'দমবন্ধ হয়ে আসছিল'! সিপিআইএম ছেড়ে বিজেপিতে গিয়ে তৃণমূলী সুর শঙ্কর ঘোষের

'দমবন্ধ হয়ে আসছিল'! সিপিআইএম ছেড়ে বিজেপিতে গিয়ে তৃণমূলী সুর শঙ্কর ঘোষের

CPIM Leader Shankar Ghosh joins BJP

জল্পনার অবসান! গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলেন দাপুটে বাম যুব নেতা শঙ্কর ঘোষ। বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীর হাত থেকে তুলে নিলেন গেরুয়া ঝাণ্ডা।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: জল্পনার অবসান! গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলেন দাপুটে বাম যুব নেতা শঙ্কর ঘোষ। বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীর হাত থেকে তুলে নিলেন গেরুয়া ঝাণ্ডা। দীর্ঘ ৩০ বছরের একটা রাজনৈতিক সম্পর্কে ইতি টানলেন শঙ্কর  দল পরিবর্তন করেই ক্ষোভ উগরে দেন সিপিএমের বিরুদ্ধে। "দলে দমবন্ধ হয়ে আসছিল। কোনও মন্তব্যকে গুরুত্ব দেওয়া হত না। দমিয়ে রাখা হত।" বললেন শঙ্কর।

নাম না করে কটাক্ষ করেন প্রবীণ নেতা অশোক ভট্টাচার্যেরও। তাঁর কথায় একজন জিতে আসছেন, টিকিট পেয়ে চলেছেন। আর একজন হেরে চলেছেন। তবুও টিকিট পাচ্ছেন। এক্ষেত্রে তিনি আক্রমণ করেন ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি কেন্দ্রের বাম প্রার্থী দিলীপ সিংকে। তাই সিপিআইএম ছেড়েছেন। বললেন শঙ্কর। তিনি কাজ করতে চান। সেজন্য প্ল্যাটফর্ম প্রয়োজন ছিল। তাই বিজেপিতে যোগ দিলেন সিপিএমের জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর একদা সদস্য শঙ্কর।

১৯৯১ সালে শঙ্করের রাজনীতিতে আত্মপ্রকাশ। এসএফআই-এর হাত ধরে ছাত্র রাজনীতিতে প্রবেশ। পরবর্তীতে এসএফআই এবং ডিওয়াইএফআই-এর জেলা সম্পাদক হন। ছাত্র এবং যুব সংগঠনের রাজ্য কমিটিতেও ছিলেন। পরে জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য করা হয়। ২০১৫ সালে পুরসভা নির্বাচনে টিকিট পান শঙ্কর ঘ। ২৪ নং ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে পুরসভার স্বাস্থ্য সহ কয়েকটি দফতরের মেয়র পারিষদ সদস্য করা হয় তাঁকে। পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্যও ছিলেন। বাম ঘরানায় বেড়ে ওঠা শঙ্করের দল ছাড়ার কারণই হল পরিচালনা নিয়ে ক্ষোভ।

শঙ্করকে দলের অনেক কাজে লাগবে। খুব ভালো রাজনৈতিক ছেলে। বলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। শঙ্করের প্রশংসা করেন সাংসদ রাজু বিস্তাও।একুশের নির্বাচনে কি প্রার্থী হচ্ছেন শঙ্কর ? সেই দিকেই তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল। আর যদি হয় তবে কোন কেন্দ্র থেকে তাঁকে দাঁড় করাবে গেরুয়া শিবির? সূত্রের খবর শঙ্কর চাইছে শিলিগুড়ি কেন্দ্র। অশোক ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে লড়তে চান একদা তাঁর ছায়াসঙ্গী শঙ্কর। সেক্ষেত্রে কঠিন লড়াইয়ের মুখে পড়তে হবে অশোক ভট্টাচার্যকে? এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। যদিও গুরুত্ব দিতে নারাজ সিপিএম। অশোক ভট্টাচার্য বলেন, "শঙ্কর চ্যাপ্টার ক্লোজড। দল থেকে ওকে বহিষ্কার করা হয়েছে। ও এই ধরনের সিদ্ধান্ত নেবে আগে বোঝা উচিৎ ছিল। বুঝতে না পারাটা ভুল হয়েছে। ওর সম্পর্কে যত কম কথা বলা যাবে, ততই ভাল৷" অন্য একটি সূত্রের খবর, ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হতে পারেন শঙ্কর। সেক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হতে পারে দু'দুবারের জয়ী প্রার্থী গৌতম দেবকে। যদিও তা মানতে নারাজ তৃণমূল শিবির।

(পার্থ সরকার)

Published by:Subhapam Saha
First published: