• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • করোনা মোকাবিলায় Covid 19 ওয়ার্ড চালু উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে

করোনা মোকাবিলায় Covid 19 ওয়ার্ড চালু উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে

ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্যে তিনটে পৃথক ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে।

ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্যে তিনটে পৃথক ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে।

ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্যে তিনটে পৃথক ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে।

  • Share this:

করোনার জাল ছড়াচ্ছে দেশজুড়ে। আক্রান্তের সংখ্যা দেড় হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। সতর্কতা হিসেবে একাধিক পদক্ষেপ প্রতিনিয়ত নিয়ে চলেছে রাজ্য ও কেন্দ্র। রাজ্যেও আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। মোকাবিলায় তৈরি রাজ্য ও কেন্দ্র। বার বার করে রাজ্য ও কেন্দ্র বলছে লকডাউন মেনে চলুন। তবু অনেক জেলাতেই এক শ্রেণির মানুষ তা না মেনে দিব্বি রাস্তায় বের হচ্ছেন। তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি উঠেছে।

করোনা মোকাবিলায় তৈরি উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। ইতিমধ্যেই করোনা পরীক্ষার ল্যাবরেটরি চালু হয়েছে মেডিকেলে। উত্তরবঙ্গের অন্য জেলা থেকেও করোনা পরীক্ষার সোয়াবের নমুনা আসবে এই মেডিক্যাল কলেজে। ফলে ক্রমেই বাড়বে চাপ। মেডিক্যালের পরিকাঠামোর মান উন্নয়নে জোর দিয়েছে রাজ্য।

ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্যে তিনটে পৃথক ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে। একটি হল আইশোলেশন ওয়ার্ড। সেখানে সরাসরি রোগীদের ভর্তি করানো হবে। এমনকী অন্য জেলা থেকে রেফারে আসা রোগীদেরও এই ওয়ার্ডে প্রথমে ভর্তি করানো হবে। ট্রমা কেয়ার ইউনিটে আরো দুটি ওয়ার্ড করা হয়েছে।

একটিতে কোভিড সন্দেহে রোগীদের ভর্তি করা হবে। অন্যটিতে কোভিড আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা চলবে। মেডিকেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছন রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। তিনি জানান, সবরকম প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

মেডিক্যালে পিপিই কিট এসে পৌঁছেছে। N95 মাস্ক, হ্যাণ্ড গ্লাভস সহ অন্য স্বাস্থ্য সরঞ্জাম এসে পৌঁছেছে। শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালেও আইশোলেশন ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে। আলাদাভাবে জ্বরে আক্রান্তদের জন্য ওয়ার্ডও চালু করা হয়েছে। এদিকে করোনা মোকাবিলায় শিলিগুড়িতে দুটি বেসরকারি হাসপাতালে কোভিড সেন্টার খোলা হবে। একটি মাটিগাড়ায়। অন্যটি ফুলবাড়িতে। তার পরিকাঠামো খতিয়ে দেখে রিপোর্ট দেবেন জেলাশাসক। তারপরই ওই দুটি বেসরকারী হাসপাতালে কোভিড আক্রান্তদের চিকিৎসা শুরু হবে।

Published by:Arindam Gupta
First published: