Home /News /north-bengal /
মাস্ক পরা নিয়ে বিভ্রান্তি, অনেকেই মাস্ক ছাড়াই ঘুরছেন জনবহুল এলাকায়

মাস্ক পরা নিয়ে বিভ্রান্তি, অনেকেই মাস্ক ছাড়াই ঘুরছেন জনবহুল এলাকায়

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে নতুন করে গাইডলাইন প্রকাশ করল কেরল সরকার৷ এক বছরের জন্য এই গাইডলাইনগুলি বাধ্যতামূলক করা হয়েছে৷ Eprdemic Disease Act সংশোধন করে এই গাইডলাইনগুলি এক বছরের জন্য কার্যকর করা হয়েছে৷

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে নতুন করে গাইডলাইন প্রকাশ করল কেরল সরকার৷ এক বছরের জন্য এই গাইডলাইনগুলি বাধ্যতামূলক করা হয়েছে৷ Eprdemic Disease Act সংশোধন করে এই গাইডলাইনগুলি এক বছরের জন্য কার্যকর করা হয়েছে৷

সবমিলিয়ে লকডাউনে কার্যতঃ করোনা সতর্কতা এড়াচ্ছেন অনেকেই।

  • Share this:

#মালদহঃ-মাস্ক পড়া নিয়ে বিভ্রান্তি মালদহে। রাস্তা ঘাটে কেউ মাস্ক পড়ে ঘুরছেন, আবার অনেকেরই মুখে মাস্ক নেই। অনেকে আবার মুখে মাস্ক ছাড়াই সামাজিক দুরত্ব ভেঙে দৈনিক বাজার, রেশন, ব্যাঙ্ক সহ বিভিন্ন ভিড়ের জায়গায় ঘুরছেন। সবমিলিয়ে লকডাউনে কার্যতঃ করোনা সতর্কতা এড়াচ্ছেন অনেকেই।

করোনা পরিস্থিতিতে মুখে মাস্ক লাগিয়ে বাইরে বের হওয়া উচিত, নাকি সুস্থ মানুষ মাস্ক ছাড়াই বাইরে বের হতে পারবেন। এনিয়ে সাধারণ মানুষের ধারণা স্পষ্ট নয়। এরই ছবি ধরা পড়ছে মালদহের বিভিন্ন জনবহুল এলাকা গুলিতে। লকডাউনের শুরুতে মাস্কের যোগান নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়েছিল মালদহে। পরিস্থিতি সামাল দিতে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের সাহায্যে মাস্ক তৈরির উদ্যোগ নেয় প্রশাসন। এরপর গত কয়েকদিনে মালদহের বাজারে মাস্কের যোগান অনেকটাই বেড়েছে। তবে এখন মাস্ক সহজে মিললেও সচেতনতার অভাবে অনেকে এগুলির ব্যবহার না করে রাস্তায় বেড়িয়ে পড়ছেন। যদিও চিকিৎসকদের একাংশের মতে সুস্থ মানুষের জন্য সাধারন মাস্ক, সর্দি-কাশির লক্ষ্মণ থাকলে সার্জিকাল মাস্ক এবং করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় যুক্তদের এন ৯৫ মাস্ক প্রয়োজন। মালদহের মাস্ক বিক্রেতারা জানিয়েছেন, প্রথম কয়েকদিন মালদহে ব্যাপক পরিমান মাস্ক বিক্রি হয়েছিল। এখন মাস্ক বিক্রির পরিমাণ অনেকটাই কমেছে। তবে সম্প্রতি স্বাস্থ্য দপ্তর সকলকেই মাক্স পড়ার কথা বলায় ফের মালদহের মাস্ক বাজার চাঙ্গা হওয়ার আশায় ব্যবসায়ীরা।

Sebak Deb Sharma

Published by:Elina Datta
First published:

Tags: Corona, Corona outbreak, Corona state lock down, Coronavirus, Covid A, Mask

পরবর্তী খবর