দীর্ঘ ৪০ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন! বিজেপিতে যোগ দিলেন কংগ্রেস নেতা অশোক রায়

দীর্ঘ ৪০ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন! বিজেপিতে যোগ দিলেন কংগ্রেস নেতা অশোক রায়

দীর্ঘ ৪০ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন! বিজেপিতে যোগ দিলেন কংগ্রেস নেতা অশোক রায়

কংগ্রেস দলের সঙ্গে দীর্ঘ ৪০ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়ার কংগ্রেস নেতা অশোক রায়। কংগ্রেস ছেড়ে তিনিও বিজেপিতে যোগ দিলেন। গতকাল রাতে উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপি দফতরে এসে তিনি বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নেন।

  • Share this:

#উত্তরদিনাজপুর: কংগ্রেস দলের সঙ্গে দীর্ঘ ৪০ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়ার কংগ্রেস নেতা অশোক রায়। কংগ্রেস ছেড়ে তিনিও বিজেপিতে যোগ দিলেন। গতকাল রাতে উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপি দফতরে এসে তিনি বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নেন।

বিজেপি জেলা সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ী তাঁর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন। দলত্যাগী অশোক রায় জানান, বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে চোপড়ায় লড়াই আন্দোলন করা হয়। দীর্ঘ ২০ বছর ধরে চোপড়া বিধানসভা কেন্দ্রটি সিপিএমকে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। ফলে এলাকার কংগ্রেস কর্মীরা হতাশ হয়ে পড়েছেন। দলীয় কর্মীদের চাঙ্গা করতেই তিনি কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন।

অশোক রায় বিজেপিতে যোগ দিলেও চোপড়া বিধানসভা কেন্দ্রে নির্বাচনে কোনও প্রভাব পড়বে না। এই কেন্দ্রের মানুষ মমতা ব্যানার্জীর প্রার্থীদের বিপুল ভোটে জয়ী করে অশোকবাবুর জামানত বাজেয়াপ্ত করবেন। অশোকবাবুর মতো নেতা বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় উজ্জীবিত বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।

উত্তর দিনাজপুর জেলার কংগ্রেস দলের নেতা অশোক রায়। তিনি চোপড়া ব্লকের কংগ্রেস সভাপতি ছিলেন। দীর্ঘ ৪০ বছর কংগ্রেস দলের সঙ্গে যুক্ত আছেন। তিনি দীর্ঘ ২০ বছর ধরে ব্লক কংগ্রেসের দায়িত্বে আছেন। পঞ্চায়েত,বিধানসভা এবং লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে জোরদার লড়াই করেছেন। গত বিধানসভা নির্বাচনের পরে সারা রাজ্যে কংগ্রেস বামফ্রন্ট জোট ভেঙে গেলেও একমাত্র চোপড়া ব্লকেই এই জোট অক্ষত আছে।

কংগ্রেস এবং বামফ্রন্ট জোটবদ্ধ হয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। এই লড়াই এর মূল নেতা অশোক রায়। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে জেলা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে চোপড়া বিধানসভা কেন্দ্রটি দাবি করলেও বামফ্রন্ট সেই দাবিকে মেনে নেয়নি। যার কারনেই দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন বলে দলত্যাগী নেতা অশোক রায় জানিয়েছেন।

চোপড়া তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী হামিদুল রহমান জানিয়েছেন, অশোক রায় বিজেপিতে গেলেও তাতে ভোটে কোনও প্রভাব পড়বে না। এলাকার মানুষ উন্নয়নের স্বার্থে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশেই থাকবেন। অশোক রায়ের জামানত বাজেয়াপ্ত হবে। উত্তর দিনাজপুর জেলা কংগ্রেসের সহ সভাপতি পবিত্র চন্দ জানান, অশোক রায় দীর্ঘ দিন যাবত তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন। জোট ধর্ম পালন করতে গিয়ে অশোক বাবুর মতো একজন যোদ্ধাকে হারাতে হল। তাঁর অভাব কংগ্রেস দল প্রতিনিয়ত অনুভব করবে। অশোকবাবুর জায়গায় অন্য একজন ব্লক কংগ্রেসের দায়িত্ব দেওয়া হবে বলে পবিত্রবাবু জানিয়েছেন।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: