Home /News /north-bengal /
Cooch Behar:পরীক্ষার চাপে বিষপান উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর, ২৭ দিন লড়াইয়ের পর মৃত্যু

Cooch Behar:পরীক্ষার চাপে বিষপান উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর, ২৭ দিন লড়াইয়ের পর মৃত্যু

পরিবারের অভিযোগ, পরীক্ষার চাপ সহ্য করতে না পেরে ২৭ দিন আগে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন ওই পরীক্ষার্থী

  • Share this:

    #কোচবিহার: পরীক্ষার চাপে বিষপান করে আত্মঘাতী এক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। মেখলিগঞ্জ ব্লকের রানীরহাট অঞ্চলের ১৮২ সারহাটি এলাকার ঘটনা। পুলিশ জানায় মৃত যুবকের নাম ধ্রুব রায় l উছলপুকুরি অঞ্চলের স্থানীয় কৃষকউদ্যোগ উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন ধ্রুব l

    আরও পড়ুন: মাটির তলা থেকে উঠে এল আড়াই ফুটের শিবলিঙ্গ, চাঞ্চল্য ময়নাগুড়িতে

    পরিবারের অভিযোগ, পরীক্ষার চাপ সহ্য করতে না পেরে ২৭ দিন আগে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন ওই পরীক্ষার্থী l তড়িঘড়ি তাঁকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশ্যালিটি হসপিটালে। সেখানে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকলে একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। সেখানেও ক্রমশ খারাপ হতে থাকে পরিক্ষার্থীর শারীরিক অবস্থা। তখন তাঁকে শিলিগুড়ির একটি সরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানেই আজ, মঙ্গলবার শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেন উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ধ্রুব রায়। পরিবারের তরফে মৃতের পিসেমশাই নারায়ণ রায় জানান, '' পরীক্ষার পড়ার চাপে নাজেহাল ছিল ধ্রুব। সেই কারণেই আত্মহননের পথ বেছে নেয়।'' ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

    আরও পড়ুন: চোপড়ার চা-বাগানে মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগ

    অন্যদিকে, রাতে বাবার মুখাগ্নি করে সকালে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দিলেন মালদহের পড়ুয়া। স্কুল ইউনিফর্ম নয়, বাবার মুখাগ্নি করে লালপাড় সাদা শাড়ি পড়ে কুশের উপর বসে সংস্কৃত পরীক্ষা দিলেন জুঁই। রবিবার সন্ধ্যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বাবা। তিন বোনের মধ্যে বড় উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী জুঁই, তাই তাকেই বাবার মুখাগ্নি করতে হয়। বাবাকে হারানোর শোক সামলে, মনের জোর আর ইচ্ছাশক্তির বলে মঙ্গলবার উচ্চমাধ্যমিকের সংস্কৃতি পরীক্ষা দিলেন মালদহের হবিপুর থানার আইহো হাই স্কুলের ছাত্রী জুঁই মন্ডল।

    Prabir Kundu

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    Tags: Cooch behar

    পরবর্তী খবর