বাংলায় NRC করতে দেব না, পাহাড়ের সভা থেকে হুঙ্কার মমতার

বাংলায় NRC করতে দেব না, পাহাড়ের সভা থেকে হুঙ্কার মমতার

পাহাড়ে নির্বাচনী প্রচারে এসে তৃণমূলনেত্রীর অভিযোগ, পাঁচ বছরে কোনও কাজ করেনি বিজেপি ৷ উল্টে দেশ জুড়ে বিপর্যয় নেমে এসেছে ৷

  • Share this:

#দার্জিলিং: মমতার টার্গেট দার্জিলিং। প্রথম দফার ভোট চলাকালীন পাহাড় থেকে হুঙ্কার দিলেন তৃণমূল নেত্রী। দার্জিলিঙের চকবাজারের সভা থেকে মোদিকে তোপ দাগলেন। ধাপে ধাপে বিঁধলেন বিদায়ী সাংসদ এসএস আলুওয়ালিয়া ও বিমল গুরুংকে।

NRC ইস্যু নিয়ে ফের গেরুয়া বাহিনীর বিরুদ্ধে সরব তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ ক্ষমতায় এলে গোটা দেশে NRC করতে চায় বিজেপি ৷ বাংলায় NRC করতে না দেওয়ার হুঙ্কার মমতার ৷ পাহাড়ে নির্বাচনী প্রচারে এসে তৃণমূলনেত্রীর অভিযোগ, পাঁচ বছরে কোনও কাজ করেনি বিজেপি ৷ উল্টে দেশ জুড়ে বিপর্যয় নেমে এসেছে ৷ কর্মসংস্থানে যে প্রতিশ্রুতি মোদি সরকার দিয়েছিল তা তো হয়নি উল্টে বেড়েছে দেশ জুড়ে বেকারত্ব ৷

দার্জিলিঙের মোটর স্ট্যান্ডের সভা থেকে বিজেপির উদ্দেশ্যে তৃণমূল নেত্রীর তীব্র কটাক্ষ, ‘আগে দিল্লি সামলা, পরে বাংলা ৷’ জনতার উদ্দেশ্যে মমতার আহবান, ‘বাংলায় বিয়াল্লিশে ৪২ চাই ৷  দিল্লিতে সরকার গঠন করতে হবে ৷ মোদি সরকারকে উৎখাত করতে হবে ৷ লোকসভা ভোটে দিল্লি দখল করতে হবে ৷’

গোটা দেশ সহ দার্জিলিঙেও কিছু করেনি বিজেপি ৷ মমতা এদিন নির্বাচনীমঞ্চে বলেন, ‘বিজেপি পাহাড়ের উন্নয়ন চায় না ৷ দার্জিলিঙে অশান্তি হলে বিজেপির লাভ ৷ গোর্খারা সেনাবাহিনীর গৌরব ৷ ভোটে জিতে দেখা মেলেনি আলুওয়ালিয়ার ৷ দার্জিলিঙে দেখা মেলেনি বিজেপি সাংসদের ৷ পাহাড়ের জন্য কিছু ভাবেনি বিজেপি৷ শুধু ভোটের জন্য দার্জিলিঙে আসি না৷ ৩ মাস পরপর পাহাড়ে আসি ৷’

শুধু তাই নয়, দার্জিলিঙে বিজেপির প্রার্থী রাজু সিং বিস্তাকে কটাক্ষ করে মমতা বলেন, ‘মণিপুর থেকে প্রার্থী এনেছে বিজেপি ৷ মমতা  দু’দিন থেকে ফের পালিয়ে যাবে ৷’ অন্যদিকে, দার্জিলিঙের তৃণমূল প্রার্থীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ তৃণমূলনেত্রী ৷ বলেন, ‘অমর সিং রাই পাহাড়ের ভূমিপুত্র ৷ আপনাদের নিজের ছেলেকেই প্রার্থী করেছে তৃণমূল ৷ পাহাড়ে বিমল গুরুং এখন নেই ৷ পাহাড়ে আমাদের কেউ শত্রু নেই ৷ পাহাড়ে অশান্তিতে মদত বিজেপির ৷ ওদের সাহায্য করবেন না ৷’

এদিনের নির্বাচনী সভা ফের মমতার মুখে শোনা যায় অসমের নাগরিকপঞ্জির বিষয়টি ৷ অসমের নাগরিকপঞ্জি হওয়ায় কিভাবে সমস্যার সম্মখীন হয়েছেন সাধারণ মানুষ তা জানিয়ে তৃণমূলনেত্রী বলেন, ‘এনআরসি করে সবাইকে তাড়ানোর ছক ৷  অসমে ৪২ লক্ষ বাঙালির নাম বাদ ৷ বাংলায় এনআরসি করতে চাইছে বিজেপি ৷ বাংলায় এনআরসি মানব না ৷’ সেই সঙ্গে তৃণমূলনেত্রীর খোঁচা, বাংলার চিন্তা ছেড়ে দিল্লিতে বিজেপির নিজেদের গদি বাঁচানোর চিন্তা করা উচিত ৷

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির গত পাঁচ বছরের কাজের সমালোচনা করে মমতার আক্রমণ, ‘দেশের সংবিধান সংকটে৷  দেশের গণতন্ত্র বিপদের মুখে ৷ শুধু নিজের প্রচার করেন মোদি ৷ নিজের নামে সিনেমা বানিয়েছেন মোদি ৷

নিজের নামে টিভি চ্যানেল করেছেন ৷ ভোটের পর লোকে চপ্পল ছুড়বে ৷’

তৃণমূল নেত্রীর আরও অভিযোগ, মোদির আমলে সবচেয়ে বেশি বেকার তৈরি হয়েছে দেশে ৷ বেকারত্ব বেড়েছে ৪৫ শতাংশ ৷ অন্যদিকে বিজেপির জওয়ানদের নিয়ে দেশপ্রেমের প্রচারকে তীব্র আক্রমণ করে মমতা বলেন, ‘পুলওয়ামায় হামলার সতর্কতা ছিল ৷ তারপরেও কেন ব্যবস্থা নেননি? জওয়ানদের মৃত্যুর জন্য দায়ী সরকার ৷ জওয়ান মেরে জওয়ান প্রেম বিজেপির ৷ সেনার নামে ভোট চাইছেন মোদি ৷’

এছাড়া নোটবন্দির দুর্ভোগ স্মরণ করানো থেকে সিবিআই ইডি দিয়ে ভয় দেখানোর মতো গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগও শোনা যায় গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে তৃণমূলনেত্রীর মুখে ৷

First published: 04:25:08 PM Apr 11, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर