বাংলায় NRC করতে দেব না, পাহাড়ের সভা থেকে হুঙ্কার মমতার

পাহাড়ে নির্বাচনী প্রচারে এসে তৃণমূলনেত্রীর অভিযোগ, পাঁচ বছরে কোনও কাজ করেনি বিজেপি ৷ উল্টে দেশ জুড়ে বিপর্যয় নেমে এসেছে ৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Apr 11, 2019 04:31 PM IST
বাংলায় NRC করতে দেব না, পাহাড়ের সভা থেকে হুঙ্কার মমতার
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Apr 11, 2019 04:31 PM IST

#দার্জিলিং: মমতার টার্গেট দার্জিলিং। প্রথম দফার ভোট চলাকালীন পাহাড় থেকে হুঙ্কার দিলেন তৃণমূল নেত্রী। দার্জিলিঙের চকবাজারের সভা থেকে মোদিকে তোপ দাগলেন। ধাপে ধাপে বিঁধলেন বিদায়ী সাংসদ এসএস আলুওয়ালিয়া ও বিমল গুরুংকে।

NRC ইস্যু নিয়ে ফের গেরুয়া বাহিনীর বিরুদ্ধে সরব তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ ক্ষমতায় এলে গোটা দেশে NRC করতে চায় বিজেপি ৷ বাংলায় NRC করতে না দেওয়ার হুঙ্কার মমতার ৷ পাহাড়ে নির্বাচনী প্রচারে এসে তৃণমূলনেত্রীর অভিযোগ, পাঁচ বছরে কোনও কাজ করেনি বিজেপি ৷ উল্টে দেশ জুড়ে বিপর্যয় নেমে এসেছে ৷ কর্মসংস্থানে যে প্রতিশ্রুতি মোদি সরকার দিয়েছিল তা তো হয়নি উল্টে বেড়েছে দেশ জুড়ে বেকারত্ব ৷

দার্জিলিঙের মোটর স্ট্যান্ডের সভা থেকে বিজেপির উদ্দেশ্যে তৃণমূল নেত্রীর তীব্র কটাক্ষ, ‘আগে দিল্লি সামলা, পরে বাংলা ৷’ জনতার উদ্দেশ্যে মমতার আহবান, ‘বাংলায় বিয়াল্লিশে ৪২ চাই ৷  দিল্লিতে সরকার গঠন করতে হবে ৷ মোদি সরকারকে উৎখাত করতে হবে ৷ লোকসভা ভোটে দিল্লি দখল করতে হবে ৷’

গোটা দেশ সহ দার্জিলিঙেও কিছু করেনি বিজেপি ৷ মমতা এদিন নির্বাচনীমঞ্চে বলেন, ‘বিজেপি পাহাড়ের উন্নয়ন চায় না ৷ দার্জিলিঙে অশান্তি হলে বিজেপির লাভ ৷ গোর্খারা সেনাবাহিনীর গৌরব ৷ ভোটে জিতে দেখা মেলেনি আলুওয়ালিয়ার ৷ দার্জিলিঙে দেখা মেলেনি বিজেপি সাংসদের ৷ পাহাড়ের জন্য কিছু ভাবেনি বিজেপি৷ শুধু ভোটের জন্য দার্জিলিঙে আসি না৷ ৩ মাস পরপর পাহাড়ে আসি ৷’

Loading...

শুধু তাই নয়, দার্জিলিঙে বিজেপির প্রার্থী রাজু সিং বিস্তাকে কটাক্ষ করে মমতা বলেন, ‘মণিপুর থেকে প্রার্থী এনেছে বিজেপি ৷ মমতা  দু’দিন থেকে ফের পালিয়ে যাবে ৷’ অন্যদিকে, দার্জিলিঙের তৃণমূল প্রার্থীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ তৃণমূলনেত্রী ৷ বলেন, ‘অমর সিং রাই পাহাড়ের ভূমিপুত্র ৷ আপনাদের নিজের ছেলেকেই প্রার্থী করেছে তৃণমূল ৷ পাহাড়ে বিমল গুরুং এখন নেই ৷ পাহাড়ে আমাদের কেউ শত্রু নেই ৷ পাহাড়ে অশান্তিতে মদত বিজেপির ৷ ওদের সাহায্য করবেন না ৷’

এদিনের নির্বাচনী সভা ফের মমতার মুখে শোনা যায় অসমের নাগরিকপঞ্জির বিষয়টি ৷ অসমের নাগরিকপঞ্জি হওয়ায় কিভাবে সমস্যার সম্মখীন হয়েছেন সাধারণ মানুষ তা জানিয়ে তৃণমূলনেত্রী বলেন, ‘এনআরসি করে সবাইকে তাড়ানোর ছক ৷  অসমে ৪২ লক্ষ বাঙালির নাম বাদ ৷ বাংলায় এনআরসি করতে চাইছে বিজেপি ৷ বাংলায় এনআরসি মানব না ৷’ সেই সঙ্গে তৃণমূলনেত্রীর খোঁচা, বাংলার চিন্তা ছেড়ে দিল্লিতে বিজেপির নিজেদের গদি বাঁচানোর চিন্তা করা উচিত ৷

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির গত পাঁচ বছরের কাজের সমালোচনা করে মমতার আক্রমণ, ‘দেশের সংবিধান সংকটে৷  দেশের গণতন্ত্র বিপদের মুখে ৷ শুধু নিজের প্রচার করেন মোদি ৷ নিজের নামে সিনেমা বানিয়েছেন মোদি ৷

নিজের নামে টিভি চ্যানেল করেছেন ৷ ভোটের পর লোকে চপ্পল ছুড়বে ৷’

তৃণমূল নেত্রীর আরও অভিযোগ, মোদির আমলে সবচেয়ে বেশি বেকার তৈরি হয়েছে দেশে ৷ বেকারত্ব বেড়েছে ৪৫ শতাংশ ৷ অন্যদিকে বিজেপির জওয়ানদের নিয়ে দেশপ্রেমের প্রচারকে তীব্র আক্রমণ করে মমতা বলেন, ‘পুলওয়ামায় হামলার সতর্কতা ছিল ৷ তারপরেও কেন ব্যবস্থা নেননি? জওয়ানদের মৃত্যুর জন্য দায়ী সরকার ৷ জওয়ান মেরে জওয়ান প্রেম বিজেপির ৷ সেনার নামে ভোট চাইছেন মোদি ৷’

এছাড়া নোটবন্দির দুর্ভোগ স্মরণ করানো থেকে সিবিআই ইডি দিয়ে ভয় দেখানোর মতো গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগও শোনা যায় গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে তৃণমূলনেত্রীর মুখে ৷

First published: 04:25:08 PM Apr 11, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर