব বিধি মেনে চলা চ্যালেঞ্জের। আর তাই ৩০ শতাংশ যাত্রী নিয়েই ট্রেন চালাতে আগ্রহী রেল। অপেক্ষা রাজ্যের সবুজ সংকেতের। তাহলেই ফের দার্জিলিং থেকে বাতাসিয়া লুপ হয়ে ঘুম স্টেশন পর্যন্ত জয় রাইড অনায়াসেই চলতে পারে।

লকডাউনের জেরে সেই মার্চ থেকে বন্ধ এই পরিষেবা। দীর্ঘ এই সময়ে ইঞ্জিন থেকে কোচ, ট্র‍্যাক থেকে স্টেশন প্রতিনিয়ত সংস্কার করা হয়েছে। অপেক্ষার প্রহর গুনছে পর্যটক থেকে পাহাড়ের বাসিন্দারা। স্টেশনগুলো খাঁ খাঁ করছে। আনলকে রোদ ঝলমলে আবহাওয়ায় কাঞ্চন দর্শনের পাশাপাশি টয়ট্রেন সাফারি! পর্যটকদের তর যেন আর সইছে না!

Partha Sarkar

Published by:Shubhagata Dey
First published: