corona virus btn
corona virus btn
Loading

Corona Lockdown: পাহাড়েও নিয়ম ভাঙার খেলা অব্যাহত, কড়া হাতে পরিস্থিতি দমন পুলিশের

Corona Lockdown: পাহাড়েও নিয়ম ভাঙার খেলা অব্যাহত, কড়া হাতে পরিস্থিতি দমন পুলিশের

রাস্তাতেই ক্রেতাদের থার্মাল চেকিংও করা হচ্ছে।

  • Share this:

#দার্জিলিং: করোনার প্রভাব ক্রমেই বেড়ে চলেছে রাজ্যে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে কোভিড ১৯ পজিটিভ রোগীর সন্ধান মিলেছে। করোনা মোকাবিলায় লকডাউন চলছে। লকডাউন মেনে চলতে হবে, ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। না মানলে কড়া দাওয়াই। পুলিশকেও আরও কড়া হওয়ার নির্দেশ রাজ্যের। ইতিমধ্যেই রাজ্যে হটস্পট জেলার নাম ঘোষণা করেছে রাজ্য। সেইসঙ্গে একাধীক ক্লাস্টার জেলার নামও ঘোষণা করা হয়েছে। এই ক্লাস্টারের তালিকায় রয়েছে দার্জিলিং জেলাও।

শৈলশহরেও লকডাউনকে তোয়াক্কা না করে অনেকেই বাইরে বেড়োচ্ছেন। এবার কড়া হাতে তা দমন করতে নেমেছে পুলিশ ও প্রশাসনের কর্তারা। আজ দার্জিলিংয়ের সবজি বাজারে সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে কি না তা খতিয়ে দেখতে রাস্তায় নামেন প্রশাসনিক কর্তারা। এবং এক এক করে দোকানে পাঠানো হয় ক্রেতাদের। এখন থেকে এই প্রক্রিয়ায় পাহাড়ে বাজার খোলা থাকবে। বাজারে ঢোকার আগে হ্যাণ্ড স্যানিটাইজেশন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। রাস্তাতেই ক্রেতাদের থার্মাল চেকিংও করা হচ্ছে। বিনা কাজেই ঘুরতে বেড়োচ্ছেন অনেকেই। এর আগে ২০১৭ সালে পৃথক রাজ্যের দাবীতে টানা ১০৪ দিন বনধে সামিল হয়েছিল পাহাড়বাসী। লকডাউনকে যেন ওই বনধের সঙ্গে গুলিয়ে ফেলছেন পাহাড়বাসী।

পুলিশ আজ কঠোরভাবেই পদক্ষেপ নিয়েছে। শহরে প্রবেশের মুখে দু'জায়গায় নাকা তল্লাশি চালায় পুলিশ। সেই তল্লাশি চলাকালীন পুলিশ দেখতে পায় বহু গাড়ি বিনা কারণে বাড়ির বাইরে নেমেছে। পুলিশ ৩০টি গাড়ি বাজেয়াপ্ত করেছে। একইভাবে বাজারেও চলে পুলিশি তল্লাশি। বিনা মাস্ক বা ফেস কভারে বাইরে বেড়ানোয় এক মহিলাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এছাড়া বিনা কারণে বাজারে বেড়াতে আসার অপরাধে আরো ২৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে দার্জিলিং সদর থানার পুলিশ। সদর থানার আই সি তীর্থ সারথী সরকার জানান, লাগাতার এই তল্লাশি চলবে। লকডাউন মানতেই হবে। নইলে ডিজাস্টার আইন এবং ভারতীয় দন্ডবিধির ১৮৮ ধারায় মামলা রুজু হবে। কাউকেই ছাড়া হবে না। এরপরও কি নিয়ম ভাঙার খেলায় মেতে উঠবে পাহাড়বাসী? আর এই খেলায় নেমে নিজেদের বিপদ যে ডেকে আনছেন, তা কবে বুঝবে পাহাড়বাসী?

Partha Pratim Sarkar

First published: April 17, 2020, 7:17 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर