‘ছবি’ বদলাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী

‘ছবি’ বদলাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী

একাধিক নয়া প্রকল্পের ঘোষণা। টাকা যাবে সরাসরি গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে ৷

  • Share this:

#কলকাতা: মানবিক মুখ্যমন্ত্রী। ক্লাস নাইনের অসুস্থ এক ছাত্রীর চিকিৎসা ব্যবস্থা  করে দিলেন তিনি। উত্তর দিনাজপুরের জেলাশাসককে তিনি এই ব্যপারে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন। কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপ-নির্বাচনে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে তৃণমুল কংগ্রেস।

সেখানকার মানুষকে ধন্যবাদ দিতে সরকারি সভায় যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনুষ্ঠানের শুরুতেই ছিল সরকারি পরিষেবা অনুষ্ঠান চলছিল। তখনই মুখ্যমন্ত্রীর সামনে হাজির হন কালিয়াগঞ্জ এলাকার সুশা গ্রামের ছবি দেববর্মা। ‘সবুজ সাথী’ প্রকল্পের সাইকেল মুখ্যমন্ত্রী ছবির হাতে তুলে দেন। তখনই তার নজরে আসে ছবির চেহারা। ছবির মুখের বিভিন্ন দিক থেক মাংস পিন্ড ঝুলে পড়েছে। যার জেরে পরিষ্কার করে কথা বলতে পারে না ছবি।

মুখ্যমন্ত্রীর সামনেই ছবি তার নিজের শারীরিক অবস্থার কথা জানান। মুখ্যমন্ত্রী সাথে সাথে ডেকে নেন জেলাশাসককে। তড়িঘড়ি যাতে ছবি'র চিকিৎসা শুরু করা যায় সেই বিষয়ে দায়িত্ব নিতে বলেন। মুখ্যমন্ত্রীর এমন সাহায্যে খুশি ছবি। সাইকেল পেয়ে যতটা খুশি, তার চেয়েও বেশি খুশি তার চিকিৎসা শুরু হবে বলে। ছবি বলে, ‘‘আমরা গরীব পরিবার। ডাক্তার দেখানো হয়েছিল। কিন্তু অপারেশন করার জন্য যে টাকা প্রয়োজন তা আমাদের র পক্ষে খরচ করা সম্ভব নয়। মুখ্যমন্ত্রী এভাবে আমাকে সাহায্য করবেন আমি ভাবিনি। আশা করছি আমি এবার সুস্থ হয়ে যাব।"

মুখ্যমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তে দারুণ খুশি ছবির বন্ধুরাও। অনেক সময়ই তার এই চেহারার জন্য নানা প্রতিবন্ধকতার শিকার হতে হয় ছবিকে। এবার সেই ব্যবহার থেকে মুক্তি মিলবে বলে আশাবাদী আগামী বছর মাধ্যমিক দিতে চলা মেধাবী ছবি। তবে শুধু ছবি নয়। গোটা রাজ্যের বিভিন্ন প্রকল্পের ছবি বদলানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। কালিয়াগঞ্জ সভায় তিনি বেশ কয়েকটি নতুন প্রকল্প ঘোষণা করেন। কালিয়াগঞ্জ থেকে শুরু হল স্নেহালয় প্রকল্প। যেখানে বাংলা আবাস যোজনার পাশাপাশি এই প্রকল্পেও গরীব মানুষের বাড়ি তৈরির জন্য মিলবে টাকা। দেওয়া হবে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা। দু’দফায় টাকা দেওয়া হবে ৬০ হাজার করে। তবে এই টাকা সরাসরি উপভোক্তার অ্যাকাউন্টে দেওয়া হবে।

মুখ্যমন্ত্রী পেনশন স্কিমেও বদল আনার কথা বললেন কালিয়াগঞ্জ থেকে। নিয়ে আসা হল জয় বাংলা প্রকল্প। যেখানে তফশিলী মানুষ, যাদের বয়স ৬০ বছর তারা পাবেন ১০০০ টাকা করে। আদিবাসীদের জন্য নিয়ে আসা হল জয় জোহার প্রকল্প। যেখানে ৬০ পেরনো মানুষ পাবেন ১০০০ টাকা করে। এই টাকাও সরাসরি গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে চলে যাবে। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, টাকার জন্য কাউকে কারও কাছে ধরাধরি করতে হবে না। মাসের ১ তারিখ সবাই টাকা পেয়ে যাবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। এছাড়া বিধবা ভাতা সহ বাকি যে সমস্ত ভাতা দেওয়া হয়, সেগুলিও ৭০০ থেকে বাড়িয়ে ১০০০ টাকা করার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

Abir Ghoshal

First published: March 3, 2020, 4:07 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर