Home /News /north-bengal /
North Bengal News: দিনের পর দিন 'দাদাগিরি', ধূপগুড়ির 'ত্রাস' নাকি এক ওসি ট্রাফিক! কে তিনি?

North Bengal News: দিনের পর দিন 'দাদাগিরি', ধূপগুড়ির 'ত্রাস' নাকি এক ওসি ট্রাফিক! কে তিনি?

'দাদাগিরি'

'দাদাগিরি'

North Bengal News: ট্রাফিক ওসির দাদাগিরি। তিন বছরের পুরনো কথা টেনে নিয়ে এসে ব্যবসায়ীকে উত্ত্যক্ত করার চেষ্টা ট্রাফিক ওসির।

  • Share this:

    #ধূপগুড়ি: তিন বছরের পুরনো কথা টেনে নিয়ে এসে ব্যবসায়ীকে উত্ত্যক্ত করার চেষ্টা ট্রাফিক ওসির। শুক্রবার ধূপগুড়ি ট্রাফিক মোড় সংলগ্ন এলাকায় একটি গাড়ির চালকের সিটবেল্ট না থাকায় তাঁর জরিমানা না করে তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হয়। এমনকি অশালীন ভাষা প্রয়োগ করা হয় বলে অভিযোগ। একজন পুলিশ আধিকারিক হয়ে সাধারণ মানুষকে আইন না বুঝিয়ে তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা,সেই সাথে বাপ মা তুলে কথা বলে সম্মান হানি করা হয়।এই ঘটনার প্রতিবাদ করাতে উত্তেজিত হয়ে ওঠেন ট্রাফিক ওসি।

    সিটবেল্ট না থাকায় ফাইন কাটার কথা তার কিন্তু, ফাইন কাটার পাশাপাশি অশালীন ভাষা প্রয়োগ করা হয় বলে অভিযোগ আর তাকে নিয়েই বিবাদের সূত্রপাত। এদিন সকালে ধূপগুড়ি শহরের একটি নামি মোবাইল ফোনের দোকানের মালিক নান্টু পাল গাড়ি নিয়ে আসছিলেন ,ট্রাফিক আইন অনুযায়ী তিনি ড্রাইভিং সিটে থাকা সত্বেও সিটবেল্ট লাগাননি। এরপর যথারীতি কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ তাকে দাড় করান এবং শিটবেল্ট না থাকার জন্য জরিমানার কথা বলেন। এই পর্যন্ত সব ঠিকঠাক চলছিল, এরই মধ্যে ব্যবসায়ীকে উত্ত্যক্ত করেন ট্রাফিক ওসি অভিজিৎ সিনহা বলে অভিযোগ। তিন বছর পুরনো একটি কথা তিনি টেনে আনেন। আর এতেই চটে জান ওই ব্যাবসায়ী।

    আরও পড়ুন: তাক লাগাল HS-এর মেধাতালিকায়, জলচক নটেশ্বরী আর সোনিদেবী জৈন হাইস্কুলের রহস্য়টা কী?

    ব্যবসায়ীর অভিযোগ তিনি যদি ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করে থাকেন তবে তিনি জরিমানা দিতে রাজি তাই বলে কেউ পুরনো কথা টেনে এনে রাস্তায় তাকে অপমান করতে পারে না। এমনকি খাকি উর্দির অপব্যবহার করা হচ্ছে বলেও তিনি দাবি করেন। ভিডিওতে দেখা যায় ট্রাফিক ওসি অভিজিৎ সিনহা রীতিমতো তেড়ে আসেন সেই ব্যবসায়ীর দিকে। "মারবি আমাকে মারবি আমাকে"এই কথা বলে ব্যবসায়ীকে উত্ত্যক্ত করার চেষ্টা করেন। এই প্রথম এমন ঘটনা ঘটেছে এমনটা কিন্তু নয় বরাবরই বিতর্ককে সঙ্গী করে চলেন এই ট্রাফিক ওসি। এর আগে থানার ভেতরেই এক হোম গার্ডের সঙ্গেও মারপিটে জড়িয়ে ছিলেন তিনি, পাশাপাশি নিজের অফিসে স্যান্ডো গেঞ্জি পড়ে উদ্দাম নাচ করেও বিতর্ক সৃষ্টি করেছিলেন অভিজিত বাবু,ওনার বিতর্কের তালিকা নেহাত কম নয়। কোন এক অদৃশ্য কারণে বারবার ঘুরেফিরে ধূপগুড়ি ট্রাফিক ওসির গুরুদায়িত্ব পেয়েজান এই অফিসার। এতবার এত বিতর্কে জরানোর পরেও বহাল তবিয়তে রয়েছে অভিজিত বাবু। সিটবেল্ট না পরে গাড়ি চালানোর জন্য  জরিমানা করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন সেই ব্যক্তি।

    আরও পড়ুন: অর্ডার ছিল স্মার্টফোনের, কিন্তু বাড়িতে যা এল! চক্ষু চড়কগাছ সকলের

    তবে ধূপগুড়ির ট্রাফিক ব্যবস্থার বর্তমান চিত্র দেখলে তার কঙ্কালসার রূপটি সামনে উঠে আসে। ট্রাফিক আইল্যান্ড থেকে পনেরো কুড়ি মিটার দূরে গেলেই দেখা যায় নো পার্কিং জোন থেকে শুরু করে সার্ভিস রোড সবটাই দখল হয়ে গিয়েছে। ধূপগুড়ি মহাকুমা নাগরিক মঞ্চ ধূপগুড়ির রাস্তাকে সুরক্ষিত করে খোলার দাবিতে আন্দোলনে নেমেছিল।

    এরপর দিন পনেরো ধূপগুড়ি থানার আইসি সুজয় তুঙ্গা ও সাব ইন্সপেক্টর বিনয় যাদবের নেতৃত্বে ট্রাফিক ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানো হয়। মাসখানেক ঠিক থাকার পর ফের একবার সেই আগের হাস্যকর অবস্থায় ফিরে আসে ধূপগুড়ির ট্রাফিক ব্যবস্থা। আজকের এই ঘটনা নিয়ে ট্রাফিক ওসি অভিজিৎ সিনাকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি। তবে তিন বছরের পুরনো কোনো বচসা বা মনোমালিন্য থেকে আজকের এই বিবাদ কিনা সেই প্রশ্ন কিন্তু থেকেই যাচ্ছে।

    ----রকি চৌধুরী
    Published by:Suman Biswas
    First published:

    Tags: North Bengal, West Bengal news

    পরবর্তী খবর