corona virus btn
corona virus btn
Loading

দার্জিলিংয়ের ত্রিবেনীতে চালু হল ১৫০ বেডের কোভিড স্পেশাল হাসপাতাল

দার্জিলিংয়ের ত্রিবেনীতে চালু হল ১৫০ বেডের কোভিড স্পেশাল হাসপাতাল

দার্জিলিংয়ের লামাহাটার কাছে ত্রিবেনীতে সোমবার উদ্বোধন হল নয়া কোভিড হাসপাতালের।

  • Share this:

#দার্জিলিং: এবারে পাহাড়েও আলাদা কোভিড স্পেশাল হাসপাতাল চালু হল। দার্জিলিংয়ের লামাহাটার কাছে ত্রিবেনীতে সোমবার উদ্বোধন হল নয়া কোভিড হাসপাতালের। ত্রিবেনী ট্যুরিস্ট লজকেও রূপান্তরিত করা হল কোভিড হাসপাতালে। বিল্ডিং ছিলই। আরও পরিকাঠামোর উন্নয়ন করে স্বাস্থ্য কেন্দ্র হিসেবে তৈরি করা হল আপাতত ১৫০ বেডের এই হাসপাতাল। এখানে কোভিডের উপস্বর্গ নিয়েও রোগীরা ভর্তি হতে পারবেন। তাদের জন্য একেবারে পৃথক ব্যবস্থা থাকছে একই বিল্ডিংয়ে। পাশেই থাকছে কোভিড পজিটিভ রোগীদের চিকিৎসার ব্যবস্থা। অর্থাৎ একই বিল্ডিংয়ে দু'ধরনের চিকিৎসা করানো হবে। দার্জিলিং, কার্শিয়ং, মিরিক এবং কালিম্পংয়ের আক্রান্তদের আর নীচে শিলিগুড়িতে নামিয়ে আনা হবে না।

এতে অনেকটাই চাপ মুক্ত হল শিলিগুড়ির দুই কোভিড হাসপাতাল। পরিকাঠামো আগেই দেখে গিয়েছিলেন করোনার চিকিৎসায় উত্তরবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য কর্তা সুশান্ত রায়। তিনি স্বাস্থ্য ভবনে প্রস্তাব পাঠান। সেইমতো রাজ্য সবুজ সংকেত দিতেই কাজ শুরু হয়ে যায়। এদিন এর উদ্বোধন করেন জিটিএ'-র চেয়ারম্যান অনীত থাপা। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যসভার তৃণমূল সাংসদ শান্তা ছেত্রীও। অনীত থাপা জানান, এখন থেকে পাহাড়ের দুই জেলার আক্রান্তদের এখানেই চিকিৎসা করানো হবে। চিকিৎসক থেকে নার্স, স্বাস্থ্য কর্মী সবাই এসেছে। প্রয়োজনীয় করোনা প্রতিরোধক কিটও এসছে। পিপিই, মাস্ক, ক্যাপ সহ প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সামগ্রী পাঠিয়েছে স্বাস্থ্য ভবন। সেইমতো আজ থেকে পরিষেবা চালু করা হয়েছে। প্রথমে ১০০ বেড করা হয়েছিল। পরবর্তীতে আরও ৫০ বেড বাড়ানো হয়েছে। পাহাড়ে আরও দুটি কোভিড হাসপাতাল তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। একটি কালিম্পংয়ের গরুবাথানে। অন্যটি দার্জিলিংয়ের জামবুনিতে। পরিকাঠামো প্রায় তৈরি। কিন্তু প্রয়োজনীয় চিকিৎসক, নার্স সহ স্বাস্থ্য কর্মী পেলে এই দুই হাসপাতালও চালু করা হবে আগামী দিনে। রাজ্যসভার সাংসদ শান্তা ছেত্রী জানান, পাহাড়ের জন্য এই ধরনের হাসপাতাল খুবই জরুরী ছিল। রাজ্য দ্রুত এগিয়ে আসায় তা সম্ভব হল। আর পাহাড়ে চালু হওয়ায় আর সমতলে নামিয়ে আনা হবে না আক্রান্তদের।
Published by: Akash Misra
First published: June 22, 2020, 8:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर