কোচবিহারের বন্ধ বিমানবন্দর ফের চালুর উদ্যোগ, বিমান ওঠা-নামার জন্য রানওয়ের দৈর্ঘ্য বাড়ানোর প্রস্তাব

File Photo

  • Share this:

    #কোচবিহার: বন্ধ কোচবিহার বিমানবন্দর চালু করতে ফের উদ্যোগ শুরু। এগিয়ে এলেন কোচবিহারের সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকের পর যথেষ্ট আশাবাদী তিনি। রানওয়ের দৈর্ঘ্য কম হওয়াতেই বারবার চেষ্টা করেও কোচবিহার বিমানবন্দর চালু করা সম্ভব হয়নি। এবার তাই নদীর উপর বক্স কালভার্ট তৈরি করে রানওয়ের দৈর্ঘ্য বাড়ানোর প্রস্তাব দিল বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

    পরিকাঠামো থাকা সত্ত্বেও বহু বছর ধরে অচল কোচবিহার বিমানবন্দর। ক্ষমতায় আসার পর একাধিকবার বিমানবন্দর চালু করার চেষ্টা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু, প্রতিবারই ভেস্তে গিয়েছে তাঁর উদ্যোগ।

    কোচবিহার বিমানবন্দরের ডিরেক্টর  বিপ্লবকুমার মণ্ডল জানান, ‘‘এখানে যা পরিকাঠামো আছে, তাতে ছোট বিমান ওঠানামা করতে পারে। কিন্তু বড় বিমান চালানো সম্ভব নয়।’’

    03nblCooch1

    বড় বিমান ওঠা-নামার জন্য রানওয়ের দৈর্ঘ্য কমপক্ষে ১৫০০ মিটার হওয়া দরকার। সেখানে কোচবিহার বিমান্দরের রানওয়েটির দৈর্ঘ্য মাত্র ১০৬৯ মিটার। সমস্যা মেটাতে মরা তোর্সার উপর ১৪০ মিটার লম্বা বক্স কালভার্ট তৈরি করে রানওয়ের দৈর্ঘ্য ৪৬০ মিটার বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। সেক্ষেত্রে বর্ধিত রানওয়ের দৈর্ঘ্য হবে মিটার। এ নিয়ে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন কোচবিহারের সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক।

    কোচবিহারের সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক জানান, ‘‘ রানওয়ে সংক্রান্ত সমস্যা দ্রুত মেটানো হবে। কেন্দ্রীয় সরকার সবরকম সহযোগিতা করবে।’’

    এর আগে কয়েকটি বেসরকারি সংস্থার ছোট বিমান কোচবিহারের ওঠানামা করেছে। কিন্তু লাভের আশা না থাকায় শেষপর্যন্ত হাত গুটিয়ে নিয়েছে তারা। তার উপর, আধিকাংশ সংস্থারই ছোট বিমান না থাকায় কোচবিহার বিমানবন্দরের ভবিষ্যৎ নিয়ে সংশয় আরও বেড়েছে। এই অবস্থায় রানওয়ের দৈর্ঘ্য বাড়ানোই সমস্যা সমাধানের একমাত্র পথ বলে মত বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের।

    First published: