Home /News /north-bengal /
কংগ্রেসকে ছাড়তে হবে ইটাহার বিধানসভা কেন্দ্র! দাবি তুলে জেলা কংগ্রেস ভবনে কংগ্রেস কর্মীদের ধর্ণা

কংগ্রেসকে ছাড়তে হবে ইটাহার বিধানসভা কেন্দ্র! দাবি তুলে জেলা কংগ্রেস ভবনে কংগ্রেস কর্মীদের ধর্ণা

এর আগে সিপিআই প্রার্থী শ্রীকুমার মুখোপাধ্যায় ভোটে হেরে যাবার পর ইটাহারে পাঁচদিনের জন্য পা রাখেননি।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: উত্তর দিনাজপুর জেলায় জোটে জট তৈরি হল। উত্তর দিনাজপুর জেলার ইটাহার বিধানসভা কেন্দ্রটি কংগ্রেস প্রার্থীকে ছেড়ে দেওয়ার দাবিতে জেলা কংগ্রেস ভবন গান্ধী ভবনে ধর্নায় বসছেন ইটাহার কংগ্রেস নেতা কর্মীরা। জেলা কংগ্রেস সভাপতি মোহিত সেনগুপ্ত জানান, জোট ধর্ম পালন করতে গেলে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়। আলোচনার মাধ্যমে যখন ইটাহার আসনটি বামফ্রন্টকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে তখন সর্বশক্তি নিয়োগ করে জোটের প্রার্থীকে জয়ী করতে হবে।

জেলা বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান অপূর্ব পাল বলেছেন যে  রাজ্যস্তরে এই আসন বন্টন হয়েছে। ক্ষুব্ধ কংগ্রেস বোঝানোর দায়িত্ব কংগ্রেসকেই নিতে হবে। আসন্ন বিধান্সভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপি বিরোধী সমস্ত রাজনৈতিক দল ঐক্যবদ্ধ হয়েছে সংযুক্ত মোর্চা গঠিত হয়েছে। কংগ্রেস এবং বামফ্রন্ট দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করে আসন ভাগাভাগি হয়। উত্তর দিনাজপুর জেলার ৯টি আসনের মধ্যে ৫টি বামফ্রন্ট, কংগ্রেস ৪টি আসন পায়। ইটাহার বিধানসভা কেন্দ্রটি বাম শরিক সি পি আই কে ছেড়ে দেওয়া হয়। এই কেন্দ্রে প্রার্থী প্রাক্তন মন্ত্রী ডঃ শ্রীকুমার মুখোপাধ্যায়। বিতর্ক সেখানেই তৈরী।

সংযুক্ত মোর্চা গঠনের সময় থেকে ইটাহার আসনটিতে কংগ্রেস প্রার্থী দেবার জন্য ব্লক কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জেলা কংগ্রেসের কাছে দাবি জানানো হয়। প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল কংগ্রেসের কাছে। এতকিছুর পর বাম শরিক সি পি আই কে ছেড়ে দেওয়া ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ইটাহার ব্লকের কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা। শনিবার ইটাহার ব্লক কংগ্রেস নেতা তথা জেলা কংগ্রেসের সাধারন সম্পাদক কামরুল হক দলীয় কর্মীদের নিয়ে গান্ধী ভবনে ধর্নায় বসেন। কামরুল হক জানান, ইটাহারে কংগ্রেস দল অনেক বেশি শক্তিশালী।

সিপিআই প্রার্থী শ্রীকুমার মুখোপাধ্যায় ভোটে হেরে যাবার পর ইটাহারে পাঁচদিনের জন্য পা রাখেননি। অবিলম্বে ইটাহার কেন্দ্রটি কংগ্রেসকে ছেড়ে দেবার দাবিতেই ধর্নায় বসেছেন। তাঁদের দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তাঁরা ধর্না চালিয়ে যাবেন। জেলা কংগ্রেস সভাপতি মোহিত সেনগুপ্ত জানান যে, দলীয় কর্মী নেতা তাঁদের দাবি জানাতে জেলা দফতরে আসতেই পারেন। রাজ্য নেতাদের উপস্থিতিতে আসন বণ্টনের পর কারোর দাবি মানা হবে না। সবাই মিলে লড়াই করে ইটাহার সিপিআই প্রার্থীকে জয়ী করতে হবে।জেলা বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান অপূর্ব পাল জানান, জেলা স্তরে আসন বণ্টন হয়নি। রাজ্য স্তরে আসন বণ্টন হয়েছে। দলীয় নেতা কর্মীদের বোঝানোর দায়িত্ব কংগ্রেস নেতাকেই নিতে হবে।

Uttam Paul

Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Congress, West Bengal Assembly Election 2021

পরবর্তী খবর