corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনার দাপট, শিলিগুড়ির ৩ টি ওয়ার্ডে বহিরাগতদের ঢুকতে নিষেধ ! এলাকা পরিদর্শনে পুর কমিশনার

করোনার দাপট, শিলিগুড়ির ৩ টি ওয়ার্ডে বহিরাগতদের ঢুকতে নিষেধ ! এলাকা পরিদর্শনে পুর কমিশনার

করোনার দাপট অব্যাহত। সংক্রমণ যাতে দ্রুত ছড়িয়ে না পড়ে, সজাগ ও সতর্ক স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে প্রশাসন।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: করোনার দাপট অব্যাহত। সংক্রমণ যাতে দ্রুত ছড়িয়ে না পড়ে, সজাগ ও সতর্ক স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে প্রশাসন। ইতিমধ্যেই শিলিগুড়ির তিনটি ওয়ার্ডকে কনটাইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে রয়েছে ৪০, ৪১ এবং ৪৭ নং ওয়ার্ড। এই তিন ওয়ার্ডে বহিরাগতদের প্রবেশে "না" নির্দেশিকা জারি করেছে প্রশাসন। বাঁশের ব্যারিক্যাড দিয়ে গেট আটকে দেওয়া হয়েছে। এলাকা পরিদর্শন করেছেন শিলিগুড়ির পুলিশ কমিশনার ত্রিপুরারাই অথর্ব। আজ ৪১ নং ওয়ার্ড পরিদর্শনে যান পুরসভার কমিশনার সোনম ওয়াংদি ভুটিয়া। বাজার বা অন্য কোনো জরুরী কাজ শেষে ওয়ার্ডে প্রবেশ করলে জীবানুনাষক স্প্রে করা হচ্ছে প্রতিটি বাইককে। নতুন করে যেন আর কেউ করোনা আক্রান্ত না হয়, সেদিকেই নজর। স্প্রে মেশিন নিয়ে পুরসভার সাফাই কর্মীরা থাকবে। একটি গেট খোলা রয়েছে। জরুরী কাজের জন্যে একটি গেট খোলা থাকছে। ৪০ ও ৪৭ নং ওয়ার্ডও ঘর বন্দী। প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে নয়। প্রত্যেকটি গেটে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এই দুই ওয়ার্ডেও প্রয়োজনীয় কাজে বাইরে যাওয়ার জন্যে একটি করে গেট খোলা থাকছে। পাশাপাশি শহরের একাধীক ওয়ার্ডও জীবানুমুক্ত করতে উদ্যোগী স্থানীয় প্রশাসন। এদিন রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবের উদ্যোগে ১৭ নং ওয়ার্ড স্যানিটাইজড করা হয়। একইভাবে মেয়র অশোক ভট্টাচার্য দাঁড়িয়ে ৬ নং ওয়ার্ডের একাংশ স্যানিটাইজড করা হয়। বাড়ি থেকে রাস্তা, গোডাউন থেকে নর্দমা সবই জীবানুমুক্ত করা হয়। এর আগেও একাধীক ওয়ার্ড, বাজার জীবানুমুক্ত করা হয়। লাগাতার এই প্রক্রিয়া চলবে বলে জানিয়েছেন শিলিগুড়ির মেয়র। অতিরিক্ত সাফাই কর্মী নিয়োগ করেছে পুরসভা। তবে ৪০, ৪১ এবং ৪৭ নং ওয়ার্ডে বাড়তি নজরদারী রাখা হচ্ছে। প্রতিটি ঘরের বাসিন্দাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। জ্বর, সর্দি, কাশির উপস্বর্গ রয়েছে কী না তার সমীক্ষার কাজ শুরু করেছে পুরসভার স্বাস্থ্য কর্মীরা।

First published: April 23, 2020, 6:52 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर