কোচবিহারের রাজপ্রাসাদের দিঘীতে ভেসে উঠল কচ্ছপের দেহ

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 19, 2019 05:00 PM IST
কোচবিহারের রাজপ্রাসাদের দিঘীতে ভেসে উঠল কচ্ছপের দেহ
Representational Image
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 19, 2019 05:00 PM IST

#কোচবিহার: রাজপ্রাসাদের দিঘীতে ভেসে উঠল কচ্ছপের দেহ ৷ পচা দুর্গন্ধ থেকে সন্দেহ হওয়ায় রাজপ্রাসাদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কর্মীরা সকাল থেকে খোঁজ শুরু করেন ৷ পরে দেখা যায় দিঘীর কোনে ভাসছে কচ্ছপের মৃতদেহ৷ এরপর বন দফতরের কর্মীরা আসেন রাজপ্রাসাদ চত্বরে। কচ্ছপটিকে উদ্ধার করা হয়েছে ৷ বনদফতর সূত্রে খবর, মৃত কচ্ছপটির বয়স প্রায় ২০ বছর।

কোচবিহারের একাধিক জলাশয়ে কচ্ছপ বাস করে সেব্যাপারে বন দফতর নিশ্চিত হয়েছিল বহুবছর আগেই ৷ কোচবিহার ২ ব্লকের বানেশ্বরের শিবদিঘীতে সবচেয়ে বেশি কচ্ছপ দেখা যায় প্রাচীন কাল থেকে। শিবদিঘী তো বটেই, বানেশ্বর গ্রামের জলাশয়ে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায় কচ্ছপদের৷ কোচবিহারের এই কচ্ছপদের মোহন নামে ডাকেন ও দেবতা রুপে পুজো করা হয় ৷ শুধু বানেশ্বর নয়স কোচবিহার রাজপ্রাসাদের দিঘী-সহ রাজার শহরের সুপ্রাচীন জলাশয়ে কচ্ছপের অস্তিত্বের প্রমান বহুবার পেয়েছে বনদফতর ৷ বানেশ্বরের কচ্ছপ মোহনদের মৃত্যুর পরে শিবদিঘী ঘিরে সতর্ক হয়েছিল মন্দির পরিচালনার দায়িত্বে থাকা দেবত্র ট্রাস্ট বোর্ড। তবে বানেশ্বর ছাড়া বাকি দিঘীগুলিতে কচ্ছপ বাঁচানোর কোনও চেষ্টাই করেনি বন দফতর। যার জেরে কখনও প্রকাশ্যে আবার কখনও সকলের অজান্তে অসময়েই বেঘোরে প্রান গিয়েছে কচ্ছপদের।

রাজপ্রাসাদের দিঘীতে এই কচ্ছপটির মৃত্যুর কারন ঘিরে শুরু হয়েছে জল্পনা। বন দফতরের প্রাথমিক অনুমান, এই দিঘীতে গোপনে চলে লাগামছাড়া মাছধরা। রাজপ্রাসাদের মূল গেটে নিরাপত্তা কড়াকড়ি থাকলেও প্রাসাদের পিছন দিকে নজরদারীর অভাবে চলে মাছ শিকার৷ বন দফতরের অনুমান, মাছ শিকারের জন্য ফেলে রাখা বর্শা গলায় গেথেই মৃত্যু হতে পারে কচ্ছপটির। মনে করা হচ্ছে জলে বিষক্রিয়ার কারনে মাছের মৃত্যু হত। কিন্ত এখন জলাশয়ে কোনও মাছের দেহ ভাসতে দেখা যায় নি৷ ইতিমধ্যেই কচ্ছপের দেহ ময়নাতদন্ত করে দেখছে বন দফতর।

First published: 04:56:36 PM Sep 19, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर