শিলিগুড়ি আজ মিনি ব্রিগেড ! লাল ঝান্ডায় ঢাকল শহর! সঙ্গে 'টুম্পা সোনা' গানে নাচ !

শিলিগুড়ি আজ মিনি ব্রিগেড ! লাল ঝান্ডায় ঢাকল শহর! সঙ্গে 'টুম্পা সোনা' গানে নাচ !

আসন্ন একুশের লড়াইয়ের আগে আজকের মহামিছিল প্রমাণ করলো জনসমর্থন হারায়নি বামেরা, বলছে রাজনৈতিক মহল।

আসন্ন একুশের লড়াইয়ের আগে আজকের মহামিছিল প্রমাণ করলো জনসমর্থন হারায়নি বামেরা, বলছে রাজনৈতিক মহল।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ি শহরের রঙ আজ ছিল লাল! দুপুরের পর থেকে গোটা হিলকার্ট রোড কার্যত চলে যায় লালেদের দখলে। যেদিকেই চোখ যায় শুধুই লাল আর লাল! সঙ্গে কালো মাথা! রবিবারের ব্রিগেডের জনসভার আগে আজ শিলিগুড়ি কার্যত পরিণত হয় মিনি ব্রিগেডে! মহানন্দা সেতু থেকে বাঘাযতীন পার্ক পর্যন্ত বামেদের মিছিল জুড়ে ছিল শুধুই লাল ঝান্ডা!

রাজ্যের একমাত্র শহর যেখানে এখনও ক্ষমতায় বামেরা। পুরসভা, মহকুমা পরিষদ থেকে বিধায়ক এলাকা সবেতেই দাপট বামেদের। আসন্ন একুশের লড়াইয়ের আগে আজকের মহামিছিল প্রমাণ করলো জনসমর্থন হারায়নি বামেরা, বলছে রাজনৈতিক মহল। তৃণমূল এবং বিজেপিকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দেওয়ার জন্যে আজকের মহামিছিল যথেষ্ট। নিজেদের শক্তিও ঝালিয়ে নিলেন তাঁরা। যার নেতৃত্বে ছিলেন পুর প্রশাসক তথা বাম বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য। মিছিলে রাজ্য এবং কেন্দ্রের বিরুদ্ধে স্লোগান তো ছিলই, সঙ্গে বাড়তি পাওনা হিসেবে আগাগোড়া বাজলো "ব্রিগেড নিয়ে টুম্পা সোনা গান"! দুটো চোঙে বাজলো বামেদের তৈরি টুম্পা সোনা নিয়ে প্যারোডি। আর তার তালেই নাচলেন বাম সমর্থকেরা। একটা আলাদা উন্মাদনা লক্ষ্য করা গেল।

এই গান ইতিমধতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। যা নিয়ে বামেরাও দ্বিধা বিভক্ত। তবু "টুম্পাকে নিয়ে ব্রিগেড যাব" গানে গা ভাসালো বাম ছাত্র, যুবরা। সঙ্গে আবার ছিল তাসা ব্যান্ড পার্টিও। মিছিল শেষে এক সুরে তৃণমূল, বিজেপিকে আক্রমণ করলেন অশোক ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, দুই দলই এক। আর্থিক দুর্নীতিতে অভিযুক্ত। এদের বিকল্প হিসেবে চাই বাম-কংগ্রেস জোটের সরকার। তাহলেই রাজ্যে হাল ফিরবে। আর টুম্পা সোনা গান প্রসঙ্গে তাঁর মন্তব্য, এই গানের মধ্য দিয়ে যদি ভিড় বাড়ে, কর্মীরা অনুপ্রাণিত হয়, ভালো তো। এটা একটা প্যারোডি। কয়েক কোটি মানুষ গানটি শুনেছেন। তৃণমূল এবং বিজেপির বিরুদ্ধে আমাদের স্লোগানই গানের মধ্য দিয়ে তুলে ধরা হয়েছে। এদিন তিনি বিরোধীদের কটাক্ষ করে বলেন, বামেদের নাকি দূরবীন দিয়ে দেখতে হয়, আজ দেখা গেল কি!

Partha Sarkar
Published by:Piya Banerjee
First published:

লেটেস্ট খবর